বাংলা নিউজ > ময়দান > India vs Australia 3rd test: 'বাঁ-হাতি সেহওয়াগ হলেন পন্ত', চোট নিয়েও ঋষভের দুরন্ত ইনিংসে মুগ্ধ ক্রিকেটবিশ্ব
সিডনিতে মারমুখী পন্ত। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @BCCI)
সিডনিতে মারমুখী পন্ত। (ছবি সৌজন্য, টুইটার @BCCI)

India vs Australia 3rd test: 'বাঁ-হাতি সেহওয়াগ হলেন পন্ত', চোট নিয়েও ঋষভের দুরন্ত ইনিংসে মুগ্ধ ক্রিকেটবিশ্ব

  • বারোটি চার এবং তিনটি ছক্কায় সাজানো ছিল পন্তের ইনিংস।

লড়াইটা ছিল ম্যাচ বাঁচানোর। একজনের জন্যই সিডনিতে জয়ের কিছুটা আলো দেখতে শুরু করেছিলেন ভারতীয় সমর্থকরা। শেষপর্যন্ত ৯৭ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলে আউট হয়ে গেলেও ঋষভ পন্তের প্রতি-আক্রমণে মুগ্ধ হয়েছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ থেকে শুরু করে নেটিজেনরা।

সোমবার সিডনি টেস্টের পঞ্চম দিনের শুরুতেই অজিঙ্কা রাহানেকে হারায় ভারত। পাঁচে নেমে চাপের জালে আষ্টেপৃষ্ঠে না গিয়ে পালটা চিরাচরিত আক্রমণের পথে হাঁটেন পন্ত। বিশেষত নাথান লিঁয়কে কোনওরকম রেয়াত করেননি তিনি। পরপর দু'বলে অফস্পিনারকে ছক্কা মারেন। রেহাই পাননি বাকিরাও। চোট সত্ত্বেও খোলসে ঢুকে যাননি। বরং অজি বোলারদের ব্যাকফুটে ফেলে দেন। শেষপর্যন্ত পয়া ইনিংসে অবশ্য দ্বিতীয় শতরানের তিন রান আগেই থেমে যান পন্ত। লিঁয়ের বলে বড় শট মারতে গিয়ে আউট হয়ে যান। তাতে অবশ্য পন্তের প্রশংসা করতে কুণ্ঠাবোধ করেননি কেউ। ১১৮ বলে ৯৭ রান করেন।

বারোটি চার এবং তিনটি ছক্কায় সাজানো ছিল পন্তের ইনিংস। ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে বলেন, 'শতরানটা যেন না হওয়ার ছিল। কিন্তু নির্দ্বিধায় এটা পন্তের সেরা টেস্ট ইনিংস। ওই শটের জন্য আপনি ওকে দোষারোপ করতে পারেন না্। কারণ সেই শটগুলির কারণে জয়ের আশা তৈরি হয়েছিল, যখন কেউ বিশ্বাস করেননি যে সেটা সম্ভব।'

দিল্লি ক্যাপিটালসে নিজের শিষ্যের প্রশংসা করেন রিকি পন্টিং। তিনি বলেন, ‘কত বলা হচ্ছিব যে ভারত ২০০-র নীচে আটকে যাবে। আমি যতটা ভেবেছিলাম, তার ধারেকাছেও পিচের অবস্থা খারাপ গয়নি। যেভাবে ঋষভ পন্থ খেলছে, তা এরকম পরিস্থিতির জন্য একেবারে ঠিক।’

সোমবার স্ট্রেলিয়ার মাটিতে অসামান্য নজির তৈরি করে ফেলেন পন্ত। এশিয়ান উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে অস্ট্রেলিয়ায় টেস্টে সর্বোচ্চ রানের নিরিখে কিরমানিকে ছাপিয়ে যান। যিনি ১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৮৬ সালের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় ১১ টেস্টে (১৭ ইনিংস) ৪৭১ রান করেছিলেন। সর্বোচ্চ ছিল ৫৫। গড় ২৯.৪৩। দুটি অর্ধশতরান করেছিলেন ভারতের অন্যতম সেরা উইকেটরক্ষক। আর সেই সংখ্যাটা টপকে যেতে মাত্র ছ'টি টেস্টের (১০ ইনিংসের) প্রয়োজন হয়েছে পন্তের। যিনি সিডনিতে তৃতীয় টেস্ট পর্যন্ত ৫১২ রান করে ফেলেছেন। ২০১৮-১৯ সালের সফরে এই সিডনিতেই ১৫৯ রানের অপরাজিত মারকুটে ইনিংস খেলেছিলেন। গড় নজরকাড়া ৫৬.৮৮।

বন্ধ করুন