বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs ENG: এসজি বলের মান নিয়ে অশ্বিনের মতো অসন্তুষ্ট বিরাট কোহলিও
কোহলি ও অশ্বিন। ছবি- টুইটার।
কোহলি ও অশ্বিন। ছবি- টুইটার।

IND vs ENG: এসজি বলের মান নিয়ে অশ্বিনের মতো অসন্তুষ্ট বিরাট কোহলিও

  • এসজির মার্কেটিং হেড বলের এই দশার জন্য চিপকের পিচকেই দায়ী করেছেন।

শুভব্রত মুখার্জি

চিপকের মাটিতে ২২৭ রানে হারের ধাক্কা ভারত এখনও সামলে উঠতে পারেনি। প্রথম টেস্ট হারের ফলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে যাওয়ার রাস্তাও ভারতের জন্য যথেষ্ট কঠিন হয়েছে। ২-১ অথবা ৩-১ ফলে সিরিজ বিরাটদের জিততেই হবে। তবেই ফাইনালে কিউইয়িদের বিরুদ্ধে খেলতে পারবে তারা। এই আবহে প্রথম টেস্টে হারের পরেই ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং ভারতীয় অফ স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের নিশানায় চিপকে ব্যবহৃত এসজি কোম্পানির তৈরি বল।

বিরাট অসন্তোষ জানান এসজি বলের সিম তাড়াতাড়ি সেলাই লুজ হয়ে যাওয়ার। তাঁর মতে ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে দ্বিতীয় নতুন বল নেওয়ার অনেক আগেই এসজি বলের সিমের সেলাই ছিঁড়ে বল লুজ হতে আরম্ভ করে। বল অত্যন্ত অমসৃন হয়ে যায়। প্রসঙ্গত এই নিয়ে অভিযোগ আগেই করেছিলেন অশ্বিন। তাঁর মতে রুটদের প্রথম ইনিংসে ৫০ ওভার খেলা গড়ানোর আগেই বলের বেহাল দশা হয়ে গেছিল। যার সুবিধা পায় ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। অশ্বিনের এই ভাবনার সঙ্গে সহমত পোষন করেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

যদিও এসজির মার্কেটিং হেড বলের এই দশার জন্য চিপকের পিচকেই দায়ী করেছেন, তবুও কোহলি বা অশ্বিন কেউ সহমত হতে পারছেন না। তাঁদের মতে মূলত বলের এই দুর্দশার কারনে প্রায় ১৯১ ওভার বল করতে হয়েছে বিরাটদের। যে সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রুটরা বোর্ডে ৫৭৮ রানের পাহাড় প্রমান রান তুলতে সমর্থ হয়।

বলের দশা সম্বন্ধে বলতে গিয়ে কোহলি বলেন, 'এই টেস্টে যে বলে খেলা হয়েছে, সেইসব বলের কোয়ালিটি নিয়ে আমরা একেবারেই খুশি নই। এই সমস্যা আগেও হয়েছে। টেস্টে মাত্র ৬০ ওভার বল করার পরেই বলের সিম এইভাবে ক্ষতবিক্ষত হয়ে যাওয়া মেনে নেওয়া যায় না। এটাই আমরা প্রথম দুদিন ধরে দেখেছি। তা সত্ত্বেও বলব, ইংল্যান্ড অসাধারণ খেলেছে এবং এই টেস্টে তারা যোগ্য জয়ী।'

বন্ধ করুন