বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs ENG: বিদেশের মাটিতে প্রথম শতরান করেও উদাসীন ‘হিটম্যান’

মূলত রোহিত শর্মার দুরন্ত শতরানের ওপর ভর করে ওভাল টেস্টে তৃতীয় দিনের শুরুতে ৪৩ রানে শুরু করে ভারত গোটা দিনে মাত্র তিন উইকেট হারিয়ে আরও ২২৭ রান যোগ করেন। দিনের শেষে ইংল্যান্ডের থেকে ভারত ১৭১ রানে এগিয়ে। বিদেশের মাটিতে রোহিতের ১২৭ রানের ইনিংসে চারিদিকে ধন্য ধন্য রব উঠলে, ভারতীয় তারকা কিন্তু সেই বিষয়ে খানিক উদাসীনই। 

দিনের শুরুটা ভালভাবেই করে ভারতীয় দল। দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল ও রোহিত শর্মা দুরন্তভাবে নতুন বল সামলে দেন। রাহুলের অর্ধশতরান হাতছাড়া হলেও ওপেনিং পার্টনারশিপের সুবাদে ভারতকে শক্ত ভীত দিতে পেরে সন্তুষ্ট রোহিত শর্মা। ব্যক্তিগত ১২৭ রানে দ্বিতীয় নতুন বলে আউট হলেও ততক্ষণে টিম ইন্ডিয়া বেশ মজবুত জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিল। দলগতভাবে ভারতকে বেশ শক্তিশালী জায়গায় পৌঁছাতে পেরে খুশি তারকা ব্যাটসম্যান।

BCCI.tv টিভিতে পূজারার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে রোহিত বলেন, ‘দলগতভাবে আমরা ভাল জায়গায় রয়েছি, তাই রান করতে পেরে আমি খুশি। আমরা জানতে আমরা প্রথম ইনিংসে ১০০ রানে পিছিয়ে রয়েছি, তাই ভাল ব্যাট করে বড় রানের লিড নেওয়াটা খুবই জরুরি ছিল। শুরুতেই কেএলের (রাহুল) সঙ্গে ওপেনিং পার্টনারশিপটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ইংল্যান্ডে ভালভাবে নতুন বল খেলাটা একটা বড় চ্যালেঞ্জ। সেটা সফলভাবে উতরে গেলে বাকি সময় দ্রুতগতিতে রান করাই যায়।’

২০১৯ সালের পর পর থেকে টেস্টে ওপেনার হিসাবে রোহিতের সাফল্য চমকপ্রদ। এর আগেও সাতটি শতরান করলেও, তার সবকটিই ছিল ভারতের মাটিতে। বিদেশের মাটিতে এটিই টেস্টে রোহতির প্রথম শতরান। তার সাফল্যে ভারতীয় সমর্থক থেকে বিশেষজ্ঞ, সকলেই খুশি। তবে ভারতের বাইরে নিজের প্রথম শতরান করার চেয়ে দলের হয়ে সফলভাবে নিজের দায়িত্ব পালন করতে পেরেই অধিক খুশি ‘হিটম্যান’।

‘সত্যি বলতে রান করাটাই আমার কাছে সবচেয়ে জরুরি। বিদেশের মাটিতে শতরান করা বা কোন ব্যক্তিগত মাইলফলক স্পর্শ করার বিষয়ে আমি কোনদিনই তেমন গুরুত্ব দিই না। ভাল খেললে বাকি সবকিছু আপনা আপনিই হবে। আমার একমাত্র লক্ষ্য ছিল দলের হয়ে নিজের ভূমিকাটা যেন আমি ঠিকভাবে পালন করতে পারি। ইংল্য়ান্ডে আমি প্রথমবার (লাল বলের ক্রিকেটে) ওপেন করছি, তাই আমার ওপর বড় দায়িত্ব ছিল। নিজের ভূমিকা পালন করতে পেরে আমি খুশি। ওপেনার হিসাবে নতুন বল সফল খেলা ছাড়া আর কিছু নিয়েই আমি ভাবছিলাম না।’ দাবি রোহিতের।

বন্ধ করুন