বাংলা নিউজ > ময়দান > India vs Australia 2020: রাহুলকে না খেলিয়ে কেন দ্বিতীয় টেস্টে পন্থ-জাদেজায় ভরসা ভারতের?
মেলবোর্নে খেলবেন জাদেজা এবং পন্থ। (ফাইল ছবি)
মেলবোর্নে খেলবেন জাদেজা এবং পন্থ। (ফাইল ছবি)

India vs Australia 2020: রাহুলকে না খেলিয়ে কেন দ্বিতীয় টেস্টে পন্থ-জাদেজায় ভরসা ভারতের?

  • চার পরিবর্তনেও কে এল রাহুল সুযোগ পেলেন না।

শুভব্রত মুখার্জি

অ্যাডিলেড টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংস চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, পিচে একটু বেশি বাউন্স আর বল অল্পস্বল্প সিম-সুইং হলেই কী দশা হতে পারে বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্যাটিং লাইন-আপের। একের পর এক ব্যাটসম্যান ড্রেসিংরুম থেকে ২২ গজে এসেছেন, আর আউট হয়ে ফিরে গেছেন পরমুহূর্তেই। ফলস্বরূপ ৩৬ রানের লজ্জার সম্মুখীন হতে হয়েছে ভারতকে। এই আবহেই আগামিকাল থেকে মেলবোর্নে শুরু হচ্ছে বক্সিং ডে টেস্ট।

শুক্রবার সকালেই সেই টেস্টের প্রথম একাদশ ঘোষণা করেছেন আজিঙ্কা রাহানেরা। সেই একাদশে চারটি পরিবর্তন করেছে ভারত। তবে এতগুলো পরিবর্তন হলেও বিশেষজ্ঞদের অন্যতম ফেভারিট কেএল রাহুলের জায়গা হয়নি। এমনকী প্রথম একাদশ বাছাইয়ের আগে স্বয়ং সুনীল গাভাসকর রাহুলকে দলে নেওয়ার দাবিতে সোচ্চার হয়েছিলেন। রাহুল দলে জায়গা না পেলেও দলে জায়গা করে নিয়েছেন রবীন্দ্র জাদেজা এবং ঋষভ পন্থ। অনেকের বক্তব্য, অবশ্য অজিভূমে পরিসংখ্যানগত দিক থেকে রাহুলের অবস্থান একেবারেই ভালো নয়। আবার অন্যদিকে পরিসংখ্যানগতভাবে নাকি পন্থ এবং জাদেজার পারফরম্যান্স অজিভূমে অনেকটাই ভাল। বাস্তব কি সত্যিই তাই! 

২০১৮-১৯ সালে শেষবার অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ খেলেছিল ভারত। সেই সিরিজে খেলেছিলেন রাহুল। তবে ব্যাট হাতে একেবারেই দাগ কাটার মতো পারফরম্যান্স করতে পারেননি তিনি। অজিভূমে রাহুল এই পর্যন্ত খেলেছেন মোট পাঁচটি টেস্ট। ২০.৭৭ গড়ে করেছেন মাত্র ১৮৭ রান। এর মধ্যে রয়েছে একটি ১১০ রানের ইনিংসও। স্বাভাবিকভাবেই এই পরিসংখ্যান রাহুলের বিপক্ষেই কথা বলছে।

অপরদিকে অজিভূমে ঋষভ পন্থের রেকর্ড আবার বেশ ভালো। ২০১৮-১৯ মরসুমের সেই সিরিজে দু'দল মিলিয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন পন্থ। চার ম্যাচে ৩৫০ রান করেছিলেন ভারতের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। তার মধ্যে সিডনির বুকে তাঁর খেলেছিলেন ১৫৯ রানের ইনিংস। শুধু ব্যাট হাতেই নয়, গ্লাভস হাতেও তাঁর পারফরম্যান্স ভালো ছিল। সেই সিরিজে উইকেটরক্ষক হিসেবে নিয়েছিলেন ২০ টি ক্যাচ ও।

জাদেজারও ব্যাট এবং বল হাতে পারফরম্যান্স মোটের উপর ভালো। অজিভূমে এখন পর্যন্ত দুটি টেস্ট খেলেছেন। ৩০ গড়ে করেছেন ৯০ রান। তার সর্বোচ্চ রান ৮১। এখানেই শেষ নয় বল হাতে তিনি নিয়েছেন ৭ টি উইকেটও। যার মধ্যে তার সেরা পারফরম্যান্স ছিল ৮২ রানে ৩ উইকেট। তাঁর বোলিং গড়ও ২৮.৫৭।  পাশাপাশি মেলবোর্নের বক্সিং ডে টেস্টেই পাঁচ উইকেট নিয়েছিলেন।

সুতরাং দেখাই যাচ্ছে পারফরম্যান্সের নিরিখে রাহুলকে কয়েক কদম পিছনে ফেলেছেন পন্থ এবং জাদেজা। বিশেষত রাহুলকে সম্ভবত উইকেটরক্ষকের দায়িত্ব দেবে না ভারত। সেক্ষেত্রে উইকেটরক্ষক হিসেবে পন্থ ও ঋদ্ধিমান সাহার মধ্যে লড়াই ছিল। তাতে ভোট পেয়েছেন পন্থ। অন্যদিকে জাদেজার পরিবর্তে রাহুলকে যদি খেলানো হত, তাহলে দলে বোলার কমে যেত। এমনিতেই চার বোলার কৌশলে হেঁটেছে ভারত। পঞ্চম বোলারের কাজ করবেন জাদেজা। রাহুলের ক্ষেত্রে সেই সুবিধা মিলত না। তাই জাদেজা সুযোগ পেয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট মহলের ধারণা।

বন্ধ করুন