বাংলা নিউজ > ময়দান > BCCI কি কোহলির মুখ বন্ধ করতে চাইছে? চেনা ছবি হঠাৎ বদলে যাওয়ায় সংশয় প্রকাশ বিরাটের ছেলেবেলার কোচের
বিরাট কোহলি। ছবি- টুইটার।
বিরাট কোহলি। ছবি- টুইটার।

BCCI কি কোহলির মুখ বন্ধ করতে চাইছে? চেনা ছবি হঠাৎ বদলে যাওয়ায় সংশয় প্রকাশ বিরাটের ছেলেবেলার কোচের

  • লোকেশকে দেখা যাচ্ছে, দ্রাবিড়কে দেখা যাচ্ছে, তবে কোহলিকে দেখা যাচ্ছে না কেন? বিস্ময় প্রকাশ করলেন রাজকুমার শর্মা।

গুরুত্বপূর্ণ সফরের আগেই হোক অথবা নির্দিষ্ট কোনও ম্যাচের আগে-পরে, বিরাট কোহলি কখনও সাংবাদিক সম্মেলনে আসতে পিছপা হননি। সাংবাদিকদের বিষাক্ত প্রশ্নের উত্তর দিতেও কখনও কুণ্ঠাবোধ করেননি তিনি। স্পষ্ট কথা স্পষ্টভাবেই বলেন, তাতে বিতর্ক তৈরি হবে কিনা, তা নিয়ে বিশেষ মাথা ব্যথা থাকে না ভারত অধিনায়কের।

তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের শুরু থেকে সাংবাদমাধ্যমের সামনে আসছেন না কোহলি। বিষয়টা নিয়ে খটকা লাগছে তাঁর ছেলেবেলার কোচ রাজকুমার শর্মার। কোহলি তো লুকিয়ে থাকার পাত্র নন! তাহলে কি কোনও নিয়ম বদল হয়েছে? KhelNeeti-তে কথা বলার সময় এমন সংশয় প্রকাশ করেন রাজকুমার।

তাঁর কথায়, ‘বুঝতে পারছি না এর (কোহলির সাংবাদিক সম্মেলনে না আসার) কারণ কী হতে পারে। আমার মনে হয় কে সাংবাদিক সম্মেলনে আসবে, তা নিয়ে বিসিসিআই কোনও নতুন নিয়ম জারি করেছে। অথবা মিডিয়া ম্যানেজারকে হয়ত বাড়তি ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে কাকে সাংবাদিক সম্মেলনে পাঠানো হবে, তা ঠিক করার।’

কোহলির কোচ আরও বলেন, ‘ক্যাপ্টেনকে কেন দু’টি ম্যাচের আগে ও পরে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়নি, তার নিশ্চই কিছু কারণ রয়েছে। হঠাৎ কেন এমন পরিবর্তন হল, বা আদৌ কোনও বদল হয়েছে কিনা তা বলা মুশকিল। হতে পারে এটা কাকতলীয়।'

টিম ম্যানেজমেন্ট কোহলিকে আড়াল করতে চাইছে কিনা এমন প্রসঙ্গ উত্থাপন করা হলে রাজকুমার বলেন, ‘তাই যদি হতো, তবে দ্বিতীয় ম্যাচের আগেও লোকেশ রাহুলকে দেখা যেত। তবে লোকেশ রাহুলও আসেনি। তার মানে হয়ত এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, ক্যাপ্টেনের বদলে কোচ কথা বলবেন। তবে কোচ এলেও তাতে অসুবিধার কিছু নেই।’

শেষে তিনি বলেন, ‘মিডিয়া ম্যানেজার নিজে এতবড় সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। আগে ক্যাপ্টেন আসত, এখন আসছে না, এটা একটু অবাক করার বিষয় বটে।’

উল্লেখ্য, সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের আগে সাংবাদিক সম্মেলনে এসেছিলেন লোকেশ রাহুল। ম্যাচের শেষে সাংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন কোচ দ্রাবিড়। কোচ দ্রাবিড়কেই জোহানেসবার্গ টেস্টের আগে-পরে সাংবাদিক সম্মেলনে আসতে দেখা যায়। রাজকুমার সম্ভবত ইঙ্গিত করতে চাইলেন যে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে উড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিক সম্মেলনে বোর্ড সভাপতিকে নিয়ে বোমা ফাটানোর জন্যই হয়ত কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না বিরাটকে।

বন্ধ করুন