বাড়ি > ময়দান > সুপ্রিম কোর্ট না চাইলে BCCI সভাপতির পদ থেকে চুপচাপ সরে যাবেন, জানিয়ে দিলেন সৌরভ
বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও সচিব জয় শাহ। ছবি- এএনআই।
বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ও সচিব জয় শাহ। ছবি- এএনআই।

সুপ্রিম কোর্ট না চাইলে BCCI সভাপতির পদ থেকে চুপচাপ সরে যাবেন, জানিয়ে দিলেন সৌরভ

  • সচিব জয় শাহর ভাগ্যও নির্ভর করছে শীর্ষ আদালতের রায়ের উপর।

সুপ্রিম কোর্ট না চাইলে চুপচাপ সরে যাবেন বিসিসিআই থেকে। নতুন করে কোনও আবেদনের পথে যাবেন না তিনি। স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সিএবি ও বিসিসিআই মিলিয়ে প্রশাসক হিসেবে ইতিমধ্যেই ৬ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন সৌরভ। বোর্ডের নতুন সংবিধান অনুযায়ী ২৬ জুলাইয়ের পর থেকে কুলিং-অফে থাকার কথা মহারাজের। তবে অ্যাপেক্স কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখনও বিসিসিআই সভাপতির পদে বহাল রয়েছেন তিনি।

আসলে বিসিসিআই চাইছে শুধুমাত্র ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডেই ৬ বছরের মেয়াদ পূর্ণ করুন সভাপতি সৌরভ ও সচিব জয় শাহ। সেই মর্মে তারা সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানিয়েছে। প্রধান বিচারপতি অরবিন্দ বোবদে ও বিচারপতি নাগেশ্বর রাওকে নিয়ে গড়া দুই সদস্যের বেঞ্চে মামলাটির সুনানি ছিল গত ২২ জুলাই। তবে শীর্ষ আদালত তা পিছেয়ে দেয় ১৭ অগস্ট পর্যন্ত। যদিও ১৭ অগস্ট মামলাটি সুনানির জন্য লিপিবদ্ধই করা হয়নি।

অগত্যা, আদালতের সিদ্ধান্ত জানার জন্য আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে। এই সিদ্ধান্তের উপরেই ঝুলে রয়েছে সৌরভ ও জয় শাহর ভাগ্য। সৌরভ অবশ্য বিষয়টি নিয়ে বিশেষ চিন্তিত নন। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, শীর্ষ আদালত চাইলে থাকবেন। যদি সুপ্রিম কোর্ট বলে সরে যেতে হবে, তাহলে তিনি ও জয় শাহ নিঃশব্দে সরে যাবেন।

আউটলুককে সৌরভ বলেন, ‘যদি আদালত আমাদের সরে যেতে বলে, আমি আর জয় শাহ বিষয়টা সেখানেই শেষ করে দেব। আমরা ঠিক হই বা ভুল, ভালো হই বা খারাপ, সবাই দেশের সর্বোচ্চ আদালাতে আবেদন করতে পারেন। যদি ওঁরা (বিচারপতি) অনুমতি দেন, তবে তুমি থাকবে। যদি অনুমতি না দেন, তাহলে তোমাকে সরে যেতে হবে। বিষয়টা একেবারেই পরিষ্কার।’

বন্ধ করুন