বাংলা নিউজ > ময়দান > Ind vs Eng: কেন নির্দিষ্ট ‘সফট সিগন্যাল’ দিতে হবে? দূর থেকে বোঝা অসম্ভব, উষ্মাপ্রকাশ বিরাটের
আউট হয়ে ফিরছেন সূর্য এবং ডেভিড মালানের বিতর্কিত ক্যাচ। (ছবি সৌজন্য পিটিআই এবং টুইটার)
আউট হয়ে ফিরছেন সূর্য এবং ডেভিড মালানের বিতর্কিত ক্যাচ। (ছবি সৌজন্য পিটিআই এবং টুইটার)

Ind vs Eng: কেন নির্দিষ্ট ‘সফট সিগন্যাল’ দিতে হবে? দূর থেকে বোঝা অসম্ভব, উষ্মাপ্রকাশ বিরাটের

  • বিরাটের বক্তব্য, গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এই ধরনের ঘটনা একেবারেই বাঞ্চনীয় নয়।

আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নিয়ে উষ্মাপ্রকাশ করলেন বিরাট কোহলি। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চতুর্থ টি-টোয়েন্টির শেষে ভারতীয় অধিনায়ক মন্তব্য করেন, অনফিল্ড আম্পায়ারের ‘সফট সিগন্যাল’-এর (মাঠের আম্পায়ারদের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত) নিয়ম বিবেচনা করার সময় এসেছে। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এরকম ঘটনা একেবারেই বাঞ্চনীয় নয়।

বিরাট বলেন, ‘টেস্ট সিরিজের সময় একটা ঘটনা ঘটেছিল, যখন আমি জিঙ্কসের (অজিঙ্কা রাহানে) পাশে ছিলাম। ও পরিষ্কারভাবেই বল ধরেছিল। কিন্তু ও নিশ্চিত ছিল না বলে সঙ্গে সঙ্গে তৃতীয় আম্পায়ারের কাছে যাওয়া হয়েছিল। যদি ফিল্ডারের মনেই সন্দেহ থাকে, তাহলে আমার মনে হয় না যে স্কোয়ার লেগ থেকে আম্পায়ারের পক্ষে তা স্পষ্টভাবে দেখা সম্ভব এবং একটি প্রমাণমূলক বা নির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত দিতে পারেন। তাই সফট সিগন্যাল আরও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। যা অত্যন্ত গড়বড়ে।’

বৃহস্পতিবার সূর্যকুমার যাদবকে বিতর্কিত আউট দেওয়া হয়। ভারতের ইনিংসের ১৪ তম ওভারের দ্বিতীয় বলে স্যাম কারানের বলে পুল করেছিলেন সূর্য। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছিল, ডিপ-স্কোয়ার লেগে নিচু ক্যাচ নিয়েছেন ডেভিড মালান। ইংল্যান্ড ফিল্ডাররা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করতে থাকেন। অনফিল্ড আম্পায়ার কেএন আনন্দপদ্মানাভন ‘সফট সিগন্যাল’ হিসেব আউট দেন। মিনিট চারেক ধরে একাধিকবার ক্যাচ দেখলেও তৃতীয় আম্পায়ার বীরেন্দর শর্মা একেবারেই নিশ্চিত ছিলেন। অকাট্য প্রমাণ না মেলায় নিয়ম অনুযায়ী আনন্দপদ্মানাভনের সিদ্ধান্ত বজায় রাখতে বাধ্য হন তৃতীয় আম্পায়ার।

সেই সিদ্ধান্তে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হন প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। সেই সময় সূর্য আউট না হলে ভারত আরও বেশি রান তুলতে পারত। শেষপর্যন্ত ভারত জিতে গেলেও বিতর্ক থামেনি। কোহলি বলেন, ‘আমি জানি না যে কেন আম্পায়ারদের জন্য আমি জানি না (আই ডোনট নো) কল থাকতে পারে না। কেন তা অকাট্য হতে হবে? কারণ সেটা তো পুরো সিদ্ধান্তের উপর প্রভাব ফেলে। আম্পায়ার্স কলের ক্ষেত্রেও আমাদের একই বক্তব্য।’ কোহলির মতে, এরকম একটা সিদ্ধান্তে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের মোড় পুরোপুরি ঘুরে যেতে পারে। তাঁর কথায়, ‘আমার মতে, এই ধরনের কয়েকটি ঘটনা পুরো ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে, বিশেষত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে (তা আরও হতে পারে)। (আজ) আমরা (ফলাফলের) বিপরীত দিকে আছি। কিন্তু অন্য দলকেও সেই সিদ্ধান্তের ফল ভুগতে হতে পারে। তাই এই বিষয়গুলিকে যতটা সম্ভব কমানো যায়, তা দেখতে হবে। খেলাটা সহজ এবং সমান্তরাল রাখা হোক। এমন কয়েকটি নিয়ম থাকা উচিত, যা এই ধরনের ধূসর বিষয়ের মধ্যে পড়ে না। যা আমরা কখনও বুঝি, কখনও বুঝি না। সেটা একেবারেই বাঞ্চনীয় নয়। সেটার উপর অনেক কিছু নির্ভর করে। মাঠে স্বচ্ছতা থাকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

বন্ধ করুন