বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs SL: T20I থেকে সরে দাঁড়াবেন? লঙ্কার বিরুদ্ধে ODI-এ ওপেনার কে? সোজাসাপ্টা জবাব রোহিতের

IND vs SL: T20I থেকে সরে দাঁড়াবেন? লঙ্কার বিরুদ্ধে ODI-এ ওপেনার কে? সোজাসাপ্টা জবাব রোহিতের

রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে রোহিত শর্মা।

রোহিত শুধুমাত্র ওডিআই এবং টেস্টে নেতৃত্ব দেবেন, টি-টোয়েন্টিতে নয়, এমন চর্চাও তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। এ সবের মাঝেই ৩৫ বছরের ভারত অধিনায়ক নিজের টি-টোয়েন্টি ভবিষ্যত নিয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, এই ফরম্যাটে তিনি ‘হাল ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেননি’।

রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিদের টি-টোয়েন্টি ভবিষ্যত নিয়ে জোর জল্পনা চলছে। জাতীয় দলের হয়ে তাদের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার কি শেষ? প্রশ্নটা ভারতীয় ক্রিকেটে আর সীমাবদ্ধ নেই, ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্ব ক্রিকেটে।

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি সিরিজে রোহিত শর্মা খেলতে পারেননি। আঙুলের চোটের জন্য তিনি টি-টোয়েন্টি সিরিজ মিস করেছেন। আর এই সিরিজে হার্দিক পাণ্ডিয়াকে অধিনায়ক করা হয়েছিল।

তবে রোহিত শুধুমাত্র ওডিআই এবং টেস্টে নেতৃত্ব দেবেন, টি-টোয়েন্টিতে নয়, এমন চর্চাও তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। এ সবের মাঝেই ৩৫ বছরের ভারত অধিনায়ক মঙ্গলবার থেকে শুরু হতে চলা শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজের আগে, নিজের টি-টোয়েন্টি ভবিষ্যত নিয়ে মুখ খুলেছেন। তিনি পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, এই ফরম্যাটে তিনি ‘হাল ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেননি’।

আরও পড়ুন: ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের জন্য ৩৩ বছরেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন প্রিটোরিয়াস

সোমবার সংবাদিকদের রোহিত বলেছেন, ‘প্রথমত ব্যাক-টু-ব্যাক ম্যাচ খেলা সম্ভব নয়। আপনাকে (সব ফরম্যাটের খেলোয়াড়দের) পর্যাপ্ত বিরতি দিতে হবে। আমি অবশ্যই সেই দলেই পড়ি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমাদের তিনটি টি-টোয়েন্টি রয়েছে। আমরা দেখব, আইপিএলের পর কী হয়। আমি এই ফরম্যাটে না খেলার সিদ্ধান্ত এখনও নিইনি।’

প্রথম ওডিআইয়ের ঠিক আগে কেন বুমরাহকে আবার ওডিআই সিরিজ থেকে বাদ দেওয়া হয়, এর কারণ হিসেবে রোহিত বলেছেন, ‘জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির নেটে বোলিং করার সময় জসপ্রীত বুমরাহ স্টিফনেস অনুভব করেছিল।’

আরও পড়ুন: সচিন, ভিভদের দেখেছি, ওর মতো ব্যাটার শতাব্দীতে একবারই আসে- কার দক্ষতায় মুগ্ধ কপিল?

ভারত অধিনায়ক বলেছেন যে, গুয়াহাটিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রথম ওয়ানডেতে শুভমান গিল তাঁর ওপেনিং পার্টনার হবেন। তিনি বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনক যে, আমরা ইশান কিষাণকে খেলাতে পারব না। আমাদের গিলকে একটি ন্যায্য সুযোগ দিতে হবে।’

ওয়ানডে সিরিজে অভিজ্ঞ রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, কেএল রাহুল এবং শ্রেয়স আইয়ারের প্রত্যাবর্তন নিঃসন্দেহে দলের শক্তি বাড়াবে। এই বছর ভারতের ঠাঁসা ওডিআই ম্যাচের সূচি রয়েছে। এশিয়া কাপ বাদে ১৫টি ম্যাচ খেলবে ভারত।

অক্টোবর-নভেম্বরে বিশ্বকাপের জন্য নিজেদের তৈরি করতে ১০ মাস মতো সময় আছে। শুধু দলের ভারসাম্য ঠিক রাখা নয়, কাজের চাপও সমালাতে হবে ভারতীয় দলকে। এ ছাড়াও ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ এবং অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজও রয়েছে। সব চাপটাই সুষ্ঠ ভাবে সামলাতে হবে টিম ইন্ডিয়ার ক্রিকেটারদের।

বন্ধ করুন