বাংলা নিউজ > ময়দান > দেরি করে আসায় সৌরভকে টিম বাসে উঠতে দেননি শাস্ত্রী, কোহলিদের হেড কোচ মুখ খুললেন সেই প্রসঙ্গে
সৌরভ ও শাস্ত্রী। ছবি- টুইটার/বিসিসিআই।
সৌরভ ও শাস্ত্রী। ছবি- টুইটার/বিসিসিআই।

দেরি করে আসায় সৌরভকে টিম বাসে উঠতে দেননি শাস্ত্রী, কোহলিদের হেড কোচ মুখ খুললেন সেই প্রসঙ্গে

  • BCCI সভাপতির সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়েও অকপট টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচ।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে রবি শাস্ত্রীর ব্যক্তিগত সম্পর্কের তিক্ততা নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটমহলে লুকোছাপার কিছু নেই। একদা দু'জনের সম্পর্ক এতটাই তলানিতে পৌঁছেছিল যে, বিষয়টা প্রকাশ্যে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ির পর্যায়ে গিয়ে দাঁড়ায়। যদিও টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচ বিষয়টাকে বেশিরভাগই সংবাদমাধ্যমের 'মশলা মাখানো মুচমুচে ভেলপুরি' হিসেবেই বর্ণনা করেন। তিনি এও জানান যে, এমন 'গল্প' শুনতে তাঁরও ভালো লাগে।

আর মাস দু'য়েক পরেই টিম ইন্ডিয়ার হেড কোচের পদে মেয়াদ শেষ হচ্ছে রবি শাস্ত্রীর। স্বাভাবিকভাবেই সামনের টি-২০ বিশ্বকাপে কোচ হিসেবে দলকে সাফল্য এনে দিতে তত্পর রবি। আপাতত ইংল্যান্ড সফরের টেস্ট সিরিজেই চোখ রয়েছে তাঁর।

টেস্ট সিরিজের ফাঁকেই Times Network-এর সাক্ষাত্কারে শাস্ত্রী সৌরভকে নিয়ে পুরনো এক বিতর্কিত ঘটনার প্রসঙ্গে মুখ খোলেন। ২০০৭-এ ভারতীয় দলের ম্যানেজার থাকার সময় সৌরভ দেরি করে আসায় তাঁকে টিম বাসে উঠতে দেননি শাস্ত্রী। সাক্ষাত্কারের মাঝে সেই প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে শাস্ত্রী বলেন, ‘কেউ যদি দেরিতে আসে, তাহলে বাস ছেড়ে যাবে। কে দেরিতে এসেছে, সেটা গুরুত্বপূর্ণ নয়। দুর্ভাগ্যের বিষয়, সেদিন এমনটা সৌরভের সঙ্গে হয়েছিল।’

সৌরভ বিসিসিআই সভাপতি হওয়ার পর সেই ঘটনার রেশ ধরে রেখেছিলেন কিনা এপ্রসঙ্গে শাস্ত্রী বলেন, ‘একেবারেই না। ক’দিন আগেই ও যখন এখানে (ইংল্যান্ডে) ছিল, ওর সঙ্গে কথা হল। আমি ওর অনেক খেলা দেখেছি। এমনকি আমরা টাটা স্টিলে একই দলে খেলেওছি। আমি ক্যাপ্টেন হিসেবে টাটা স্টিলে খেলতাম। ও আমার নেতৃত্বে মাঠে নেমেছে। আমরা অনেকটা রাস্তা একসঙ্গে হেঁটেছি। মিডিয়া এধরণের গল্প পছন্দ করে। এরকম ভেলপুরি ও চাট ওদের পছন্দ। চমত্কার মশলা তৈরি করে। আমি এধরণের খবর খুব উপভোগ করি।'

বন্ধ করুন