বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs NZ: পর্ক, বিফ বাদ দিয়ে ‘হালাল মাংসের’ পরামর্শ BCCI-র? মুখ খুললেন বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ
কানপুরে অনুশীলনে ভারতীয় দল। (ছবি সৌজন্য, ফেসবুক @IndianCricketTeam)
কানপুরে অনুশীলনে ভারতীয় দল। (ছবি সৌজন্য, ফেসবুক @IndianCricketTeam)

IND vs NZ: পর্ক, বিফ বাদ দিয়ে ‘হালাল মাংসের’ পরামর্শ BCCI-র? মুখ খুললেন বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ

  • নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে কানপুরে প্রথম টেস্টের আগে একাধিক রিপোর্টে দাবি করা হয়, ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের তরফে একটি ডায়েট চার্ট তৈরি করা হয়েছে।

কোনও খেলোয়াড় কী খাবেন, তা ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) নির্ধারণ করে না। সে বিষয়ে বোর্ডের কোনও ভূমিকা নেই। খেলোয়াড়রা কী খাবেন, তা একান্ত তাঁদের সিদ্ধান্ত। বোর্ডের তরফে কোনও তালিকা প্রস্তত করা হয় না। ‘হালাল মাংস’ নিয়ে বিতর্কের মধ্যে একটি সংবাদমাধ্যমে একথা বললেন বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমাল।

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে কানপুরে প্রথম টেস্টের আগে একাধিক রিপোর্টে দাবি করা হয়, ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের তরফে একটি ডায়েট চার্ট তৈরি করা হয়েছে। তাতে ভারতীয় খেলোয়াড়দের হালাল করা মাংস খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। শুয়োর (পর্ক) বা গরুর মাংস (বিফ) এড়িয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে। তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। কেন খেলোয়াড়দের উপর খাবারের ফতোয়া চাপিয়ে দেওয়া হবে, তা নিয়ে একটি মহল থেকে প্রশ্ন তোলা হতে থাকে।

বিতর্ক ক্রমশ বাড়তে থাকার মধ্যে ইন্ডিয়া টুডে'তে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ বলেন, ‘এটা (ডায়েট চার্ট) নিয়ে কখনও আলোচনা হয়নি এবং জোর করে চাপিয়ে দেওয়া হবে না। আমি জানি না যে কখন এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বা আদৌও নেওয়া হয়েছে কিনা। আমি যতদূর জানি, তাতে আমরা কখনও ডায়েট সংক্রান্ত বিষয়ে কোনও নির্দেশিকা জারি করিনি। খাদ্যাভ্যাসের বিষয়টি পুরোপুরি খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত পছন্দের উপর নির্ভর করে। এক্ষেত্রে বিসিসিআইয়ের কোনও ভূমিকা নেই।’ সঙ্গে তিনি যোগ করেছেন, ‘বিসিবিআই কখনও খেলোয়াড়দের পরামর্শ দেয় না যে কী খেতে হবে এবং কী খেতে হবে না। নিজেদের পছন্দের মতো খাবার খাওয়ার ক্ষেত্রে খেলোয়াড়দের স্বাধীনতা আছে। তাঁরা নিরামিষাশী থাকবেন কিনা, সেটা তাঁদের উপর নির্ভর করে। তাঁরা ভেগান হবেন নাকি আমিষ খাবেন, তা পুরোপুরি তাঁদের পছন্দের বিষয়।’

বন্ধ করুন