বাংলা নিউজ > ময়দান > Ind vs Eng: দাদার জন্মদিনে আবেগপ্রবণ পোস্ট হার্দিকের, সাড়া ফেলল নেটদুনিয়ায়
আবেগপ্রবণ দুই ভাই- ক্রুনাল এবং হার্দিক পান্ডিয়া। ছবি: রয়টার্স (REUTERS)
আবেগপ্রবণ দুই ভাই- ক্রুনাল এবং হার্দিক পান্ডিয়া। ছবি: রয়টার্স (REUTERS)

Ind vs Eng: দাদার জন্মদিনে আবেগপ্রবণ পোস্ট হার্দিকের, সাড়া ফেলল নেটদুনিয়ায়

  • বুধবার ৩০-এ পা দিলেন ক্রুনাল পান্ডিয়া। তাঁর জন্মদিনে আবেগে ভাসলেন। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে দাদাকে বিশেষ বার্তাও দিলেন হার্দিক।

দাদাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে বারবার আবেগে ভাসতে দেখা গিয়েছে ভাই হার্দিক পান্ডিয়াকে। বুধার ৩০-এ পা দিলেন ক্রুণাল পান্ডিয়া। তাঁকে শুভেচ্ছা জানাতে ভাই হার্দিকের আবেগপ্রবণ বার্তা সাড়া ফেলে দিয়েছে নেটদুনিয়ায়।

 সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছেন হার্দিক। যেখানে দুই ভাইয়ের মিষ্টি সম্পর্কের ছবিই ধরা পড়েছে। ভিডিয়োটির নেপথ্যে কিশোর কুমারের বিখ্যাত গান ‘‌তেরে জ্যায়সা ইয়ার কাহাঁ’‌ বাজছে। এই ভিডিয়োটি পোস্ট করে হার্দিক লিখেছেন, ‘এই সফরে শুরু থেকেই আমরা একসঙ্গে রয়েছি। ‌উত্থান–পতনের দিনগুলোয় তোমাকে সব সময়ে পাশে পেয়েছি। এটা আমার সৌভাগ্য। শুভ জন্মদিন বড়ভাই।’

এর আগে মঙ্গলবারও দাদাকে নিয়ে একটি আবেগপ্রবণ বার্তা পোস্ট করেছিলেন হার্দিক।একদিনের আন্তর্জাতি অভিষেক ম্যাচেই দ্রুততম পঞ্চাশের রেকর্ড গড়েছিলেন ক্রুনাল। সেই সাফল্য তিনি বাবাকে উৎসর্গ করেছিলেন। আর দাদার এই সাফল্যকে সম্মান জানাতেই ক্রুণালের উদ্দেশে একটি খোলা চিঠিতে ভাই হার্দিক লিখেছিলেন, ‘‌বাবাও খুব গর্বিত হতেন। তোমার দিকে তাকিয়ে বাবা হাসছেন। জন্মদিনের অগ্রিম উপহার বাবা তোমাকে পাঠিয়েছেন। তোমার আরও অনেক কিছু প্রাপ্য। এর থেকে বেশি খুশি আমি আর হতে পারতাম না। বাবা, এই সাফল্য শুধু তোমার জন্যই।’‌ দাদার সাফল্যকে বাবার পাঠানো জন্মদিনের উপহার হিসেবেই চিহ্নিত করেছেন হার্দিক।

আগে মঙ্গলবারও দাদাকে নিয়ে একটি আবেগপ্রবণ বার্তা পোস্ট করেছিলেন হার্দিক।একদিনের আন্তর্জাতি অভিষেক ম্যাচেই দ্রুততম পঞ্চাশের রেকর্ড গড়েছিলেন ক্রুনাল। সেই সাফল্য তিনি বাবাকে উৎসর্গ করেছিলেন। আর দাদার এই সাফল্যকে সম্মান জানাতেই ক্রুণালের উদ্দেশে একটি খোলা চিঠিতে ভাই হার্দিক লিখেছিলেন, ‘‌বাবাও খুব গর্বিত হতেন। তোমার দিকে তাকিয়ে বাবা হাসছেন। জন্মদিনের অগ্রিম উপহার বাবা তোমাকে পাঠিয়েছেন। তোমার আরও অনেক কিছু প্রাপ্য। এর থেকে বেশি খুশি আমি আর হতে পারতাম না। বাবা, এই সাফল্য শুধু তোমার জন্যই।’‌ দাদার সাফল্যকে বাবার পাঠানো জন্মদিনের উপহার হিসেবেই চিহ্নিত করেছেন হার্দিক।

এই বছরের জানুয়ারিতেই বাবা হিমাংশু পান্ডিয়াকে হারিয়েছেন হার্দিকরা।  জন্মদিনের আগের দিন মঙ্গলবার ভাইয়ের হাত থেকে জাতীয় দলের টুপি নিয়ে আকাশের দিকে অনেকক্ষণ চুপ করে তাকিয়ে ছিলেন ক্রুনাল। যেন সদ্য হারানো বাবাকে খুঁজছিলেন তিনি। এর পর ভাইকে জড়িয়ে তাঁকে কাঁদতেও দেখা যায়। ইনিংস শেষ হওয়ার পরও ক্যামেরার সামনে কান্নায় ভেঙে পড়েন ক্রুনাল। প্রথম ম্যাচে ভারতের জয়ের পর ক্রুনাল টুইট করে লিখেওছিলেন, ‘প্রতিটা বল খেলার সময় বাবার কথাই মনে পড়েছে। চোখ দিয়ে জল গড়িয়ে পড়ছিল। সব সময় বাবাকে নিজের পাশে অনুভব করেছি । আমার শক্তি হওয়ার জন্য ধন্যবাদ। সব সময় আমার পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ। আশা করি তোমায় গর্বিত করতে পেরেছি। এটা তোমার জন্য বাবা।’ দাদার এই টুইটের প্রতিফলনই দেখা গিয়েছে হার্দিকের পোস্টেও। আসলে সদ্য বাবাকে হারানোর যন্ত্রণাটা যে দুই ভাইয়ের মধ্যে এখনও বড় বেশি টাটকা।

বন্ধ করুন