বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > ‘আমরা যথেষ্ট সাহসী ছিলাম না’, কোহলির মতো বড় প্লেয়ারের এই মন্তব্যে চটেছেন কপিল
বিরাট কোহলি এবং কপিল দেব।
বিরাট কোহলি এবং কপিল দেব।

‘আমরা যথেষ্ট সাহসী ছিলাম না’, কোহলির মতো বড় প্লেয়ারের এই মন্তব্যে চটেছেন কপিল

  • ভারতের হাতে এখনও তিনটি ম্য়াচ রয়েছে। আর এটা পরিষ্কার, ভারতকে তিনটি ম্যাচই জিততে হবে। কিন্তু রানরেটের যা পরিস্থিতি, তাতে ভারতকে তিনটি ম্যাচই বিশাল বড় ব্যবধান জিততে হবে। আর আফগানিস্তানের কাছে নিউজিল্যান্ডকে হারতে হবে।

রবিবার দুবাইতে সুপার টুয়েলভে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের কাছে ভারতের ৮ উইকেটের হতাশাজনক হারের পরে বিরাট কোহলি বলেছিলেন, ‘আমরা যথেষ্ট সাহসী ছিলাম না’। আর কোহলির এই মন্তব্যই না পসন্দ প্রাক্তন বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেবের। তিনি কোহলির মতো বড় মাপের প্লেয়ারের থেকে এমন মন্তব্য আশা করেননি বলেই পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন।

ম্যাচ হারের পর কোহলি বলেছিলেন, ‘যেটা ঘটল সেটা বেশ উদ্ভট। সত্যি কথা বলতে, আমরা ব্যাট বা বল হাতে যথেষ্ট সাহসী ছিলাম না।’ কোহলির এই মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি কপিল দেব। এবিপি নিউজে তিনি এই প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘তাঁর মতো একজন বড় মাপের প্লেয়ারের জন্য এটি খুবই দুর্বল বক্তব্য। যদি এটি দলের শারীরিক ভাষা হয় এবং যদি অধিনায়কের চিন্তাভাবনা এমন হয়, তবে দলের পক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো সত্যিই কঠিন। এই কথাগুলো শুনে আমার একটু আশ্চর্য লাগছে। ও কিন্তু এমন ধরনে দুর্বল মনের প্লেয়ার নয়।’

এরই সঙ্গে কপিল যোগ করেছেন, ‘ও একজন যোদ্ধা। আমার মনে হয় সেই মুহূর্তে ও কোনও ভাবে ঘেটে ছিল। বা কী বলতে চেয়েছে, সেটাই বুঝতে পারেনি। একজন অধিনায়কের পক্ষে 'আমরা যথেষ্ট সাহসী নই'- এই ধরনের মন্তব্য করাই উচিত নয়। অধিনায়ক নিজে এবং তাঁর দল দেশের জন্য খেলছে এবং এর আবেগ আলাদা। কিন্তু যদি এ ধরনের কথা বলা হয়, তা হলে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেওয়া হয় দুর্বলতার জায়গাটা।’

প্রথমে পাকিস্তানের কাছে ১০ উইকেটে হার। তার পরের নিউজিল্যান্ডের কাছে ৮ উইকেটে হার। পরপর দুই ম্যাচে হেরে রীতিমতো চাপে পড়ে গিয়েছে বিরাট কোহলি বাহিনী। তাদের সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা কি তবে এখানেই শেষ? চলছে নানা জল্পনা। তবে জটিল এক অঙ্কের হিসেবে ভারত এখনও সেমিফাইনালে যেতে পারে। তবে সেই অঙ্কের সমাধান করাটা পুরোটা ভারতের হাতে আর নেই। কারণ নিজেদের জয়ের পাশাপাশি ভারতকে এখন নিউজিল্যান্ডের পয়েন্ট নষ্টের দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে।

ভারতের হাতে এখনও তিনটি ম্যাচ রয়েছে। আর এটা পরিষ্কার, ভারতকে তিনটি ম্যাচই জিততে হবে। কিন্তু রানরেটের যা পরিস্থিতি, তাতে ভারতকে তিনটি ম্যাচই বিশাল বড় ব্যবধান জিততে হবে। আর আফগানিস্তানের কাছে নিউজিল্যান্ডকে হারতে হবে।

বন্ধ করুন