বাংলা নিউজ > ময়দান > রিভিউ না নিয়ে গিলকে দ্রুত সাজঘরে ফেরনোর সুযোগ হাতছাড়া, কাকে দুষছেন সাইমন ডুল?
হাইলাইটসে স্পষ্ট দেখা যায় শুভমন গিল আউট ছিলেন। ছবি- টুইটার।
হাইলাইটসে স্পষ্ট দেখা যায় শুভমন গিল আউট ছিলেন। ছবি- টুইটার।

রিভিউ না নিয়ে গিলকে দ্রুত সাজঘরে ফেরনোর সুযোগ হাতছাড়া, কাকে দুষছেন সাইমন ডুল?

  • তৎকালীন ছয় রানে ব্যাট করা গিল ৫২ রানের এক সুন্দর ইনিংস খেলেন।

কানপুরে বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) থেকে শুরু হয়েছে ভারত ও নিউজিল্যান্ডের প্রথম টেস্ট। প্রথম দিনের খেলা শেষে ভারতের স্কোর ২৫৮ রান চার উইকেটের বিনিময়ে, যা নিয়ে কোনো দলই খুব অখুশি হবেন না। তবে ম্যাচের প্রথম সেশনেই এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে আলাপ-আলোচনা। 

দিনের শুরুর দিকেই আজাজ প্যাটেলের বলে মাত্র ছয় রানে ব্যাট করা শুভমন গিলকে আউট করার ভাল সুযোগ পেয়ে গিয়েছিল। আজাজের বলে আগ্রাসী ভঙ্গিমায় ক্রিজে এগিয়ে এলেও শুভমন বল ডিফেন্ড করার তালে তা মিস করে বসেন। বল গিয়ে লাগে তাঁর প্যাডে। কিউয়ি দল আপিল করলেও রিভিউয়ের সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে পরবর্তীকালে গিল যে স্পষ্ট আউট ছিলেন, তা জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখাতেই হতাশ আজাজ ঘাড় নাড়ান। গিলও নিজের চতুর্থ টেস্ট অর্ধশতরান পূর্ণ করে ৫২ রানে আউট হন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই আলোপ আলোচনা।

টেস্টে ধারাভাষ্যকারের ভূমিকায় থাকা সাইমন ডুল রিভিউ নেওয়া উচিত ছিল মনে করলেও কিন্তু এরজন্য অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে দোষারোপ করতে নারাজ। মধ্যাহ্নভোজের সময় Star Sports-র আলোচনাসভায় তিনি বলেন, ‘ওটা ভুল হলেও ওদের কাছে আরও দুটো রিভউ থাকত। এক্ষেত্রে সুযোগ ছিল উইকেট পাওয়ার। হ্যাঁ, ও ক্রিজে কতটা এগিয়ে এসছিল সেটা একটা ভাবনার বিষয় ছিল নিশ্চয়ই। তবে এই পিচে ওই বল যে উইকেটের ওপর দিয়ে যেত না, তা নিশ্চিত। এখানে খুব শর্ট বল না করলে তা উইকেটের ওপর দিয়ে যাবে না। এক্ষেত্রে ওরা নবাগত টম ব্লান্ডেলের (উইকেটকিপার) ওপর নির্ভরশীল ছিল। হয়তো দ্বিধাগ্রস্ত থাকায় রিভিউ নেয়নি। তবে এর জন্য কোনোভাবেই অধিনায়ককে দোষারোপ করা যায় না।’

আরেক ধারাভাষ্যকার ইরফান পাঠানও এখানে গিল ক্রিজে কতটা এগিয়ে এসেছে, তা নিয়ে কিউয়িদের মনে সন্দেহ ছিল বলেই মনে করছেন। ‘আজাজ খুব উঁচু থেকে বল ছোঁড়ে না। আম্পায়ারদের চিন্তাধারাও নতুন নতুন প্রস্তুতি আসায় বদলেছে। ওদের রিভিউ নেওয়া উচিত ছিল। আম্পায়াররা এখন এমন ক্ষেত্রে আউট দেয়।’ মত প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটারের।

বন্ধ করুন