বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs SL: কোহলি তাঁর রেকর্ড স্পর্শ করায় উচ্ছ্বসিত সচিন, কী বললেন জানেন?

IND vs SL: কোহলি তাঁর রেকর্ড স্পর্শ করায় উচ্ছ্বসিত সচিন, কী বললেন জানেন?

বিরাট কোহলি এবং সচিন তেন্ডুলকর।

ঘরের মাঠে এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সচিনের শতরানের সংখ্যা ২০। গুয়াহাটিতে সচিনের এই নজির স্পর্শ করেন বিরাট। দেশের মাটিতে ২০টি শতরান হল ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কের। 
  • ভারত-শ্রীলঙ্কা ওডিআই ক্রিকেটে সব থেকে বেশি শতরানের কৃতিত্ব এত দিন যৌথ ভাবে ছিল সচিন এবং কোহলির দখলে। এ বার সচিনকে ছাপিয়ে গেলেন বিরাট।
  • শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে গুয়াহাটিতে প্রথম এক দিনের ম্যাচে দুরন্ত সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন বিরাট কোহলি। সেই সঙ্গে তিনি ছাপিয়ে গিয়েছেন সচিন তেন্ডুলকরকেও। ভারতের ৩৭৩ রানের ইনিংসে কোহলির ৮৭ বলে ১১৩ রান নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে।

    ঘরের মাঠে এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সচিনের শতরানের সংখ্যা ২০। ঘরের মাঠে ১৬৪টি এক দিনের ম্যাচ খেলেছিলেন সচিন। তাঁর এই বিশ্বরেকর্ড থেকে মাত্র একটি শতরান দূরে ছিলেন কোহলি। গুয়াহাটিতে সচিনের নজির স্পর্শ করলেন তিনি। দেশের মাটিতে ২০টি শতরান হল ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কের। তাও মাত্র ১০২টি ম্যাচ খেলে।

    আরও পড়ুন: আদৌ কি ১৫৬ কিমিতে বল করেছিলেন উমরান? বিভ্রান্ত সম্প্রচারকারীরা

    অন্য একটি পরিসংখ্যানে সচিনকে ছাপিয়ে গিয়েছেন কোহলি। ভারত-শ্রীলঙ্কা এক দিনের ক্রিকেটের লড়াইয়ে সব থেকে বেশি শতরান করার কৃতিত্ব এত দিন যৌথ ভাবে সচিন এবং কোহলির দখলে ছিল। দু’জনেই আটটি করে শতরান করেছিলেন। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সচিন ৮৪টি একদিনের ম্যাচে আটটি শতরান করেছিলেন। গুয়াহাটিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে নিজের নবম শতরান করলেন কোহলি। তার জন্য তিনি নিয়েছেন মাত্র ৪৮টি ম্যাচ। সেই সঙ্গে টপকে গিয়েছেন সচিনকে।

    আরও পড়ুন: রোহিতের রানে ফেরা, কোহলির চেনা মেজাজ- এ সবের মধ্যে চিন্তায় রাখবে বোলিং, ফিল্ডিং

    কোহলির এই ইনিংসের পর উচ্ছ্বসিত সচিনও। সঙ্গে তিনি ভারতের টপ অর্ডারকেও কৃতিত্ব দিয়েছেন। তিনি টুইট করে লিখেছেন, ‘এই ভাবে পারফর্ম করতে থাকো, বিরাট। ভারতের মাথা উঁচু করো। টপ অর্ডারে দুর্দান্ত ব্যাটিং পারফরম্যান্স! #INDvSL @imVkohli @ImRo45 @ShubmanGill’।

    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৭৩তম শতরান করে ফেললেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে বুধবার ৮০ বলে শতরান করলেন বিরাট। যদিও এই ইনিংসে দু’বার তাঁর সহজ ক্যাচ ফেলে শ্রীলঙ্কা। বিরাট ম্যাচের শেষে বলেও ফেলেন, ‘ভাগ্যিস ক্যাচ দু'টো পড়েছিল। আমি চাইব, এ রকম ক্যাচ আরও পড়ুক। এ রকম ইনিংস খেলতে হলে ভাগ্যের সাহায্য একটু প্রয়োজন।’

    সেই সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘আমি কিছু দিনের ছুটি নিয়েছিলাম। এই ম্যাচ খেলার আগে দু’টি মাত্র অনুশীলন সেশনে নেমেছিলাম। তাই বাংলাদেশ সফরের পর আমি বেশ তরতাজা ছিলাম। ঘরের মাঠে খেলার জন্য মুখিয়ে ছিলাম। ওপেনাররা রান করে আমাকে নিজের মতো খেলার সুযোগটা করে দিয়েছিল। ভালো লাগছে শেষ পর্যন্ত আমরা রানের গতিটা ধরে রাখতে পেরেছিলাম বলে।’

    বন্ধ করুন