বাংলা নিউজ > ময়দান > ICC Women's Cricket FTP: মহিলা ক্রিকেটে প্রথমবার FTP প্রকাশ ‘পেশাদার’ ICC-র, ৩ বছরে হবে মাত্র ৭ টেস্ট
স্মৃতি মন্ধানা। (ফাইল ছবি)

ICC Women's Cricket FTP: মহিলা ক্রিকেটে প্রথমবার FTP প্রকাশ ‘পেশাদার’ ICC-র, ৩ বছরে হবে মাত্র ৭ টেস্ট

  • ICC Women's Cricket FTP: ২০২৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত এফটিপি প্রকাশ করেছে আইসিসি। সেই পর্বের এফটিপি শেষে ভারতের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপের আসর বলবে। ওই পর্বে মাত্র সাতটি টেস্ট হবে। মাত্র দুটিতে খেলবে ভারত।

মহিলা ক্রিকেটেও পেশাদার হওয়ার চেষ্টায় নামল আইসিসি। এই প্রথমবার মহিলাদের ক্রিকেটে ফিউচার ট্যুর প্রোগাম (এফটিপি) প্রকাশ করল। ২০২৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত এফটিপি প্রকাশ করেছে আইসিসি। সেই পর্বের এফটিপি শেষে ভারতের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপের আসর বলবে।

আইসিসির তরফে জানানো হয়েছে, এবারে এফটিপিতে (২০২২ সালের মে থেকে ২০২৫ সালের এপ্রিল পর্যন্ত) মোট ৩০০ টি ম্যাচ (সাতটি টেস্ট, ১৩৫ একদিনের ম্যাচ এবং ১৫৯ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ) খেলা হবে। ২০২২-২৫ আইসিসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের আওতায় দলগুলি তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ খেলবে। অধিকাংশ একদিনের সিরিজের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজ হবে। কয়েকটি দল পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজও খেলবে।

আরও পড়ুন: CWG Women's Cricket Final: ‘সোনা জয়ের খুব কাছাকাছি ছিলাম’, কষ্ট লুকিয়ে দলের লড়াইয়ে গর্বিত হরমনপ্রীত

তবে ওই তিন বছরে মাত্র সাতটি টেস্ট (ইতিমধ্যে এবারের এফটিপির দুটি টেস্ট হয়ে গিয়েছে) হবে। আগামী বছরের মে পর্যন্ত কোনও টেস্ট ম্যাচ হবে না। ২০২৩ সালের জুনে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া এক ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে। সেই বছরের ডিসেম্বেরে দুটি টেস্ট খেলবে ভারত। একটি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। অপর টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে নামবে টিম ইন্ডিয়া। দুটি টেস্টই ঘরের মাঠে হবে। এছাড়া ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে এক ম্যাচের টেস্টে সিরিজে মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। ওই বছরের ডিসেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার একটি টেস্ট খেলবে ইংল্যান্ড। ২০২৫ সালের জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ায় একটি টেস্ট আছে ব্রিটিশদের। অর্থাৎ খাতায়-কলমে একটি এফটিপি পর্বে দুটি অ্যাসেজ হবে।

আরও পড়ুন: WC 2017 and CWG 2022: দুই স্বপ্নভঙ্গের দিন, তিন অবিশ্বাস্য মিল - অধরা সেরার তাজ

ভারতের সূচি (India Women's Cricket Team Schedule)

  • ২০২২ সালের অগস্টে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ এবং তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে।
  • ২০২২ সালের ডিসেম্বর ঘরের মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলবেন হরমনপ্রীত কৌররা।
  • ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকা চার ম্যাচের ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলবে ভারত। বাকি দুই দল হল - দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
  • ২০২৩ সালের জুনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ এবং তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবেন স্মৃতি মন্ধানারা। বাংলাদেশে যাবেন তাঁরা।
  • ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর এবং অক্টোবরে ঘরের মাছে দক্ষিণ আফ্রিকা এবং নিউজিল্যান্ড পরপর সিরিজে খেলবে ভারত। দুই দলের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ এবং তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে টিম ইন্ডিয়া।
  • ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে ঘরের মাঠে বাম্পার সিরিজ ভারতের। প্রথমে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি টেস্ট এবং তিনটি টি-টোয়েন্টি আছে। তারপর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে একটি টেস্ট, তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ এবং তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে ভারত।
  • তারপর এক বছর কার্যত খেলবে না ভারত। আবার ২০২৪ সালের ডিসেম্বর এবং ২০২৫ সালের জানুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলবে। অস্ট্রেলিয়ায় তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ আছে। তারপর ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের একদিনের সিরিজ এবং তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলবে।

গুরুত্বপূর্ণ আইসিসি প্রতিযোগিতা

  • দক্ষিণ আফ্রিকায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ (২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি)।
  • বাংলাদেশে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ (২০২৪ সালের সেপ্টেম্বর/অক্টোবর)।
  • ভারতের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ (২০২৫ সালের সেপ্টেম্বর/অক্টোবর)।

বন্ধ করুন