বাংলা নিউজ > ময়দান > Ind vs Eng: দু'বছর পরে টেস্টে বল, মনে হচ্ছিল অভিষেক ম্যাচ খেলছি, বললেন কুলদীপ
বেন ফোকসকে আউট করছেন কুলদীপ। (ছবি সৌজন্য বিসিসিআই, স্ক্রিনগ্র্যাব)
বেন ফোকসকে আউট করছেন কুলদীপ। (ছবি সৌজন্য বিসিসিআই, স্ক্রিনগ্র্যাব)

Ind vs Eng: দু'বছর পরে টেস্টে বল, মনে হচ্ছিল অভিষেক ম্যাচ খেলছি, বললেন কুলদীপ

  • ২০১৯ সালে সিডনি টেস্টের পরে ফের সাদা জার্সিতে ভারতকে বিশ্বমঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করলেন কুলদীপ।

শুভব্রত মুখার্জি

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ব্রিসবেন টেস্টে ভারতীয় শিবিরে একাধিক চোট-আঘাত থাকলেও কুলদীপ যাদব প্রথম একাদশে সুযোগ পাননি। বরং তাঁর বদলে অভিষেক ম্যাচে খেলেছিলেন নেট বোলার হিসেবে স্টিভ স্মিথদের দেশে যাওয়া ওয়াশিংটন সুন্দর। চেন্নাইয়ে প্রথম টেস্টে ভাবা হয়েছিল রবিচন্দ্রন অশ্বিন, সুন্দরের সঙ্গে হয়ত প্রথম একাদশে জায়গা করে নেবেন কুলদীপ। কারণ পিচ স্পিন সহায়ক ছিল এবং জো রুট বাহিনীর বিরুদ্ধে তিনি বিরাটদের অন্যতম বড় অস্ত্র হতে পারেন। কিন্তু বাস্তবে সেই সুযোগ হয়নি। অতিরিক্ত বোলার হিসেবে দলের সঙ্গে থাকা নাদিমকে সুযোগ করে দিয়েছিল ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে দ্বিতীয় টেস্টে শেষমেশ ভাগ্যে শিঁকে ছেড়ে কুলদীপের। ২০১৯ সালে সিডনি টেস্টের পরে ফের সাদা জার্সিতে ভারতকে বিশ্বমঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পান কুলদীপ।

প্রথম ইনিংসে বল হাতে সেভাবে সাফল্য পাননি। বেশি বল করারও সুযোগ পাননি। দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁর বলে রুটের সহজ ক্যাচ ফেলে দেন সিরাজ। তখন দৃশ্যত তাঁকে হতাশ দেখাচ্ছিল। সেই হতাশা কেটে যায় বেন ফোকসের উইকেট নেওয়ার মধ্যে দিয়ে। তারপরে দৃশ্যত এক অন্য কুলদীপকে বোলার হিসেবে পায় ভারত। সবমিলিয়ে দু'উইকেট নেন। ম্যাচ শেষ হওয়ার পরে কুলদীপ বলেন, 'তোমার দল যখন ভালো খেলছে, তখন তাকে সমর্থন করা খুব জরুরি ‌। অক্ষর (প্যাটেল) এবং অশ্বিন দারুণ বল করছিল। তাই আমার কাজ ছিল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা। আমার মনে হচ্ছিল আমার যেন ফের একবার অভিষেক হল‌। কারণ দীর্ঘদিন ধরে আমি খেলিনি। ম্যাচে বল করার বিষয়টা সম্পূর্ণ এক ভিন্ন ব্যাপার। নেটে আমি যত অনুশীলন করুন না কেন, ম্যাচের পরিস্থিতি সবসময় আলাদা। আমি সবসময় অ্যাশ ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলি, অজি সফরেও সেটা করেছি। অশ্বিন ভাই আমায় সবসময় উপদেশ দেয়, কোন লেন্থে বল করতে হবে, কোন ব্যাটসম্যান কোন শট খেলতে ভালবাসে।আমরা এর আগেও এই পরিস্থিতিতে পড়েছি, যখন সিরিজের প্রথম ম্যাচ আমরা হেরে গিয়েছি। আমার অভিষেক সিরিজেই অজিদের বিরুদ্ধে পুণেতে প্রথম টেস্টে হেরেছিলাম।তারপরে সদ্য আমরা অ্যাডিলেডেও হেরেছিলাম‌। সেই সময়ও আপানারা নিশ্চয় দলের মানসিকতা দেখেছেন। আমরা সবসময় পরের ম্যাচে পারফরম্যান্স করে কামব্যাক করার জন্য প্রস্তত থাকি। ঋষভের কিপিংও অসাধারণ ছিল সকলেই এই জয়ে যোগদান করেছি।'

বন্ধ করুন