বাংলা নিউজ > ময়দান > ICC-র এলিট প্যানেলের অন্যতম সেরা আম্পায়ার নীতিন মেনন! ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের পরিসংখ্যান তাই বলছে
নীতিন মেনন। ছবি- বিসিসিআই।
নীতিন মেনন। ছবি- বিসিসিআই।

ICC-র এলিট প্যানেলের অন্যতম সেরা আম্পায়ার নীতিন মেনন! ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজের পরিসংখ্যান তাই বলছে

  • দক্ষতার সঙ্গে ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজ পরিচালনা করে প্রশংসিত হচ্ছেন এলিট প্যানেলের সবথেকে কম বয়সী আম্পায়ার।

শুভব্রত মুখার্জি

বিশ্ব ক্রিকেটকে এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে কার্যত শাসন করছে ভারতীয় জাতীয় ক্রিকেট দল। বলা ভালো শেষ একদশক বিশ্ব ক্রিকেটের পাওয়ার হাউস হয়ে গিয়েছে ভারতীয় দল। তবে ভারতীয় ক্রিকেটাররা বিশ্ব মঞ্চ মাতালেও আইসিসির মঞ্চে আম্পায়ার হিসেবে সেইভাবে উঠে আসতে পারেননি কোন ভারতীয়। বলা ভালো শ্রীনিবাসন ভেঙ্কটরাঘবনের পরে সেইভাবে কোন ভারতীয় আম্পায়ার আন্তর্জাতিক মঞ্চে নিজের দাগ ফেলতে ব্যর্থ হয়েছেন। তবে সাম্প্রতিক কালে নীতিন মেননের হাত ধরে ভারতীয় আম্পায়ারিংয়ের জগতের ছবিটা কিছুটা হলেও বদলাচ্ছে।

সদ্য শেষ হওয়া ইংল্যান্ড সিরিজের পরে মেননের আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশের ক্রিকেটমহল। মেনন যেভাবে দক্ষতা এবং সফলতার সঙ্গে মাঠে দাঁড়িয়ে ভারত এবং ইংল্যান্ডের দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ পরিচালনা করেছেন, সেইকারনে এই বছরের সেরা আম্পায়ারের পুরস্কার মেননের কাছে যাওয়া উচিত বলেই অনেকের ধারনা।

করোনা কালে ভারত বনাম ইংল্যান্ড সিরিজে ঘরের মাঠে টেস্ট, টি-২০ ও ওয়ান ডে মিলিয়ে মোট ১২টি ম্যাচ খেলেছে বিরাটের ভারত। যার মধ্যে ১০টি ম্যাচে আম্পায়ারিং করেছেন ভারতীয় আম্পায়ার নীতিন মেনন। সমস্ত চাপকে উপেক্ষা করে অত্যন্ত সফলতার সঙ্গে তিনি তার গুরুদায়িত্ব পালন করেছেন।

সবকটি ম্যাচ মিলিয়ে ৪০ জন ব্যাটসম্যানকে আউট দিয়েছেন মেনন। যার মধ্যে মাত্র ৫টি সিদ্ধান্ত পাল্টাতে পেরেছেন টিভি আম্পায়ার। অর্থাৎ তার নির্ভুল সিদ্ধান্ত দেওয়ার শতকরা হিসেবও অনেকটাই বেশি।

ভারতীয় প্রাক্তন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান দীনেশ কার্তিকও মেননের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। নীতিনকে নিয়ে তিনি মজাদার টুইটও করেছেন। ভারতীয় আম্পায়ারের প্রশংসা করেছেন প্রাক্তন মহিলা ক্রিকেটার লিসা স্থালেকার।

প্রসঙ্গত কনিষ্ঠতম আম্পায়ার হিসেবে ২০২০ সালের জুনে মাত্র ৩৬ বছর বয়সে আইসিসির আম্পায়ারদের এলিট প্যানেলে জায়গা করে নিয়েছিলেন নীতিন মেনন।

বন্ধ করুন