বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs NZ: তারকারা তো ছিলই না, দলের প্রধান স্পিনারও প্রথম ম্যাচে নেই কিউয়ি দলে

IND vs NZ: তারকারা তো ছিলই না, দলের প্রধান স্পিনারও প্রথম ম্যাচে নেই কিউয়ি দলে

টম লাথাম।

বোল্ট, সাউদি, উইলিয়ামসন দলে নেই। এটি নিউজিল্যান্ডের জন্য নিঃসন্দেহে একটি বিশাল বড় ধাক্কা। তার উপর চোটের জন্য প্রথম ম্যাচে পাওয়া যাবে না ইশ সোধিকেও। সব মিলিয়ে কিছুটা চাপে রয়েছে নিউজিল্যান্ড।

অভিজ্ঞ পেসার টিম সাউদি এবং ট্রেন্ট বোল্টের অনুপস্থিতি নিউজিল্যান্ড স্কোয়াডের কাছে একটি বড় ধাক্কা। তবে কিউয়িদের সর্বনাশ হলেও, ভারতের জন্য নিঃসন্দেহে পৌষ মাস। আর বুধবার প্রথম ওডিআইয়ের আগে স্ট্যান্ড-ইন-অধিনায়ক টম লাথাম বলে দিয়েছেন, ভারত এর জন্য নিঃসন্দেহে লাভবানই হবে।

পাকিস্তানের সফল সফরের পর টিম সাউদি দেশে ফিরে গেলেও, ট্রেন্ট বোল্ট নিউজিল্যান্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বেরিয়ে এসে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আইএলটি-টোয়েন্টি (ILT20) খেলছেন। ব্যাটিং বিভাগে নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকেও পাবে না কিউয়িরা।

আরও পড়ুন: দলে থাকলেও ওপেন করবেন না, কত নম্বরে নামবেন ইশান? পরিষ্কার করলেন রোহিত

মঙ্গলবার ম্যাচের আগে সাংবাদিক সম্মেলনে টম লাথাম বলেন, ‘ওরা (বোল্ট, সাউদি, উইলিয়ামসন) দলে নেই এবং এটি আমাদের জন্য একটি বিশাল বড় ধাক্কা। বড় ফাঁক তৈরি হয়েছে। অন্য দিকে এটি দলে বাকিদের কাছে একটি সুযোগ তৈরি করে দেবে। যারা স্কোয়াডের ঢোকার দাবীদার। স্কোয়াডের প্রত্যেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছে। যা প্লাস পয়েন্ট। এখন ওদের এগিয়ে যাওয়ার পালা। ভাগ্যবান আমাদের লকি ফার্গুসনের মতো প্লেয়ার আছে। যে ভারতে প্রচুর ক্রিকেট খেলেছে।’

ব্লেয়ার টিকনার, ডগ ব্রেসওয়েল এবং হেনরি শিপলিকে নিয়ে গঠিত পেস আক্রমণকে নেতৃত্ব দেবেন লকি ফার্গুসন। এমন কী জানা গিয়েছে যে, সিনিয়র স্পিনার ইশ সোধি প্রথম ওয়ানডে থেকে ছিটকে গিয়েছেন। সোধি মঙ্গলবার নেটে বল করছিলেন। কিন্তু নিজের ছন্দে বল করতে পারেননি। লাথাম তাই বলেছেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত ইশেরও চোট হয়ে গিয়েছে। প্রথম ম্যাচে ওকে পাওয়া যাবে না। তবে আশা করছি, পরের দু'টি ম্যাচে ওকে পাওয়া যেতে পারে।’

আরও পড়ুন: খুব বেশি হলে ৫ কিমি.. উমরানের শোয়েবকে ছাপিয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে সাবধানী প্রাক্তন কোচ

পাকিস্তানের কাছে স্মরণীয় ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জয়ের পর ভারত ওডিআই খেলতে এসেছে নিউজিল্যান্ড। অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে ওডিআই বিশ্বকাপের সময়সূচির কথা মাথায় রেখে লাথাম বলেছেন যে, সিরিজটি অনেক তাৎপর্য হবে। তিনি বলেছেন, ‘আমরা পাকিস্তানে ভালো ক্রিকেট খেলেছি। কয়েক জন ক্রিকেটার এই প্রথম পাকিস্তানের মাটিতে ক্রিকেট খেলল। তা সত্ত্বেও সিরিজ জিতেছি। এখানেও যতটা সম্ভব পরিস্থিতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে চলার চেষ্টা করব। বিশ্বকাপের খুব একটা দেরি নেই। তার আগে এই সিরিজ থেকে যতটা সম্ভব পরিস্থিতি আয়ত্ত করা শিখে নেওয়ার চেষ্টা করব।’

তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘ভারতের পিচ এবং মাঠ সম্ভবত পাকিস্তানের থেকে কিছুটা ভালো হবে। আমরা যখনই ভারত খেলি, সেটি একটি প্রতিযোগিতামূলক সিরিজ হয়ে থাকে।’

বিশ্বকাপের প্রেক্ষাপটে এই সিরিজ নিয়ে লাথাম দাবি করেছেন, ‘বিশ্বকাপের আগে এই কন্ডিশনে খেলার এটাই আমাদের শেষ সুযোগ। বিশ্বকাপ খুব বেশি দূরে নেই। আমরা এই কন্ডিশন থেকে যতটা সম্ভব শিক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করব। ভাগ্যক্রমে দলের বেশির ভাগ প্লেয়ারই ভারতীয় কন্ডিশনে খেলেছে।’

বন্ধ করুন