বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs ENG: অতীতের ভারতকে ভীতু বলায় এখনও রেগে গাভাসকর, অ্যাথারটনের শান্তি বার্তাতেও গলল না বরফ
সুনীল গাভাসকর। ছবি- গেটি ইমেজেস।
সুনীল গাভাসকর। ছবি- গেটি ইমেজেস।

IND vs ENG: অতীতের ভারতকে ভীতু বলায় এখনও রেগে গাভাসকর, অ্যাথারটনের শান্তি বার্তাতেও গলল না বরফ

  • নাসের হুসেনের লেখা এক কলামেই বেজায় চটেন সুনীল গাভাসকর।

ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজে লর্ডসে মাঠের মধ্যে ক্রিকেটারদের লড়াই তো সকলেই দেখেছেন, সেই লড়াইের আঁচ হেডিংলেতে তৃতীয় টেস্ট শুরুর আগে দুই দেশের ধারাভাষ্যকারদের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়ে। নাসের হুসেনের লেখা এক কলামেই বেজায় চটেন সুনীল গাভাসকর। বৃহস্পতিবার (২৬ অগস্ট) খেলা শুরুর আগে সেই প্রসঙ্গেই হুসেনের তরফে ক্ষমা চেয়ে নেন তাঁর কাছের বন্ধু মাইকেল অ্যাথারটন।

Daily Mail-র হয়ে লেখা কলামে হুসেন দাবি করেন অতীতের ভারতীয় দল বর্তমান বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলের মতো কঠিন মানসকিতার ছিল না। চাপে পড়লে বরং তাঁরা পাল্টা দেওয়ার বদলে কিছুটা পিছপা হয়ে যেত। Sony Sports Network-র হয়ে ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় হুসেনের এই মন্তব্য সরাসরি নাকচ করে গাভাসকর তাঁর সময়ের ভারতীয় দলের ইংল্যান্ডে পারফরম্যান্সের বিবরণ দিয়ে জানান আর যাই হোক, তাঁর সময়ের দল অন্তত ভীতু ছিল না।

জবাবে হুসেন নিজের বিবৃতির ব্যাখা দিলেও বরফ গলেনি। দুই দেশের দুই প্রাক্তন অধিনায়কের মধ্যে এই ঝামেলা মেটাতে শান্তির দূত হওয়ার চেষ্টা করেন আরেক প্রাক্তন ইংলিশ অধিনায়ক অ্যাথারটন। দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরুর আগে তিনি বলেন, ‘আমি কালকের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নাসের হুসেনের তরফে শান্তির বার্তা দিতে চাই।’

জবাবে হাসি মুখে পুরো কথাটা শুনলেও নিজের বক্তব্য থেকে যে তিনি পিছু হটছেন না তা সাফ জানিয়ে দেন। ‘আমি কোনদিন কোনকিছুর ক্ষেত্রে পিছপা হয়নি, তো এক্ষেত্রেও আমি পিছপা হব না। আমাকে যারা চেনেন তারা সকলেই এতদিনে এটা ভালভাবে জেনে গেছেন।’ দাবি ভারতীয় কিংবদন্তীর। এই ঘটনায় মাঠের পাশপাশি মাঠের বাইরেও যে উত্তেজনার পারদ চড়ছে, তা নিঃসন্দেহে বলাই যায়।

বন্ধ করুন