বাংলা নিউজ > ময়দান > Ind vs Eng: বিরাটেই আস্থা প্রাক্তন পাক অধিনায়কের, পরীক্ষার মুখে শনিবারও
বিরাট কোহলি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
বিরাট কোহলি। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

Ind vs Eng: বিরাটেই আস্থা প্রাক্তন পাক অধিনায়কের, পরীক্ষার মুখে শনিবারও

  • শনিবার সিরিজের পঞ্চম টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও সেই বিরাটের উপর নজর থাকবে।

শুভব্রত মুখার্জি

ভারতীয় দল শুধু নয়, এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্যাটসম্যান হলেন বিরাট কোহলি। প্রায় বছর দেড়েক মতো বিরাটসুলভ ব্যাটিং ফর্মে ছিলেন না তিনি। মাত্র ২৮ গড়ে ক্রিকেটের সব ফর্ম্যাট মিলিয়ে তিনি সেই সময়য রান করেছেন। ২০২০ সালে একটা গোটা ক্যালেন্ডার বর্ষে কোনও ফরম্যাটে একটিও শতরান করতে পারেননি কোহলি। তবে ২০২১ সালে তিনি ধীরে ধীরে বড় রানের দিকে ফিরছেন। ইয়ন মর্গ্যানদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ম্যাচে রাজকীয় ফর্মে ফেরার ইঙ্গিত দেন তিনি। বিরাট কোহলি দুর্দান্ত ফর্ম ফিরে পেলেও ভারতীয় দলের অনেকেই ফর্মহীনতায় ভুগছেন।

তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বিরাট কোহলির ৭৭ রানের ইনিংস না থাকলে সেদিন ১৫০ রানও পার করতে পারত না ভারত। এই ব্যাপারে মুখ খুলে পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক ইনজামাম-উল-হক মনে করেন, কোহলি না থাকলে ভারতকে আরও বড় লজ্জার মুখে পড়তে হত। তাঁর মতে ওই ম্যাচে ভারতের একমাত্র ইতিবাচক দিক বিরাট কোহলির ইনিংস।

তৃতীয় ম্যাচে ভারতকে ৮ উইকেটে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। ইংরেজ পেসারদের দাপটে বারবার অসহায় লাগছিল বিরাট ছাড়া ভারতের বাকি ব্যাটসম্যানদের। ইনজামাম বলেন, 'ভারতীয় ওপেনাররাই দলকে বিপদে ঠেলে দিয়েছে। কোহলি ছন্দ ফিরে পাওয়ায় দলের সুবিধা হয়েছে। শুরুতে কোহলি সময় নিয়ে ২৯ বলে ৩০ রান করেছিল। পরে ১৭-১৮ বলে ৪০ থেকে ৪৫ রান করে। ভারতের জন্য এই ম্যাচে ওটাই একমাত্র ইতিবাচক দিক ছিল'।

প্রাক্তন পাকিস্তান অধিনায়ক আরও বলেন, 'ইংল্যান্ড সব বিভাগেই ভারতের থেকে এগিয়ে ছিল। টি-টোয়েন্টিতে ভারতের ১৫৬ যথেষ্ট রান ছিল না। জস বাটলারের ইনিংস ম্যাচটাকে একপেশে করে দেয়। কোহলির ইনিংস না থাকলে একপেশে ম্যাচই হত।' আর শনিবার সিরিজের পঞ্চম টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও সেই বিরাটের উপর নজর থাকবে।

বন্ধ করুন