বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs SL: হুডার বিতর্কিত নট আউট সিদ্ধান্তে বিরক্ত লঙ্কা শিবির- ভিডিয়ো প্রকাশ্যে
হুডার বিতর্কিত আউটের সিদ্ধান্ত নিয়ে সরব শ্রীলঙ্কা শিবির।

IND vs SL: হুডার বিতর্কিত নট আউট সিদ্ধান্তে বিরক্ত লঙ্কা শিবির- ভিডিয়ো প্রকাশ্যে

  • হুডাকে প্রথমে আউট না দেওয়া হলেও, শ্রীলঙ্কার খুব একটা ক্ষতি হয়নি। কারণ হুডা তো খেলতেই পারেননি। ৪ বলে ৩ রান করে মাদুশঙ্কার বলে ক্লিন বোল্ড হয়ে যান তিনি। ভারত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান করে। যা যথেষ্ট প্রমাণিত হয়নি। কারণ শ্রীলঙ্কা এক বল বাকি থাকতেই ছয় উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয়।

মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ম্যাচে ভারতের অলরাউন্ডার দীপক হুডা ক্যাচ দিলেও, তৃতীয় আম্পায়ার নট আউটের সিদ্ধান্ত দেন। কারণ তিনি সেই বলটি অনেকটা উঁচু দিয়ে যাওয়ার কারণে নো-বল কল করেন। স্বভাবিক ভাবেই প্রাণে বেঁচে যান দীপক হুডা। আর আম্পায়ারের এই সিদ্ধান্তকে ঘিরে তীব্র অসন্তুষ্ট হয় শ্রীলঙ্কা। শুরু হয় বিতর্কও।

ঘটনাটি ঘটেছিল ভারতীয় ইনিংসের ১৮তম ওভারে, যখন হুডা একটি শর্ট বল থার্ডম্যানে দাঁড়িয়ে থাকা ফিল্ডারের হাতে ক্যাচ দেন। তবে হুডা তৃতীয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। যাইহোক নটআউট হওয়ার সিদ্ধান্তে তিনি প্রাণ ফিরে পান বটে, তবে সেই সুযোগ তিনি কাজে লাগাতে পারেননি।

আরও পড়ুন: দু'টি খারাপ ম্যাচ দেখে বিচার করবেন না-ক্যারিয়ারের কঠিন মুহূর্তে ভুবির পাশে রোহিত

বলটি দেখেই প্রত্যেকের মনে প্রশ্ন উঠেছিল যে, এটি কাঁধের উপরে ছিল কিনা! এবং রিপ্লেতে সেটা ঠিক বলেই প্রমাণিত হয়েছে। বলটি কাঁধের উপরে ছিল। এবং সেটি যুক্তিসঙ্গত কারণেই নো-বল হয়েছে।

এই সিদ্ধান্তে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। যদিও কেউ কেউ এটিকে একটি ন্যায্য আহ্বান বলে মনে করেছিলেন। অনেকেই আবার দাবি করেছিলেন, এটি আউটই ছিল। লঙ্কান ড্রেসিং রুমের সেই সময়কার একটিও ভিডিয়ো প্রকাশ্যে এসেছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, এই সিদ্ধান্তে দৃশ্যত বিরক্ত ছিল লঙ্কার প্লেয়ার এবং কোচিং স্টাফেরা। প্রধান কোচ ক্রিস সিলভারউডকে সিদ্ধান্তের পরপরই তৃতীয় আম্পায়ারের সঙ্গে একটি অ্যানিমেটেড চ্যাট করতে দেখা গিয়েছে। সিলভারউডের সঙ্গে শ্রীলঙ্কা স্কোয়াডের কিছু সদস্য তাদের বিরক্তিও প্রকাশ করেছিলেন।

তবে এই সিদ্ধান্তে শ্রীলঙ্কার খুব একটা ক্ষতি হয়নি। কারণ হুডা তো খেলতেই পারেননি। ৪ বলে ৩ রান করে মাদুশঙ্কার বলে ক্লিন বোল্ড হয়ে যান তিনি। ভারত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান করে। যা যথেষ্ট প্রমাণিত হয়নি। কারণ শ্রীলঙ্কা এক বল বাকি থাকতেই ছয় উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয়।

আরও পড়ুন: বাবরের সিংহাসন ছিনিয়ে নিলেন তাঁরই সতীর্থ, পিছিয়ে পড়লেন সূর্য

একমাত্র রোহিত শর্মা ৭২ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন। যা ভারতকে ১৭০-এর উপর স্কোর করতে সাহায্য করে। তবে তাঁর এই প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করে দেন লঙ্কার দুই ওপেনার পাথুম নিশঙ্কা এবং কুশল মেন্ডিস। তাঁরা দু'জনেই অর্ধশতরান করেন। এবং শ্রীলঙ্কার জয়ের পথ মসৃণ করেন। তাঁদের হাত ধরেই ১১ ওভারে ৯৭ রানের বিস্ফোরক সূচনা করে শ্রীলঙ্কা। পরে, ভানুকা রাজাপক্ষে এবং দাসুন শনাকা যথাক্রমে ২৫ এবং ৩৩ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। তাঁরা ৬৪ রানের অপরাজিত পার্টনারশিপ গড়ে।

বন্ধ করুন