বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘সংঘি মিতালি কোথায়?’ পাকিস্তান অধিনায়কের মেয়ের ছবি দেখে কটাক্ষ, পালটা এল তোপ
বিসমাহ মারুফের মেয়ের সঙ্গে খুনসুটিতে মেতেছিলেন ভারতীয় তারকারা। (ছবি সৌজন্যে এএনআই এবং টুইটার @ICC)

‘সংঘি মিতালি কোথায়?’ পাকিস্তান অধিনায়কের মেয়ের ছবি দেখে কটাক্ষ, পালটা এল তোপ

  • নেটিজেনদের একাংশ মিতালিকে তোপ দাগেন। পালটা মিতালির সমর্থন করলেন অনেরকেই।

বিসমাহ মারুফের মেয়ের সঙ্গে খুনসুটিতে মেতেছিলেন ভারতীয় তারকারা। যে ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। তবে যে ছবি, ভিডিয়ো সামনে এসেছে, তাতে খুদের সঙ্গে ভারতীয় দলের অধিনায়ক মিতালি রাজকে দেখা যায়নি। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে ট্রোল করলেন নেটিজেনদের একাংশ। যদিও পালটা তোপের মুখে পড়েছেন তাঁরা।

রবিবার মহিলা বিশ্বকাপে ভারত ও পাকিস্তান ম্যাচের 'স্টার' হয়ে ওঠেন বিসমাহের ছয় মাসের মেয়ে ফতিমা। ম্যাচের পর তার সঙ্গে খুনসুটি করতে দেখা যায় একতা বিস্ত, হরমনপ্রীত কৌর, শেফালি বর্মা, স্মৃতি মান্ধানাদের। বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থার (আইসিসি) তরফে ফতিমার সঙ্গে ভারতীয়দের একটি ছবি টুইটও করা হয়। তাতে মিতালি ছিলেন না। তা নিয়ে নেটিজেনদের একাংশ মিতালিকে তোপ দাগেন। তেমনই একজন বলেন, ‘সংঘি মিতালিকে কোথাও দেখা যাচ্ছে না।’

যদিও সেই আক্রমণের পালটা তোপ দেগেছে নেটিজেনদের অপর অংশই। তেমনই একজন বলেন, 'কাউকে পছন্দ না করলে কোনও আপত্তি নেই। কারও রাজনৈতিক মতাদর্শের সঙ্গে একতম না হলেও কিছু বলার নেই। কিন্তু পুরো বিষয়টি না জেনে উলটোপালটা মন্তব্য করে দেওয়া মোটেও ঠিক নয়।' একটি ছবি টুইট করে ওই নেটিজেন দেখান যে পাকিস্তানের চারজন খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক।

উল্লেখ্য, ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলতে মেয়ে ফতিমাকে নিয়ে আসেন মারুফ। সম্প্রতি ক্রিকবাজের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, পাকিস্তানের ড্রেসিংরুমের 'স্টার' হয়ে উঠেছেন মারুফের ছয় মাসের কন্যাসন্তান। সবাই খুদেকে নিয়ে মেতে থাকেন। মারুফ বলেন, 'অনুশীলন হয়ে গেলেই সকলেই ফতিমার সঙ্গে দেখা করতে চায়। কয়েক ঘণ্টার জন্য না থাকলেই সবাই ফতিমার অভাব অনুভব করতে থাকেন। এমনকী রাতের দিকেও কেউ যদি চাপের মধ্যে থাকে, তাহলে আমার ঘরে চলে আসে এবং ওর সঙ্গে খেলে।' পাকিস্তানের অপর তারকা নিদা দার জানিয়েছেন, ফতিমা থাকলে পাকিস্তান দলের মধ্যে বাড়তি উদ্দীপনা চলে আসে। ফতিমার কাছে থাকলেই সকলেরই মন ভালো থাকে। একটা খুদে থাকায় দলের মধ্যে যেন বাড়তি উদ্দীপনা চলে আসে। সবাই স্বস্তি বোধ করে। আপনি যদি কোনও একটি বিষয়ের উপর বেশি মনোযোগ দিয়ে থাকেন, তাহলে তা আপনার উপর বাড়তি চাপ তৈরি করে। আশপাশে বাচ্চা থাকলে সেই অযাচিত দুশ্চিন্তা দূর হয়ে যায়। তা পুরো বোঝা যায়।

বন্ধ করুন