বাংলা নিউজ > ময়দান > India vs Australia 3rd test: পারিবারিক শিক্ষার শিকড়ে লুকিয়ে বর্ণবিদ্বেষ, সিডনির ঘটনায় কড়া আক্রমণ অশ্বিনের
সিডনির ঘটনার সময় সিরাজ। (ছবি সৌজন্য টুইটার)
সিডনির ঘটনার সময় সিরাজ। (ছবি সৌজন্য টুইটার)

India vs Australia 3rd test: পারিবারিক শিক্ষার শিকড়ে লুকিয়ে বর্ণবিদ্বেষ, সিডনির ঘটনায় কড়া আক্রমণ অশ্বিনের

  • কোনও সহানুভূতি নয়, সিডনিতে বর্ণবিদ্বেষ কাণ্ডে দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। মত অশ্বিনের।

কোনও সহানুভূতি নয়, সিডনিতে বর্ণবিদ্বেষ কাণ্ডে দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। দ্ব্যর্থহীন ভাষায় একথা জানালেন ভারতীয় ক্রিকেটার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। সঙ্গে কড়া ভাষায় জানালেন, পারিবারিক শিক্ষার শিকড়ে বর্ণবিদ্বেষের বীজ লুকিয়ে আছে। 

অশ্বিনের কথায়, ‘কীভাবে বড় হয়েছেন, তার শিকড়ে সেই বর্ণবিদ্বেষের বীজ নিহিত আছে, সেভাবেই লোকজন দেখে। এটা অবশ্যই অত্যন্ত কড়া হাতে দমন করতে হবে। আমাদের অবশ্যই নিশ্চিত করতে যে এই ঘটনার যেন আর পুনরাবৃত্তি না হয়।’ সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘বর্তমান সময়ের ক্রিকেটে এটা একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। আগে আমরা অনেক দেখতাম।’ 

যদিও সিডনিতে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের উদ্দেশে কটূ মন্তব্য একেবারেই নতুন ঘটনা নয় বলে জানিয়েছেন অশ্বিন। বরং সিডনিতে আগেও বর্ণবিদ্বেষী কটূক্তির মুখে পড়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। তিনি বলেন, ‘দেখুন, আমি একটা বিষয় পরিষ্কারভাবে বলতে চাই। অস্ট্রেলিয়ায় এটা আমার চতুর্থ সফর। বিশেষত সিডনির মাঠে অতীতেও এরকম অভিজ্ঞতা হয়েছিল আমাদের।’ ২০১১ সালে দর্শকদের উদ্দেশে বিরাট কোহলির মধ্যমা দেখানোর প্রসঙ্গে সরাসরি উত্থাপন না করে ভারতীয় স্পিনার বলেন, ‘অতীতে আমাদের খেলোয়াড়রা এক-দু'বার প্রতিক্রিয়া দিয়েছে এবং সমস্যায় পড়েছে। কিন্তু বিশেষত স্ট্যান্ডের নীচের দিকের লোকজন-সহ দর্শকরা যেভাবে কথা বলছিলেন, সেজন্য (কিছু করা হয়নি)।’

রবিবার সিডনিতে মহম্মদ সিরাজকে উদ্দেশ করে বর্ণবিদ্বেষমূলক মন্তব্য করা হয়। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) সূত্রে খবর, ভারতীয় তরুণ পেসারকে ‘বাদামি কুকুর’ বলা হয়েছে। তার জেরে ১০ মিনিটের বন্ধ থাকে খেলা। বিষয়টি অনফিল্ড আম্পায়ারদের জানান অজিঙ্কা রাহানেরা। তারপরই তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হয়। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে জানানো হয়েছে, ছ'জন দর্শককে মাঠের বাইরে বের করে দেওয়া হয়েছে। ভারতীয়দের কাছে ক্ষমাও চেয়েছে স্টিভ স্মিথদের দেশের ক্রিকেট বোর্ড।

শনিবারও গ্যালারি থেকে সিরাজ এবং জসপ্রীত বুমরাহের উদ্দেশে গালিগালাজ উড়ে এসেছিল। তা নিয়ে সরকারি আইসিসির কাছে অভিযোগ দায়ের করে বিসিসিআই। অশ্বিন বলেন, ‘ওরা অত্যন্ত আক্রমণাত্মক ছিল। একইসঙ্গে লাগাতার গালিগালাজ করছিল। কিন্তু এবার ওরা একধাপ এগিয়ে যায় এবং বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণ করে।’

পাশাপাশি অশ্বিন জানিয়েছেন, সিরিজের প্রথম দুটি টেস্টে কোনওরকম বর্ণবিদ্বেষী আক্রমণ করা হয়নি। তাঁর কথায়, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমার মতে যে অ্যাডিলেড এবং মেলবোর্নে (পরিবেশ) এরকম বাজে ছিল না। তবে আমি আগেই বলেছি যে সিডনিতে বিষয়টি লাগাতার হয়ে আসছে। আমার নিজেরও সেই অভিজ্ঞতা হয়েছে। ওরা আক্রমণাত্মক হয়ে যায়। আমি জানি না কোন কারণে।’

বন্ধ করুন