বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > ভিডিয়ো: চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় জেসন রয়কে, কান্নায় ভেঙে পড়েন ব্রিটিশ ক্রিকেটার
জেসন রয়।
জেসন রয়।

ভিডিয়ো: চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় জেসন রয়কে, কান্নায় ভেঙে পড়েন ব্রিটিশ ক্রিকেটার

  • জেসন রয়ের বাঁ পায়ের কাফ মাসেলে চোট লাগে। চোটের কারণে তাঁর অবস্থা এতটাই খারাপ হয়েছে যে, ম্যাচ শেষে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের সঙ্গে হাত মেলাতে যখন তিনি মাঠে নামেন, তখন তাঁকে ক্রাচে ভর দিয়ে হাঁটতে দেখা যায়।

শনিবার চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড। সেই ম্যাচ ব্রিটিশ ওপেনার জেসন রয় খেলার মাঝে চোটের কারণে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন। সেই সময়ে মাঠের মধ্যেই কান্নায় ভেঙে পড়েন ব্রিটিশ ওপেনার। আর এই ঘটনা নিঃসন্দেহে ইংল্যান্ডের জন্য বড় ধাক্কা ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ম্যাচটি ১০ রানে হেরেও যায় ইংল্যান্ড।

ঘটনাটি ঘটেছিল দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ড যখন ব্যাট করছিল। পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় ডেলিভারিতে একটি সিঙ্গেল নিয়েছিলেন জোস বাটলার এবং জেসন রয়। তখন দেখা যায় রয় এক পায়ে কোনও মতে খোঁড়াতে খোঁড়াতে রানটি পূরণ করেন। তার পরেই যন্ত্রণায় বসে বসেন। কিছুক্ষণ পরেই দেখা যায়, কান্নায় ভেঙে পড়েছেন তিনি। তবে সেই কান্না যন্ত্রণার জন্য ছিল না। ছিল খেলতে না পারার জন্য। ১৫ বলে ২০ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান জেসন রয়। চোট এতটাই গুরুতর ছিল যে, তিনি খেলতে পারেননি। সতীর্থ টম কুরান এবং ইংল্যান্ডের ফিজিও-র সাহায্যে মাঠ ছাড়েন ৩১ বছরের অলরাউন্ডার।

জেসন রয়ের বাঁ পায়ের কাফ মাসেলে চোট লাগে। চোটের কারণে তাঁর অবস্থা এতটাই খারাপ হয়েছে যে, ম্যাচ শেষে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের সঙ্গে হাত মেলাতে যখন তিনি মাঠে নামেন, তখন তাঁকে ক্রাচে ভর দিয়ে হাঁটতে দেখা যায়।

শনিবার চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড। সেই ম্যাচ ব্রিটিশ ওপেনার জেসন রয় খেলার মাঝে চোটের কারণে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন। সেই সময়ে মাঠের মধ্যেই কান্নায় ভেঙে পড়েন ব্রিটিশ ওপেনার। আর এই ঘটনা নিঃসন্দেহে ইংল্যান্ডের জন্য বড় ধাক্কা ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ম্যাচটি ১০ রানে হেরেও যায় ইংল্যান্ড।

ঘটনাটি ঘটেছিল দ্বিতীয় ইনিংসে ইংল্যান্ড যখন ব্যাট করছিল। পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় ডেলিভারিতে একটি সিঙ্গেল নিয়েছিলেন জোস বাটলার এবং জেসন রয়। তখন দেখা যায় রয় এক পায়ে কোনও মতে খোঁড়াতে খোঁড়াতে রানটি পূরণ করেন। তার পরেই যন্ত্রণায় বসে বসেন। কিছুক্ষণ পরেই দেখা যায়, কান্নায় ভেঙে পড়েছেন তিনি। তবে সেই কান্না যন্ত্রণার জন্য ছিল না। ছিল খেলতে না পারার জন্য। ১৫ বলে ২০ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান জেসন রয়। চোট এতটাই গুরুতর ছিল যে, তিনি খেলতে পারেননি। সতীর্থ টম কুরান এবং ইংল্যান্ডের ফিজিও-র সাহায্যে মাঠ ছাড়েন ৩১ বছরের অলরাউন্ডার।

জেসন রয়ের বাঁ পায়ের কাফ মাসেলে চোট লাগে। চোটের কারণে তাঁর অবস্থা এতটাই খারাপ হয়েছে যে, ম্যাচ শেষে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের সঙ্গে হাত মেলাতে যখন তিনি মাঠে নামেন, তখন তাঁকে ক্রাচে ভর দিয়ে হাঁটতে দেখা যায়।

ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান বলেন, ‘এটি সত্যিই চিন্তার কারণ। ওঁকে স্ক্যান করতে পাঠানো হয়েছিল। আমরা আগামীকাল (রবিবার) পর্যন্ত অপেক্ষা করব। আমরা সবাই আশাবাদী যে, ও নক আউটে ফিট হয়ে উঠবে। এবং কোনও না কোনও ভাবে নক আউটে ওকে আমরা পাবে। তবে এটাও ঘটনা, আমাদের মাথায় রাখতে হবে, জেসন এবং দলের জন্য যেটা সেরা, সেই সিদ্ধান্তই নেওয়া উচিত।’ দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ইংল্যান্ড ১০ রানে হারলেও, পয়েন্ট টেবলের শীর্ষে থেকেই সেমিফাইনালে গেল ইংল্যান্ড।

বন্ধ করুন