বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা খুবই কম, তারইমধ্যে মাঠে উদ্দাম নাচ কোহলির!
নাচ বিরাটের। (ছবি সৌজন্য ভিডিয়ো)
নাচ বিরাটের। (ছবি সৌজন্য ভিডিয়ো)

সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা খুবই কম, তারইমধ্যে মাঠে উদ্দাম নাচ কোহলির!

  • 'মাই নেম ইজ লক্ষ্মণ' গানে নাচতে দেখা যায় তাঁকে।

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তিন নম্বর ম্যাচে শেষপর্যন্ত বিরাট কোহলির মুখে হাসি ফুটেছে। তা ধরা পড়ল তাঁর শারীরিক অঙ্গভঙ্গিতেও। আফগানিস্তানের ব্যাটিংয়ের সময় মাঠের মধ্যেই 'মাই নেম ইজ লক্ষ্মণ' গানে নাচতে দেখা যায় তাঁকে। যে ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

গত বুধবার আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করে দু'উইকেট ২১০ রান তুলেছিল ভারত। রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় আফগানিস্তান। একটা সময় স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল যে আফগানদের হাত থেকে ম্যাচ বেরিয়ে গিয়েছে। শেষপর্যন্ত ৬৬ রানে জিতে যায় ভারত। তার ফলে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম পয়েন্ট আসে ভারতের ঝুলিতে। সেইসঙ্গে সেমিফাইনালে যাওয়ার কিছুটা আশা জিইয়ে রাখেন বিরাটরা।

তারইমধ্যে একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে, মাঠে নাচছেন বিরাট। সঙ্গে বাজছে 'মাই নেম ইজ লক্ষ্মণ' গান। সেই ভিডিয়োর অবশ্য সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা। তবে বিরাটকে মাঠে এরকম মেজাজে প্রায়শই দেখা যায়। কিন্তু এবার বিশ্বকাপে পাকিস্তান এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের জেরে বিরাটের সেই মেজাজ ধরা পড়েনি।

যদিও বিরাটের মেজাজ সেরকমই হাসিখুশি থাকবে কিনা, তা অবশ্য ভারতের হাতে নেই। আপাতত যা পরিস্থিতি, ভারত বাকি দুটি ম্যাচ জিতলেও বাকি দলগুলির দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। ভাগ্য সহায় থাকলে তবেই সেমিফাইনালে যেতে পারবেন ভারতীয়রা। আপাতত 'সুপার ১২'-এর 'গ্রুপ ২'-তে চতুর্থ স্থানে আছে ভারত। নেট রানরেট +০.০৭৩। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থানে আছে যথাক্রমে আফগানিস্তান এবং নিউজিল্যান্ড। আফগানদের ঝুলিতে চার ম্যাচে চার পয়েন্ট আছে। নেট রানরেট +১.৪৮১। সেখানে তিন ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে কিউয়িদের নেট রানরেট +০.৮১৬। ফলে সহজ অঙ্কে নিউজিল্যান্ড যদি নিজেদের বাকি দুটি ম্যাচ (নামিবিয়া এবং আফগানিস্তান) জিতে যায়, তাহলে আট পয়েন্টে পৌঁছে যাবে। তাহলে ভারতের সামনে কোনও সুযোগ থাকবে না। কারণ ভারতের আর দুটি ম্যাচ বাকি আছে। দুটি ম্যাচ জিতলেও ছয় পয়েন্টের বেশি হবে না।

সেই পরিস্থিতিতে ভারতকে আশা করতে হবে যে আফগানিস্তান বা নামিবিয়ার কাছে যেন হেরে যায় নিউজিল্যান্ড। সেক্ষেত্রে কিউয়িদেরও পয়েন্ট হবে ছয়। ভারতও ছয় পয়েন্টে (নামিবিয়া এবং স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে জিতবে ধরে নিয়ে) থাকবে। আবার আফগানিস্তান যদি নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে জিতে যায়, তাহলে রশিদ খানদেরও পাঁচ ম্যাচে ছয় পয়েন্ট হবে। যে আফগানিস্তান-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ হবে আগামী ৭ নভেম্বর। সেক্ষেত্রে নেট রানরেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হবে।

বন্ধ করুন