বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > PAK vs AUS: অস্ট্রেলিয়ায় ফেরার বিমান ধরতে হতে পারে, ক্রিজে এসে আশঙ্কায় ভুগছিলেন ওয়েড
জয়ের পর উচ্ছ্বাস ওয়েডের। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
জয়ের পর উচ্ছ্বাস ওয়েডের। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

PAK vs AUS: অস্ট্রেলিয়ায় ফেরার বিমান ধরতে হতে পারে, ক্রিজে এসে আশঙ্কায় ভুগছিলেন ওয়েড

  • সেই ক্যাচ ফস্কানো মোটেও টার্নিং পয়েন্ট নয়। মত ওয়েডের।

ম্যাথু ওয়েডের ক্যাচ ফস্কেই ম্যাচ খুইয়েছে পাকিস্তান। এমনটাই মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। যদিও খোদ অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানের দাবি, হাসান আলি যখন ক্যাচ ফস্কেছেন, ততক্ষণে খেলার রাশ অজিদের হাতে চলে এসেছে। ফলে সেই ক্যাচ ফস্কানো মোটেও ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট নয়। সেইসঙ্গে তিনি অবশ্য জানান, একটা সময় ভেবেছিলেন যে অস্ট্রেলিয়া হেরে যেতে পারে।

বৃহস্পতিবার ম্যাচের পর ওয়েড জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে ভেবেছিলেন যে অস্ট্রেলিয়া হেরে যেতে পারে। দোটানায় ছিলেন, আদৌও অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ জিতবে কিনা। ওয়েড বলেন, ‘অন্য প্রান্তে স্টইনিসের সঙ্গে কথা হচ্ছিল। বোলাররা কী করতে চাইছে, তা নিয়ে আলোচনা হয়। আমি যতটা আশা করেছিলাম, তার থেকেও সম্ভবত বেশি গতিতে বল করেছে (শাহিন আফ্রিদি)। আমি যখন ক্রিজে গিয়েছিলাম, তখন মার্কাস অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসী ছিল যে আমরা ম্যাচ জিতে যাব। যদিও আমি কিছুটা ধন্দে ছিলাম।’

তারইমধ্যে ক্যাচ ফস্কানোর বিষয়ে ওয়েড জানান, সেটা মোটেও ম্যাচের টার্নি পয়েন্ট ছিল না। বলেন, ‘আমার মনে হয়, ওই সময় আমাদের ১২ রান বা ওরকম কিছু লাগত। ১৪ সম্ভবত। এমনিতেই সেই সময় থেকে ম্যাচ আমদের দিকে ঘুরতে শুরু করেছিল।’ উল্লেখ্য, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বৃহস্পতিবার হাসানের দিনটা বিভীষিকার থেকেও ভয়ঙ্কর কেটেছে। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে চার ওভারে ৪৪ রান দেন হাসান। সেখানেই দুর্দশায় ইতি পড়েনি। ১৮.৩ ওভারে শাহিন আফ্রিদির বলে ডিপ মিড-উইকেটে ওয়েডের সাধারণ ক্যাচ ফস্কে দেন। যে ওয়েড পরের তিনটি বলে তিনটি ছক্কা মেরে অস্ট্রেলিয়াকে বিশ্বকাপের ফাইনালে তুলে দেন। সেইসঙ্গে এবারের টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যায় পাকিস্তান।

যদিও ওয়েড বলেন, ‘আমার মতে, যে সময় ক্যাচ পড়েছেন, ততক্ষণে আমরা রান তাড়ার ক্ষেত্রে যে ভালো জায়গায় ছিলাম, সে বিষয়ে নিশ্চিত আমি।’ সঙ্গে তিনি বলেন, ‘যদি তিন-চার ওভার আগে ওটা হত (ক্যাচ ফস্কানোর ঘটনা), তাহলে ম্যাচের ফলাফল কিছুটা প্রভাবিত হতে পারত।’

ওয়েডের ব্যাখ্যা অবশ্য মানতে নারাজ পাকিস্তানিরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ট্রোলের মুখে পড়েছেন হাসান। আক্রমণ করা হয় তাঁর ভারতীয় স্ত্রী'কেও। কী কারণে ক্যাচ ফস্কেছেন তিনি, সেই ব্যাখ্যাও দেওয়া হতে থাকে। দিনকয়েক আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকটি ছবি ভাইরাল হয়েছিল। তাতে দেখা গিয়েছিল, হাসানকে কেক খাওয়াতে গিয়েছিলেন সতীর্থ। সেইসময় আচমকা সতীর্থকে কেক মাখিয়ে দিতে আসেন শাহিন। ফলে সেই যাত্রায় কেক খাওয়া হয়নি হাসানের। কিন্তু মুখ খোলা ছিল। এক নেটিজেন সেই ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘এটার প্রতিশোধ নিচ্ছেন হাসান আলি।’ অপর এক নেটিজেন শাহিনের মুচকি হাসির ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘তিন ছক্কা খেয়েও তুমি যখন জানো যে ম্যাচের ভিলেন হতে চলেছেন হাসান আলি।’

বন্ধ করুন