বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > Pak Vs NZ Head to Head: ভাগ্যক্রমে সেমির টিকিট পাওয়া পাকিস্তানই কিন্তু এগিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে, বলছে পরিসংখ্যান

Pak Vs NZ Head to Head: ভাগ্যক্রমে সেমির টিকিট পাওয়া পাকিস্তানই কিন্তু এগিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে, বলছে পরিসংখ্যান

কেন উইলিয়ামসন এবং বাবর আজম

পাকিস্তানের টপ অর্ডার ব্যাটাররা ফর্মে নেই। এবং কিউয়ি বোলাররা রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। এই আবহে প্রথম সেমিফাইনালে জিতে কে ফাইনালে যাবে?

ভারত, জিম্বাবোয়ের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার জোগাড় হয়েছিল পাকিস্তান। তবে গ্রুপ পর্যায়ের খেলার শেষ দিনে অবিশ্বাস্য ভাবে সেমি ফাইনালের টিকিট হাতে পান বাবর-রিজওয়ানরা। অপরদিকে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি হোচট ছাড়া অনায়াসে গ্রুপ ১-এর শীর্ষে থেকে সেমির টিকিট পাকা করেছেন কিউয়িরা। এই আবহে সেমিফাইনালে খাতায় কলমে এগিয়ে থাকবে নিউজিল্যান্ডই। তবে বিপক্ষ দল যখন পাকিস্তান, তখন কিছুই বলা যায় না। নিজেদের দিনে পাকিস্তান যেকোনও দলকেই হারাতে পারে। আবার যেকোনও দলের কাছেই হারতে পারে তারা। এই বিশ্বকাপই তার সাক্ষী থেকেছে।

এদিকে পরিসংখ্যান বলছে, মুখোমুখি লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ডের থেকে অনেকটাই এগিয়ে পাকিস্তান। আজ পর্যন্ত পাকিস্তান এবং নিউজিল্যান্ড মোট ২৮টি আন্তর্জাতিক টি২০ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে থেকে মাত্র ১১টি জিতেছেন কিউয়িরা। পাকস্তানের ঝুলিতে গিয়েছে ১৭টি জয়। নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান দ্বৈরথে সর্বাধিক রান সংগ্রহক মহম্মদ হাফিজ (৫৬৩ রান)। তবে তিনি দলে নেই। তালিকায় দ্বিতীয় স্থআনে রয়েছেন কেন উইলিয়ামসন। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তাঁর সংগ্রহে রয়েছএ ৫৩৮ রান। এদিকে দুই দেশের দ্বৈরথে সব থেকে সফল বোলার টিম সাউদি। তিনি পেয়েছেন ২৮টি উইকেট।

এদিকে পরিসংখ্যানের দিক থেকে এগিয়ে থাকলেও পাকিস্তানের টপ অর্ডার ব্যাটাররা ফর্মে নেই। এবং কিউয়ি বোলাররা রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। বিশ্বের অন্যতম সেরা দুই ব্যাটার মহম্মদ রিজওয়ান এবং বাবর আজম এই বিশ্বকাপে জ্বলে উঠতে পারেননি। তবে পাকিস্তানের জন্য আশার খবর, শাহিন আফ্রিদির ফর্মে ফেরা। এদিকে পাকিস্তানের মিডল অর্জারে শান মাসুদ, ইফতিকাররা বেশ ভালো খেলছেন। অপরদিকে নিউজিল্যান্ড এখনও পর্যন্ত মোটের ওপর ভালো ক্রিকেট খেলেই সেমির টিকিট কেটেছে। পাকিস্তানের পেস আক্রমণের সামনে অবশ্য গ্লেন ফিলিপ, ফিন অ্যালেনদের পরীক্ষায় পড়তে হবে। কেন উইলিয়ামসন এবং ডেভন কনওয়ের সাবধানী ইনিংসই নিউজিল্যান্ডকে স্থিতিশীলতা দিতে পারে।

 

বন্ধ করুন