বাংলা নিউজ > ময়দান > ফের হাফ-সেঞ্চুরি হনুমা বিহারীর, লড়াকু অর্ধশতরান বাংলার অভিমন্যু ঈশ্বরনের
হাফ-সেঞ্চুরি অভিমন্যুর। ছবি- বিসিসিআই।
হাফ-সেঞ্চুরি অভিমন্যুর। ছবি- বিসিসিআই।

ফের হাফ-সেঞ্চুরি হনুমা বিহারীর, লড়াকু অর্ধশতরান বাংলার অভিমন্যু ঈশ্বরনের

  • দুই ইনিংস মিলিয়ে ৬টি উইকেট নেন ইশান পোড়েল।

প্রথম ম্যাচের মতো দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভারতীয়-এ দলের চার দিনের দ্বিতীয় বেসরকারী টেস্টেও ড্র হল। তবে এই ম্যাচে ব্যাট হাতে যেরকম পারফর্ম্যান্স উপহার দিলেন হনুমা বিহারী, তা জাতীয় নির্বাচকদের উপেক্ষার জবাব দেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজে হনুমা বিহারীকে বাদ দেন নির্বাচকরা। তবে ভারতীয় এ-দলের হয়ে যেরকম ব্যাটিং করলেন, তাতে আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের টেস্ট স্কোয়াড থেকে বিহারীকে দূরে সরিয়ে রাখা মুশকিল হবে নির্বাচকদের পক্ষে।

অন্যদিকে, ভারতীয় এ-দলের হয়ে বরাবর দুরন্ত পারফর্ম্যান্স মেলে ধরেন অভিমন্যু ঈশ্বরন। সেই ধারাবাহিকতা তিনি বজায় রাখলেন দ্বিতীয় ম্যাচেও। প্রথম টেস্টে অনবদ্য শতরান করেছিলেন অভিমন্যু। দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে খাতা খুলতে না পারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে লড়াকু হাফ-সেঞ্চুরি করেন বাংলার তরুণ ব্যাটসম্যান।

দক্ষিণ আফ্রিকার ২৯৭ রানের জবাবে ভারতীয়-এ দল তাদের প্রথম ইনিংস শেষ করে ২৭৬ রানে। প্রথম ইনিংসের নিরিখে ২১ রানে এগিয়ে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা-এ দল দ্বিতীয় ইনিংসে অল-আউট হয়ে যায় ২১২ রানে। জয়ের জন্য ২৩৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা সামনে নিয়ে শেষ ইনিংসে ব্যাট করতে নামা ভারতীয় দল ৩ উইকেটে ১৫৫ রান তুললে ম্যাচ ড্র ঘোষিত হয়।

পৃথ্বী শ ১৮ রানে আউট হন। খাতা খুলতে পারেননি প্রিয়ঙ্ক পাঞ্চাল। অভিমন্যু ৭টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১১৭ বলে ৫৫ রান করে আউট হন। হনুমা বিহারী ১২টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১১৬ বলে ৭২ রান করে অপরাজিত থাকেন। হনুমা প্রথম ইনিংসে ৫৪ রান করেছিলেন। বাংলার ইশান পোড়েল দুই ইনিংসেই ৩টি করে উইকেট দখল করেন।

বন্ধ করুন