বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > IND vs BAN: কেএল রাহুলের ছক্কা দেখে চোখ ছানাবড়া কোহলির- ভাইরাল ভিডিয়ো

IND vs BAN: কেএল রাহুলের ছক্কা দেখে চোখ ছানাবড়া কোহলির- ভাইরাল ভিডিয়ো

কেএল রাহুলের ছক্কা দেখে চোখ ছানাবড়া কোহলির।

নবম ওভারে বাংলাদেশের শরিফুল ইসলামের বলে নিজের অর্ধশত রান পূরণের আগে রাহুল পরপর দু'টি ছক্কা হাঁকান। সেই সময়ে নন-স্ট্রাইকার জোনে দাঁড়িয়ে থাকা কোহলি এ রকম মাস্টারক্লাস স্ট্রোক দেখে চোখ রীতিমতো চোখ কপালে তোলেন। রাহুলের ছক্কা নিয়ে এখন যা না চর্চা হচ্ছে, তার চেয়ে বেশি ভাইরাল কোহলির মজাদার প্রতিক্রিয়া।

অবশেষে ফর্মে ফিরলেন লোকেশ রাহুল। বুধবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে কিছুটা নড়বড় করছিলেন রাহুল। তার পর ধীরে ধীরে মানিয়ে নেন তিনি। বিশেষ করে কোহলি তাঁকে নানা ভাবে উৎসাহ দিয়ে গিয়েছেন। যা ক্যামেরার ধরাও পড়েছে।

পাওয়ারপ্লে-তে প্রথম দিকে অধিনায়ক রোহিত আউট হওয়ার পরে, রাহুল এবং কোহলি মিলে দলের হাল ধরেন। বাংলাদেশের বোলারদেরকে তাঁরা অলআউট আক্রমণ করতে থাকে। নবম ওভারে বাংলাদেশের শরিফুল ইসলামের বলে নিজের অর্ধশত রান পূরণের আগে রাহুল পরপর দু'টি ছক্কা হাঁকান। সেই সময়ে নন-স্ট্রাইকার জোনে দাঁড়িয়ে থাকা কোহলি এ রকম মাস্টারক্লাস স্ট্রোক দেখে চোখ রীতিমতো চোখ কপালে তোলেন।

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বকাপ শুনেই জানতাম ভালো ক্রিকেটিং শট খেলতে হবে, ঘুরিয়ে অনেককে জবাব কোহলির

লোকেশ রাহুলের ছক্কা হাঁকানো নিয়ে এখন যা না চর্চা হচ্ছে, তার চেয়ে বেশি ভাইরাল হয়েছে কিং কোহলির মজাদার প্রতিক্রিয়া। সবটাই কিন্তু রাহুলকে অনুপ্রাণিত করার জন্যই বিরাটের ছোট্ট প্রচেষ্টা।

এ দিন কোহলির টিপস কাজে লাগিয়ে রাহুল ৩২ বলে ৫০ রান করেন। তাঁর ইনিংসে রয়েছে ৩টি চার এবং ৪টি ছক্কা। প্রসঙ্গত আগের ৩ ম্যাচ মিলিয়ে রাহুল সংগ্রহ ছিল মোট ২২ রান। তাঁর ফর্ম নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছিল। তাঁর ছন্দে ফেরটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। অবশেষে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচে দলের পাশাপাশি নিজেও অক্সিজেন পেলেন রাহুল। এই ওভারে শরিফুলকে পিছিয়ে ছাতু করেন রাহুল। কোহলিও একটি চার হাঁকিয়েছিল। আর এই ওভার ছিল সবচেয়ে ব্যয়বহুল। মোট ২৪ রান দেন শরিফুল। এর পরের ওভারেই অবশ্য রাহুল ৫০ করার পরেই শাকিব আল হাসানের বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান।

আরও পড়ুন: মাঠের বাইরে ব্রাশ হাতে কেন ঘুরছিলেন থ্রো-ডাউন এক্সপার্ট রঘু?কারণ জানলে অবাক হবেন

এই ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে বিরাট কোহলির অপরাজিত ৬৪ এবং কেএল রাহুলের ৫০ রানের উপর ভর করে ভারত ছয় উইকেট হারিয়ে ১৮৪ রান করে। শুরুটা দারুণ করেছিল বাংলাদেশ। ওপেনার লিটন দাস শুরুতেই দ্রুত রান তুলে হাফ সেঞ্চুরি করেন। সাত ওভারে কোনও উইকেট না হারিয়ে ৬৬ রান করে ফেলেছিল বাংলাদেশ। এর পর বৃষ্টি নামলে ম্যাচ বন্ধ হয়ে যায়। পরে ম্যাচ শুরু হলে বৃষ্টির জন্য ৪ ওভার কমে খেলা ১৬ ওভারের হয়ে যায়। টার্গেট হয়ে যায় ১৫১। আর বৃষ্টি থামলে ম্যাচ ফের শুরু হওয়ার পরেই রাহুলের দুর্দান্ত থ্রোতে লিটন দাস ৬০ করে রানআউট হয়ে যান। এর পরেই বাংলাদেশ চাপে পড়ে যায়। তবে শাকিব আল হাসানের দল কিন্তু শেষ পর্যন্ত নির্দিষ্ট ১৬ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান করে। ৫ রানে ভারত ম্যাচ জিতে যায়।

বন্ধ করুন