বাংলা নিউজ > ময়দান > IPL 22: সাফল্যের চূড়া থেকে ব্যর্থতার অন্ধগলিতে বিরাট, একনজরে পরিসংখ্যান ২০১৬-২২
বিরাট কোহলি। ফাইল ছবি
বিরাট কোহলি। ফাইল ছবি

IPL 22: সাফল্যের চূড়া থেকে ব্যর্থতার অন্ধগলিতে বিরাট, একনজরে পরিসংখ্যান ২০১৬-২২

  • প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক আরসিবির হয়ে সর্বশেষ ম্যাচ রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধেও আউট হয়েছেন মাত্র ৯ রানে। এই অবস্থায় আসুন একনজরে পরিসংখ্যানের বিচারে দেখে নেওয়ার চেষ্টা করি ২০১৬-২২ বিরাটের সাফল্যের চূড়া থেকে ব্যর্থতার অন্ধগলিতে প্রবেশ

শুভব্রত মুখার্জি: ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক বিরাট কোহলির জন্য সময়টা একেবারেই ভাল যাচ্ছে না। ব্যাট হাতে ক্রমশ খারাপ থেকে খারাপতর হচ্ছে তার পারফরম্যান্স। চলতি আইপিএলে এখন পর্যন্ত ৯টি ম্যাচ খেলে তার ঝুলিতে রয়েছে মাত্র ১২৮ রান। নিজের আইপিএল ক্যারিয়ারে পরপর দুম্যাচে গোল্ডেন ডাক করার লজ্জার নজিরও গড়ে ফেলেছেন তিনি। বিশেষজ্ঞরাও যেন বুঝে উঠতে পারছেন না ঠিক কি হল ব্যাটার বিরাটের! আইপিএলের ইতিহাসে এই মুহূর্তে ২১৫ ম্যাচে খেলে তার ঝুলিতে রয়েছে সর্বাধিক ৬৪০২ রান। গড় ৩৬.৫৮। স্ট্রাইক রেট ১৩০। ২০১৬ সালের আইপিএল মরশুম ছিল বিরাটের ক্যারিয়ারে সেরা মরশুম।

তার ভক্তরা কোনও দিন ভুলতে পারবেন না সেই মরশুমের কথা। রেকর্ড সংখ্যক ৪টি শতরান তিনি করেছিলেন সেই মরশুমে। ওই মরশুমে নজির গড়ে ৯৭৩ রান করেছিলেন তিনি। সেই মরশুমের পরে বলা ভাল মাত্র ৬ মরশুম পরে সেই বিরাটের ব্যাটেই যেন রানের খরা। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক আরসিবির হয়ে সর্বশেষ ম্যাচ রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধেও আউট হয়েছেন মাত্র ৯ রানে। এই অবস্থায় আসুন একনজরে পরিসংখ্যানের বিচারে দেখে নেওয়ার চেষ্টা করি ২০১৬-২২ বিরাটের সাফল্যের চূড়া থেকে ব্যর্থতার অন্ধগলিতে প্রবেশের এই সফর:

∆ ২০১৬:

এক আইপিএল মরশুমে চারটি শতরান করা একমাত্র ব্যাটারের নজির গড়েন তিনি। চারবার নট আউট। সর্বোচ্চ ১১৩ রান করেছিলেন। গড় ছিল ৮১.০৮। ১৬টি ম্যাচে হাঁকিয়েছিলেন ৩৮টি ছক্কা। সেবার ফাইনালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ দলের বিরুদ্ধে হেরেছিল আরসিবি।

∆ ২০১৭:

কাঁধের চোটের কারণে প্রথম চারটি ম্যাচে খেলতে পারেননি। চারটি অর্ধশতরান করেন ১০ টি ম্যাচ খেলে। ৩০.৮০ গড়ে করেন ৩০৮ রান। এই মরশুমে প্লে অফে যেতে পারেনি আরসিবি।

∆ ২০১৮:

১৪টি ম্যাচে চারটি অর্ধশতরান-সহ করেন ৫৩০ রান। গড় ৪৮.১৮। তিনবার অপরাজিত থাকেন। সর্বোচ্চ স্কোর ৯২*। এই মরশুমেও প্লে অফে যায়নি আরসিবি।

∆ ২০১৯:

১৪ টি ম্যাচে একটি শতরান সহ করেন ৪৬৪ রান। ৩৩.১৪ গড়ে করেন দুটি অর্ধশতরান। এই বছরেও আইপিএলের প্লে অফে পৌঁছতে পারেনি আরসিবি।

∆ ২০২০:

১৫ ম্যাচে সর্বাধিক ৯০* সহ করেন মোট ৪৬৬ রান। গড় ৪২.৩৬। এলিমিনেটরে পৌঁছেও হারতে হয় হায়দরাবাদ দলের কাছে।

∆ ২০২১:

১৫ ম্যাচে সর্বাধিক ৭২* সহ ৪০৫ রান করেন। গড় ২৮.৯২। করেন তিনটি অর্ধশতরানও। এলিমিনেটরে কেকেআরের কাছে হেরে বিদায়।

∆ ২০২২:

চলতি মরশুমে এখন পর্যন্ত ৯ ম্যাচে সংগ্রহ ১২৮ রান। সর্বোচ্চ রান ৪৮।

বন্ধ করুন