বাংলা নিউজ > ময়দান > অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডে চমকে দেওয়া ভারত হঠাৎ কেন আছড়ে পড়ল মাটিতে? কোচ-ক্যাপ্টেন বদলেই কি প্রোটিয়া সফরে ভরাডুবি?
আউট হয়ে সাজঘরে ফিরছেন কোহলি। ছবি- রয়টার্স (REUTERS)
আউট হয়ে সাজঘরে ফিরছেন কোহলি। ছবি- রয়টার্স (REUTERS)

অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডে চমকে দেওয়া ভারত হঠাৎ কেন আছড়ে পড়ল মাটিতে? কোচ-ক্যাপ্টেন বদলেই কি প্রোটিয়া সফরে ভরাডুবি?

  • কোহলির নেতৃত্ব নিয়ে বিতর্কই কি প্রভাব ফেলে ভারতীয় দলের পারফর্ম্যান্সে? চোখ রাখুন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ভারতের ব্যর্থতার সম্ভাব্য পাঁচটি কারণে।

অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ জেতা, ইংল্যান্ডে গিয়ে জো রুটদের কড়া টক্কর দেওয়া টিম ইন্ডিয়া এবার দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে চূড়ান্ত ব্যর্থ। অথচ বিশেজ্ঞদের ধারণা ছিল, এবার দক্ষিণ আফ্রিকা কার্যত পাত্তাই পাবে না বিরাট কোহলিদের সামনে।

সেই ধারণা ভেঙে চুরমার হয়ে যায় সফরের শেষে। ভারত ১টি মাত্র টেস্ট ম্যাচে জয় ছাড়া প্রোটিয়া সফরে বাকি ৫টি ম্যাচ (২টি টেস্ট ও ৩টি ওয়ান ডে) হেরে বসে। কিন্তু কী এমন হল যে, নাটকীয়ভাবে ভারতের গগনচুম্বী পারফর্ম্যান্স গ্রাফ হঠাৎ করে মাটিতে আছড়ে পড়ে? দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টিম ইন্ডিয়ার ভরাডুবির কারণ খুঁজতে গেলে যে বিষয়গুলি সবার আগে সামনে উঠে আসে, দেখে নেওয়া যাক একনজরে।

প্রথমত, কোহলির ওয়ান ডে ক্যাপ্টেন্সি কেড়ে নেওয়া নিয়ে বিতর্ক নেতিবাচক প্রভাব ফেলে দলের মানসিকতায়। কোহলি স্বেচ্ছায় টি-২০ ক্যাপ্টেন্সি ছেড়েছেন। তবে নির্বাচকরা কোহলিকে ওয়ান ডে ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরিয়ে দেন, যা মোটেও ভালোভাবে নেননি বিরাট। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে উড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে কোহলি রীতিমতো বোমা ফাটান এবং বিসিসিআই সভাপতি ও জাতীয় নির্বাচকদের কার্যত কাঠগড়ায় তোলেন। যা নিয়ে কোহলি ও বিসিসিআই, দু-পক্ষের স্পষ্ট টানাপোড়েন চোখে পড়ে। গোটা বিষয়টা নিয়ে এতটাই জলঘোলা হয় যে, দলের পারফর্ম্যান্সে তার প্রভাব পড়া অবধারিত ছিল।

দ্বিতীয়ত, রোহিত শর্মার সঙ্গে কোহলির পারস্পরিক দ্বন্দ্ব নিয়ে আলোচনাও নিতান্ত কম হয়নি। রোহিতের নেতৃত্বে বিরাট মাঠে নামতে চান না বলে খবর ছড়িয়ে পড়ে। শেষমেশ কোহলি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ওয়ান ডে সিরিজে মাঠে নামলেও রোহিত চোটের জন্য ছিটকে যান দল থেকে। তবে দলের দুই সিনিয়রের সম্পর্কের ফাটল নিয়ে এমন আলোচনা জুনিয়রদের বিভ্রান্ত করাই স্বাভাবিক।

তৃতীয়ত, প্রথমে কোচ বদলের ঘটনায় ক্যাপ্টেন কোহলির সুখী গৃহকোণে থাকার ছবিটায় দাঁড়ি পড়ে। তার উপর নেতৃত্বের হাতবদল মসৃণ না হওয়ায় দলের মধ্যে একজোট হয়ে লড়াইয়ের মানসিকতাটাই চোখে পড়েনি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে।

চতুর্থত, লোকেশ রাহুল ক্যাপ্টেন হিসেবে নিতান্ত অনভিজ্ঞ। তাঁর বেশ কিছু সিদ্ধান্তেই সেটা বোঝা গিয়েছে। লোকেশ সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে না পারায় দলের ক্রিকেটারদের যথাযথ উদ্দীপ্ত করা সম্ভব হয়নি তাঁর পক্ষে।

পঞ্চমত, ব্যাটিং ও বোলিং বিভাগকে একজোট হতে দেখা যায়নি মোটেও। দু-একজন ভালো ব্যাট করলে বাকিরা তাঁদের সঙ্গত করতে ব্যর্থ। দায়িত্বজ্ঞানহীন শট খেলে আউট হতে দেখা গিয়েছে অনেককেই। বিশেষ করে বোলিং লাইন-আপকে পরিচিত ছন্দে দেখায়নি। যার ফলে জয়ের সুযোগ তৈরি হওয়া সত্ত্বেও সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি টিম ইন্ডিয়া।

বন্ধ করুন