বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs ENG: তুমুল ঝগড়া সিরাজ-কারানের মধ্যে, নয়া 'ক্যাপ্টেন কুল'র ভূমিকায় কোহলি
মহম্মদ সিরাজ ও বিরাট কোহলি। ছবি- পিটিআই।
মহম্মদ সিরাজ ও বিরাট কোহলি। ছবি- পিটিআই।

IND vs ENG: তুমুল ঝগড়া সিরাজ-কারানের মধ্যে, নয়া 'ক্যাপ্টেন কুল'র ভূমিকায় কোহলি

  • কারানের ক্যাচ নিয়েই ইংল্যান্ড অলরাউন্ডারকে সাজঘরে ফেরত পাঠান সিরাজ।

দু'টি সেরা দল মাঠে যখন নিজেদের সর্বস্ব উজাড় করে দিয়ে জয়ের জন্য ঝাঁপায়, তখন সামান্য কথা কাটাকাটি, বাক্য বিনিময় হয়েই থাকে। ভারত-ইংল্যান্ড প্রথম টেস্টেও একই ছবি দেখা গিয়েছে একাধিকবার। ম্যাচের চতুর্থ দিনেও সাম কারান এবং মহম্মদ সিরাজ বাক্য বিনিময়ে জড়িয়ে পড়েন। 

ঘটনার সূত্রপাত ইংল্যান্ড ইনিংসের ৭৪ ওভারে। সিরাজের একটি খারাপ বলকে সজোরে কাট মেরে বাউন্ডারিতে পাঠান কারান। আক্রমণাত্মক ছন্দে ব্যাট করা কারান ইংল্যান্ডের লিডকে দ্রুত এগিয়ে দিয়ে ভারতীয় দলের চিন্তা বাড়াচ্ছিলেন। এমন অবস্থায় বিরক্ত সিরাজ কারানের শটে আরও ক্ষিপ্ত হন। কারানের দিকে এগিয়ে গিয়ে তাঁকে স্লেজ করার চেষ্টা করেন ভারতীয় বোলার। কারানের অঙ্গভঙ্গিতে যতদূর বোঝা যায়, ইংল্যান্ড অলরাউন্ডার সিরাজকে ফিরে গিয়ে নিজের পরের বল করতেই বলেন।

 তবে এতে অবাক হওয়ার তেমন কিছুই নয়। অবিশ্বাস্যভাবে অধিনায়ক বিরাট কোহলি দুইজনের মধ্যে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন। কোহলি আর শান্ত, শব্দ দুটো একসঙ্গে ঠিক মানায় না। মাঠের মধ্যে নিজেও একাধিকবার প্রতিপক্ষের ক্রিকেটারদের সঙ্গে বাক্য বিনিময় করতে দেখা গিয়েছে কোহলিকে। নিজের আবেগকে কোন সময়ই চেপে রাখেন না তিনি। তাঁর এহেন আচরণে বিস্মিত সকলেই। 

হয়ত অধিনায়কত্ব এবং বয়সের দরুণ সামান্য হলেও আগ্রাসী কোহলি শান্ত হয়েছেন। সিরাজকে এই ঘটনার পরে কারান আরও একটি বাউন্ডারি মারলেও, কারানের ক্যাচ ধরে তাঁকে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়ে শেষ হাসিটা হাসেন ভারতীয় ফাস্ট বোলারই। প্রসঙ্গত, প্রথম ইনিংসে সিরাজের ব্যাটিংয়ের সময়ও জেমস অ্যান্ডারসন তাঁকে উত্য়ক্ত করার চেষ্টা করলে পাল্টা দেন তিনি। এরপরেও চারটি টেস্ট ম্যাচ বাকি। এই বাক্য বিনিময়, লড়াইয়ে একে অপরকে ছাপিয়ে যাওয়ার প্রবল প্রচেষ্টা যে সিরিজকে আরও রসাল করে বাড়তি উত্তেজনা যোগ করবে, সেই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই।

বন্ধ করুন