বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > NZ vs PAK: বাবর-রিজওয়ান-আফ্রিদি নন, সেমিফাইনালে পাকিস্তানের তুরুপের তাস হতে পারেন অন্য কেউ

NZ vs PAK: বাবর-রিজওয়ান-আফ্রিদি নন, সেমিফাইনালে পাকিস্তানের তুরুপের তাস হতে পারেন অন্য কেউ

উচ্ছ্বসিত শাদবরা। ছবি- এএফপি (AFP)

New Zealand vs Pakistan T20 World Cup Semifinal: শেষ চারে চমক দিকে পারেন যে কেউ। তবে ফর্ম ও ধারাবাহিকতার নিরিখে পাকিস্তান দলকে নির্ভরতা দিচ্ছেন তারকা অল-রাউন্ডার।

যে কোনও ফর্ম্যাটেই হোক, সাম্প্রতিক সময়ে পাকিস্তান দলের সাফল্য নির্ভর করে বাবর-রিজওয়ানের ওপেনিং জুটির উপরে। তবে চলতি টি-২০ বিশ্বকাপে ছবিটা বদলে গিয়েছে পুরোপুরি। বাবর ব্যাট হাতে চূড়ান্ত ব্যর্থ। রিজওয়ান রান পেলেও পরিচিত ছন্দে নেই মোটেও।

অন্যদিকে বোলাররা বরাবর নির্ভরতা দেন পাকিস্তানকে। এবারও তার অন্যথা হয়নি। শাহিন আফ্রিদিকে শুরুর দিকে রংচটা দেখিয়েছে। তবে টুর্নামেন্ট যত গড়িয়েছে, স্বমূর্তি ধারণ করেছেন শাহিন। হ্যারিস রউফ, মহম্মদ ওয়াসিমরা যোগ্য সঙ্গত করছেন তাঁকে।

তবে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে চলতি টি-২০ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পাকিস্তানের তুরুপের তাস হতে পারেন শাদব খান। বড় মঞ্চের প্লেয়ার শাদব দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন। প্রায় প্রতি ম্যাচে উইকেট তো নিচ্ছেনই, ব্যাট হাতেও দলের পারফর্ম্যান্সে নিজের অবদান রাখছেন। তাছাড়া সিডনির বাইশগজে স্লো বেলারদের সফল হওয়ার সম্ভাবনা বিস্তর। সেকারণেই নিউজিল্যান্ডকে চমকে দিতে পারেন পাক স্পিনার।

আরও পড়ুন:- T20 World Cup 2022: চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে অভিযান শুরু করা নিউজিল্যান্ড যে পথে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছয়

শাবদ এখনও পর্যন্ত চলতি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হয়ে সব থেকে বেশি ১০টি উইকেট নিয়েছেন। ভারতের বিরুদ্ধে একেবারে প্রথম ম্যাচে উইকেট পাননি তিনি। তবে জিম্বাবোয়ে ও নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে তিনি ৩টি করে উইকেট দখল করেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তুলে নেন ২টি করে উইকেট। ব্যাট হাতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঝোড়ো হাফ-সেঞ্চুরিও করেন শাদব।

আরও পড়ুন:- T20 World Cup 2022: ছিটকে যাওয়ার আতঙ্ক থেকে বরাতজোরে সেমিফাইনালে, দেখুন কোন পথে বিশ্বকাপের শেষ চারে পাকিস্তান

শাহিন আফ্রিদি ৫ ম্যাচে সাকুল্যে ৮টি উইকেট নিয়েছেন। ভারত ও জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে যে ২টি ম্যাচ পাকিস্তান হেরে যায়, সেই ২টি ম্যাচে কোনও উইকেট পাননি শাহিন। তবে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে ১টি, দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩টি ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ৪টি উইকেট দখল করেন তিনি।

রিজওয়ান সাকুল্যে ৫ ম্যাচে ১০৩ রান সংগ্রহ করলেও তাঁর স্ট্রাইক-রেট মোটে ১০০। অর্থাৎ, ১০৩ বল খেলে তিনি ১০৩ রান সংগ্রহ করেছেন। বাবর আজম ৫ ম্যাচে সাকুল্যে সংগ্রহ করেছেন ৩৯ রান।

বন্ধ করুন