বাংলা নিউজ > ময়দান > KKR থেকে টিম ইন্ডিয়া, স্বপ্নের সফরে প্রসিধ কৃষ্ণা

শুভব্রত মুখার্জি

ভারতীয় ক্রিকেটকে সমৃদ্ধ করার ক্ষেত্রে মুম্বই, কর্নাটক এসব রাজ্যগুলোর ভূমিকা সবথেকে বেশি। বিসিসিআইয়ের ইতিহাসে এই দুই রাজ্য থেকে উঠে এসেছেন বহু ক্রিকেটার যারা ভারতীয় দলের জার্সি গায়ে বিশ্ব মঞ্চে দেশের নাম উজ্জ্বল করেছেন। কর্নাটক ভারতীয় দলকে একটা সময় জাভাগল শ্রীনাথ, ভেঙ্কটেশ প্রসাদের মতো কিংবদন্তি পেস বোলার উপহার দিয়েছে। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হতে চলেছে আরও একটি নাম। লম্বা, ছিপছিপে চেহারার কর্নাটকের পেসার প্রসিধ কৃষ্ণা ভারতের অনুর্ধ্ব-১৯ দল এবং কেকেআরের হয়ে ভালো পারফরম্যান্স করার পরেই উঠে এসেছেন একেবারে শিরোনামে। আর তার ফলস্বরূপ এবার ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতের জাতীয় দলের স্কোয়াডে জায়গা করে নিয়েছেন প্রসিধ।

জাতীয় দলের হয়ে ভালো পারফরম্যান্স করতে মুখিয়ে রয়েছেন তরুণ পেসার প্রসিধ‌। ২০১৮-২০ এই তিন মরশুমে নাইটদের জার্সিতে ২৪টি উইকেট নিয়েছেন প্রসিধ। ২০১৮-১৯ মরশুমে বিজয় হাজারেতে ১৩টি উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক হয়েছিলেন। এই মরশুমেও বিজয় হাজারেতে ৭ ম্যাচে ১৪ উইকেট নিয়েছেন তিনি। জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার কারণে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত ২৫ বছরের প্রসিধ।

নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে থাকাকালীন বন্ধু ফোন করে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার সংবাদ তাঁকে দেন।নিজের নাম জাতীয় দলে দেখে প্রথমে বিশ্বাস করতে পারেননি প্রসিধ। দলের তরফ থেকেও তাকে ফোন করা হয়। ছেলের সাফল্য বাবা-মা উচ্ছ্বসিত । প্রসিধ বলছেন, এত বছরের পরিশ্রম এবার স্বার্থকতা পেল। তিনি জানাতে ভুললেন না যে, প্রথম একাদশে সুযোগ পেলে নিজেকে নিংড়ে দেবেন।

প্রসঙ্গত, কেকেআরে যোগ দেওয়ার আগে প্রসিধ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরে নেট বোলার ছিলেন। সেই সময় থেকেই বিরাটের নজরে আসেন। জাতীয় স্কোয়াডে জায়গা পাওয়ার পরে অধিনায়কের বার্তা পেয়ে উচ্ছ্বসিত তিনি। প্রসিধ জানান এটা তাঁর আত্মবিশ্বাস বাড়াতে অনেকটা সাহায্য করেছে। তবে তিনি এটাও জানেন, দিনের শেষে মাঠে নেমে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করতে হবে।

প্রসিধ জানাতে ভোলেননি ভারতীয়-এ দল এবং কেকেআরের হয়ে খেলা তাঁর খেলার উন্নতিতে কতটা সাহায্য করেছে। ভারতীয়-এ দলের হয়ে বিদেশ সফরগুলো তাঁর মতো তরুণদের খুবই সাহায্য করেছে বলে তাঁর অভিমত। একই সঙ্গে সাহায্য করেছে নাইট শিবির। কেকেআরের প্রাক্তন বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিকের অবদানও জানাতে ভোলেননি তিনি। প্রথম একাদশে সুযোগ পাওয়া নিশ্চিত না হলেও ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়া যে গর্বের বিষয়, তা জানাতেও ভোলেননি তিনি । তাই মুহূর্তগুলো উপভোগ করতে চান। দলে জায়গা পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা যে স্বাভাবিক তাও একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছেন এই তরুণ প্রতিভা।

বন্ধ করুন