বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs ENG: করোনায় আক্রান্ত রোহিত, গড়িমসি করে ইংল্যান্ডে ডাকতেই হল মায়াঙ্ককে
মায়াঙ্ক আগরওয়াল।

IND vs ENG: করোনায় আক্রান্ত রোহিত, গড়িমসি করে ইংল্যান্ডে ডাকতেই হল মায়াঙ্ককে

  • ঠিক করা হয়েছিল, ইংল্যান্ডে অনুশীলনের সময়ে বা প্রস্তুতি ম্যাচে কোনও ক্রিকেটার যদি চোট পেয়ে যান, তখন প্রয়োজন মনে হলে মায়াঙ্ককে পাঠানো হবে। তবে মায়াঙ্ককে বেঙ্গালুরুতে থেকে অনুশীলন করতে বলা হয়েছিল। যাইহোক রোহিত করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় এখন তড়িঘড়ি মায়াঙ্ককে ইংল্যান্ডে পাঠাতে হচ্ছে।

চোটের কারণে ইংল্যান্ড সফর থেকেও ছিটকে গিয়েছেন কেএল রাহুল। করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন রোহিত শর্মা। দুই তারকা না থাকায় স্বাভাবিক ভাবেই চাপে পড়ে গিয়েছ ভারতীয় দল। শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ডে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে।

রাহুলের চোটের পরেই মায়াঙ্ককে দলের সঙ্গে পাঠাতে চেয়েছিল বিসিসিআই। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত পরে বদলানো হয়। টিম ম্যানেজমেন্ট এবং নির্বাচকেরা দাবি করেছিলেন, মাত্র ১টি টেস্টের জন্য মায়াঙ্ককে পরিবর্ত হিসেবে পাঠানোর প্রয়োজন নেই। কারণ শুভমান গিলের কোনও কারণে চোট হলে হনুমা বিহারী ওপেনার হতে পারেন। তবে রোহিতের যে করোনা হয়ে যাবে, সেটা কেউ ভাবতেই পারেননি।

আরও পড়ুন: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট শুরুর আগেই বড় ধাক্কা, করোনায় আক্রান্ত ভারত অধিনায়ক

আরও পড়ুন: একই ম্যাচের ৩টি ইনিংসে দু'দলের হয়ে তিনবার ওপেন করতে নামলেন গিল, ইঙ্গিত স্পষ্ট

ঠিক করা হয়েছিল, ইংল্যান্ডে অনুশীলনের সময়ে বা প্রস্তুতি ম্যাচে কোনও ক্রিকেটার যদি চোট পেয়ে যান, তখন প্রয়োজন মনে হলে মায়াঙ্ককে পাঠানো হবে। তবে মায়াঙ্ককে বেঙ্গালুরুতে থেকে অনুশীলন করতে বলা হয়েছিল। যাইহোক রোহিত করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় এখন তড়িঘড়ি মায়াঙ্ককে ইংল্যান্ডে পাঠাতে হচ্ছে। ১ জুলাই থেকে টেস্ট শুরু হবে।

তবে অনেকেই মনে করছেন, মায়াঙ্ককে যদি আগে পাঠানো হত, তবে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলে তৈরি থাকতে পারতেন তিনি। সেই সুযোগও পেলেন না মায়াঙ্ক। তবে মায়াঙ্ককে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হলেও তিনি একাদশে থাকবেন কিনা, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

মায়াঙ্ক আগরওয়াল শেষ টেস্ট খেলেছিলেন মার্চ মাসে, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে হোম সিরিজে। কিন্তু ২ম্যাচে ১৯.৬৬ গড়ে মাত্র ৫৯ রান করতে পেরেছিলেন। তাঁর পারফরম্যান্সের কথা মাথায় রেখেই তাঁকে একাদশে রাখা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে শুভমন গিলের সঙ্গে কে ওপেন করবেন, সেটাও বড় ভাবনার বিষয়।

বন্ধ করুন