বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs WI: ম্যাচ জিতে হাঁফ ছাড়়লেন পুরান, হালকা সতর্ক বার্তা দিলেন ম্যাচের সেরা ম্যাকয়কে
রোহিত শর্মার সঙ্গে নিকোলাস পুরান।

IND vs WI: ম্যাচ জিতে হাঁফ ছাড়়লেন পুরান, হালকা সতর্ক বার্তা দিলেন ম্যাচের সেরা ম্যাকয়কে

  • ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারত আসার পর, একদিনের সিরিজে ৩-০ হোয়াইটওয়াশ হয়েছে ক্যারিবিয়ানরা। এর পর প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও হেরেছিলেন নিকোলাস পুরানরা। টানা চার ম্যাচ হারের পর অবশেষে সোমবার ঘুরে দাঁড়াল ক্যারিবিয়ান ব্রিগেড। ম্যাচ জিতে সিরিজে ১-১ সমতা ফিরিয়েছে উইন্ডিজ।

ফের ব্যর্থ হল ব্যাটিং লাইন আপ। ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের দাপটে ভারত যেন একেবারে দুমড়ে মুচড়ে গেল। যার নিটফল, উইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে হারতে হল ভারতকে। ৪ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেটে জয় ছিনিয়ে নেয় ক্যারিবিয়ান ব্রিগেড।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারত আসার পর, একদিনের সিরিজে ৩-০ হোয়াইটওয়াশ হয়েছে ক্যারিবিয়ানরা। এর পর প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও হেরেছিলেন নিকোলাস পুরানরা। টানা চার ম্যাচ হারের পর অবশেষে সোমবার ঘুরে দাঁড়াল ক্যারিবিয়ান ব্রিগেড। ম্যাচ জিতে সিরিজে ১-১ সমতা ফিরিয়েছে উইন্ডিজ। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক নিকোলাস পুরান যেন এই ম্যাচে জয়ে ফিরে হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন।

ম্যাচের পর পুরান বলেওছেন, ‘আমি যেন হাঁফ ছেড়ে বাঁচলাম। এটা খুবই কঠিন সময় যাচ্ছিল। আমরা বেশি কিছু ম্যাচে, জয়ের কাছাকাছি পৌঁছেও লড়াই করে হেরেছি। সেই জায়গাটা ভাঙতে পেরে আমরা খুশি। বোলাররা অসাধরাণ ছিল। বিশেষ করে ওবেদ ম্যাকয়ে। ওরা পিচ, হাওয়া এবং পরিস্থিতির সঠিক ব্যবহার করেছে। ’

আরও পড়ুন: অসুস্থ মায়ের জন্যই এই পারফরম্যান্স- ৬ উইকেট নিয়ে নজির গড়েও মন খারাপ ম্যাকয়ের

এর পাশাপাশি ব্যাটারদেরও প্রশংসা করে উইন্ডিজ অধিনায়ক বলেছেন, ‘ব্যাটাররা শুরুটা ভালো করেছিল। তবুও কিছুটা হোঁচট খেয়েছি। তবে দিনের শেষে জয়টাই আসল। আমি বিশ্বাস করি যে, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমাদের ভালো ব্যাটারদের বেশি ব্যাটিং করতে হবে। হেতমায়েরের দিনটা ভালো ছিল না। তবে আমাদের দায়িত্ব নিয়ে লড়াই করা চালিয়ে যেতে হবে। কিং সত্যিই ভালো ব্যাটিং করেছে। ভেবেছিল আমাদের ম্যাচ জিতিয়েই ফিরবে ও। সেটা হয়নি। তবে ও এখান থেকে শিখবে। থমাস চোট সারিয়ে ফিরে ওর ঘরের মাঠে দারুণ পারফরম্যান্স করেছেন।’

আরও পড়ুন: পরীক্ষা করার জন্য আবেশকে শেষ ওভার, হারের পর ব্যাখ্যা রোহিতের

এর সঙ্গেই ম্যাকয়েকে কিছুটা সতর্ক করে পুরান বলেছেন, ‘ম্যাকয়ে কিছুটা খামখেয়ালি, এবং আমাদের ওর এই স্বভাবের সঙ্গে মোকাবিলা করতে হবে। কিন্তু আজ ও দুর্দান্ত ছিল।’

দ্বিতীয় ম্যাচে টসে জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথমে ব্যাট করে ১৯.৪ ওভারে ১৩৮ রানে অল আউট হয়ে যায় ভারত। ওবেদ ম্যাকয়ের বোলিংয়ে একেবারে ল্যাজেগোবরে হয় ভারতের ব্যাটিং অর্ডার। রোহিত (০) ছাড়াও সূর্যকুমার যাদব (১১), রবীন্দ্র জাদেজার (২৭), দীনেশ কার্তিক (৭), রবিচন্দ্রন অশ্বিন (১০), ভুবনেশ্বর কুমারকে (১) ফেরান তিনি। মোট ৬ উইকেট নেন।

এ দিন ভারতের হয়ে কেউ হাফ সেঞ্চুরিও করতে পারেননি। সর্বোচ্চ রান করেছেন হার্দিক পাণ্ডিয়া। তাঁর সংগ্রহ ৩১। বাকিদের অবস্থা তথৈবচ। ৪০ রানে ৩ উইকেট আর ৬১ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে বসেছিল ভারত। তার পর টিম ইন্ডিয়ার ইনিংস ১৩৮ রানে শেষ হয়ে যায়।

জবাবে ব্যাট করতে নামলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ চার বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেটে ম্যাচ পকেটে পুড়ে ফেলে। সেই সঙ্গে সিরিজে ১-১ সমতা ফেরায়। ভারতীয় বোলাররা যে খুব বেশি প্রভাব বিস্তার করতে পেরেছিল, তা নয়। ওপেন করতে নেমে ব্রেন্ডন কিং-এর ৫২ বলে ৬৮ রান ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের ভিত মজবুত করে। এ ছাড়া ডেভন থমাস ১৯ বলে অপরাজিত ৩১ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেন। ১৯.২ ওভারে ৫ উইকেটে ১৪১ করে ম্যাচ জিতে যায় ক্যারিবিয়ান ব্রিগেড।

বন্ধ করুন