বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘মিডিয়ায় কী বলছে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন নই,’ শনাকার বিতর্কিত উত্তর নিয়ে শাকিবের জবাব
বাংলাদেশের অধিনায়ক শাকিব আল হাসান (ছবি-এএনআই)

‘মিডিয়ায় কী বলছে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন নই,’ শনাকার বিতর্কিত উত্তর নিয়ে শাকিবের জবাব

  • টসের সময়ে শাকিবকে এই বিতর্কি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা প্রথমে ফিল্ডিং করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু সেটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে আমরা ভালো ব্যাট করতে পারিনি, কিন্তু আজকের দিনটি ভিন্ন। মিডিয়ায় যা বলা হচ্ছে তা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন নই।’

বিতর্ক নয়, বাংলাদেশ অধিনায়ক শাকিব আল হাসানের মতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভালো ক্রিকেট খেলাই হল আসল লক্ষ্য। বৃহস্পতিবার শাকিব বলেছেন যে তাঁর দল ২০২২ এশিয়া কাপ-এ শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলার আগে সাম্প্রতিক বিতর্ক নিয়ে উদ্বিগ্ন নয়। বরঁ তার পরিবর্তে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মানসম্পন্ন ক্রিকেট খেলার দিকেই মনোনিবেশ করছে তার দল। উভয় দলই মরণ বাঁচন লড়াই-এ একে অপরের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছে। কারণ দুই দলই আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে পরাজিত হেছে। গ্রুপ ‘বি’ থেকে পরবর্তী পর্যায়ে যাওয়ার প্রথম দল হয়েছে আফগানিস্তান, এখন দেখার এই গ্রুপ থেকে দ্বিতীয় দল হিসাবে কারা ওঠে।

তবে মাঠে খেলা শুরু হওয়ার আগে খেলাটি দুই শিবিরের মধ্যে একটি মৌখিক লড়াই-এ পরিণত হয়েছিল। এই যুদ্ধ শুরু হয়েছিল শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দাসুন শনাকার একটি বক্তব্যকে ঘিরে। বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন দাসুন শনাকা। তিনি বলেছিলেন আফগানিস্তানের তুলনায় বাংলাদেশ ‘সহজ প্রতিপক্ষ’।

আরও পড়ুন…. Asia Cup: টাইগার-সিংহের চরম লড়াই, লঙ্কা দলে বিশ্বমানের বোলার নেই বলে পাল্টা তোপ বাংলাদেশের

দাসুন শনাকা বলেছিলেন, ‘আফগানিস্তানের বোলিং আক্রমণ বিশ্বমানের। বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান বেশ ভাল বোলার। শাকিব আল হাসান বিশ্বমানের ক্রিকেটার। ওরা দু’জন ছাড়া বাংলাদেশ দলে আর কোনও বিশ্বমানের বোলার নেই। আমাদের গ্রুপে আফগানিস্তান তুলনায় কঠিন প্রতিপক্ষ। বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসাবে সহজ।’

এরপরে মাহমুদ বলেন, ‘শনাকা কেন এমন বলেছে জানি না। শুনলাম ও বলেছে, শাকিব আর মুস্তাফিজুর ছাড়া আমাদের দলে কোনও বিশ্বমানের বোলার নেই। আমি তো শ্রীলঙ্কা দলে কোনও বিশ্বমানের বোলারই দেখতে পাচ্ছি না। আমাদের তাও অন্তত দু’জন আছে। ওদের দলে শাকিব, মুস্তাফিজুরের মাপের কোনও বোলারই নেই।’

মেহেদি হাসান বলেছিলেন, ‘কোনও দল ভাল বা খারাপ, এমন কিছু বলতে চাইছি না। মাঠেই বোঝা যাবে কারা ভালো, কারা খারাপ। ভালো দলও তাদের খারাপ দিনে হেরে যেতে পারে। আবার দুর্বল দল ভালো খেলে জিততে পারে। মাঠে খেলা হবে। যারা ভাল খেলবে, তারাই জিতবে। আমরা কতটা ভালো দল, সেটা মাঠে নেমে প্রমাণ করতে চাই। আগে থেকে কিছু ধরে নেওয়ার থেকে মাঠে ভালো খেলাটাই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’

আরও পড়ুন…. হংকং-এর বিরুদ্ধে কোহলির অর্ধশতরানকে গুরুত্বই দিচ্ছেন না গম্ভীর!

তবে এই বাক যুদ্ধকে আর এগিয়ে নিয়ে যেতে চাননি শাকিব আল হাসান। তিনি বলেছিলেন যে তিনি চান তার দল শেষ ১০ ওভার ব্যবহার করার জন্য উইকেট হাতে রাখুক, কারণ সাব্বির রহমান এবং মেহেদি হাসান মিরাজ ওপেনারদের জায়গায় এসেছেন এবং ফাস্ট বোলার এবাদত হোসেন, মহাম্মদ সাইফুদ্দিনের জায়গায় এসেছেন।

টসের সময়ে শাকিবকে এই বিতর্কি নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেন, ‘আমরা প্রথমে ফিল্ডিং করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু সেটা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে আমরা ভালো ব্যাট করতে পারিনি, কিন্তু আজকের দিনটি ভিন্ন। আমাদের দলে তিনটি পরিবর্তন আছে, আমরা বেশ কিছু পরিবর্তন করেছি। আশা করি, সেটা হবে। আজকে আমাদের জন্য কাজ করবে। আমরা আজ কিছু ভালো ক্রিকেট খেলতে চাই, মিডিয়ায় যা বলা হচ্ছে তা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন নই।’

টসের পরে শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দাসুন শনাকা বলেন, ‘একটি বড় খেলায় তাড়া করা আরও গুরুত্বপূর্ণ হবে। আমরা গত কয়েক বছর ধরে যেভাবে খেলেছি সেভাবেই আক্রমনাত্মকভাবে খেলা চালিয়ে যেতে চাইব।’

বন্ধ করুন