বাড়ি > ময়দান > ICC Women's T20 World Cup Final: হল না স্বপ্নপূরণ, ৮৫ রানে হার হরমনপ্রীতদের
বিশ্বজয়ী অস্ট্রেলিয়া (ছবি সৌজন্য এপি)
বিশ্বজয়ী অস্ট্রেলিয়া (ছবি সৌজন্য এপি)

ICC Women's T20 World Cup Final: হল না স্বপ্নপূরণ, ৮৫ রানে হার হরমনপ্রীতদের

  • পূরণ হল না স্বপ্ন। প্রায় ৯০,০০০ দর্শকের সামনে জীবনের সেরা জন্মদিনের উপহার পেলেন না হরমনপ্রীত কৌর

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দলের সঙ্গে কোথাও একটা যেন অদৃশ্য মিল তৈরি হল হরমনপ্রীত কৌরের মেয়েদের। অত্যন্ত ফাইনালের নিরিখ। ২০০৩ সালের ছেলেদের ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে যেমন অজিদের সামনে দাঁড়াতে পারেনি সৌরভের দল, তেমনই এদিন মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে দাঁড়াতেই পারল না হরমনপ্রীতের দল। হেরে গেল ৮৫ রানে।পুরো টুর্নামেন্ট ভালো গেলেও স্বপ্নপূরণ হল না শেফাল বর্মা, পুনম যাদবদের। জন্মদিনের সেরা উপহারটা পেলেন না হরমনও।

হল না স্বপ্নপূরণ, মাঠেই কেঁদে ফেললেন ভারতীয়রা (ছবি সৌজন্য এপি)
হল না স্বপ্নপূরণ, মাঠেই কেঁদে ফেললেন ভারতীয়রা (ছবি সৌজন্য এপি)


আপডেটস :

ভারতের ইনিংস

১৯.১ ওভারে ৯৯-১০

অলআউট ভারত। ফাইনালে একবারও ম্যাচ ছিল না ভারত। একটা সময়েও দেখে হয়নি অস্ট্রেলিয়াকে টক্কর দিতে পারে ভারত। যার নিটফল হল - অনায়াসে বিশ্বকাপ জিতল অস্ট্রেলিয়া। ৮৫ রান জয় এল অজিরা।

৬ ওভারে ৩২-৪

প্রথম ৬ ওভারেই জেতার আশা কার্যত শেষ ভারত। আপাতত ক্রিজে রয়েছেন দীপ্তি শর্মা ও বেদা কৃষ্ণমূর্তি।

২ ওভারে ৮-২

আউট জেমাইমা রদ্রিগেস।

০.৩ ওভারে ২-১

বড় ধাক্কা ভারতের। তৃতীয় বলেই আউট দুর্দান্ত ফর্মে থাকা শেফালি বর্মা। ব্যাক অফ দ্যা লেংথ বল ছিল। যা ভারতীয় ইনিংসে একটাও দেখা যায়নি। বলটি পড়ে ভিতর ঢুকে আসে। ব্যাটের কানায় লেগে ক্যাচ যায় অ্যালিসা হিলির কাছে। ভালো ক্যাচ নেন তিনি। মেলবোর্নে আজ ব্যাটিং হোক বা ফিল্ডিং, কোথাও আটকে রাখা যাচ্ছে না হিলিকে।

----------------------------------------------------------------------------

অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস

২০ ওভারে ১৮৪-৪

পুরো টুর্নামেন্টে ভালো বল করে ফাইনালে এসে আশানূরূপ পারফরম্যান্স করতে পারলেন না পুনম যাদবরা। ফিল্ডিং অনুয়ায়ী তেমন বল করেছেন খুবই কম। তাঁর সৌজন্য প্রথম থেকেই বিধ্বংসী খেলতে শুরু করেন অ্যালিসা হিলি। একটা সময় ১১ ওভারে ১১৪ রান ছিল অস্ট্রেলিয়ার। সেখান থেকে অজিরা ২০০ রানের গণ্ডি পার না করায় কিছুটা স্বস্তিতে ভারত। কোনও বোলারই দাগ কাটতে ব্যর্থ।

৫৪ বলে ৭৮ রানে অপরাজিত থাকলেন বেথ মুনি। যা মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর। তাও কিনা এই ইনিংসেই অ্যালিসা হিলিকে টপকে এই নজির গড়লেন মুনি।

১৮.৫ ওভারে ১৭৬-৪

আউট রাচেল হেনেস। পুনম যাদবের বলে আউট হলেন তিনি।

১৬.৫ ওভারে ১৫৬-৩

একই ওভারে জোড়া উইকেট দীপ্তি শর্মার। তিন বলে দু'রান করেন অ্যাশলেঘ গার্ডেনার।

১৬.২ ওভারে ১৫৪-২

আউট হলেন মেগ ল্যানিং। ১৫ বলে ১৬ রান করেন তিনি। উইকেট নিলেন দীপ্তি শর্মা।

১৫ ওভারে ১৪২-১

অর্ধশতরান পূরণ করলেন বেথ মুনিও। ভারতীয় বোলারদের কোনওরকম বেয়াত করছেন না অজি ব্যাটসম্যানরা।

১১.৪ ওভারে ১১৫-১

অবশেষে আউট হলেন অ্যালিসা হিলি। ডিপে তাঁর ক্যাচ নেন বেদা কৃষ্ণমূর্তি। উইকেট নেন রাধা যাদব। তার আগে অবশ্য ৩৯ বলে ৭৫ রান করেছেন হিলি। যা মহিলা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর। ফাইনালে তাঁর থেকে আর কী চাইতে পারে দল?।

১১ ওভারে ১১৪-০

বিধ্বংসী ফর্মে রয়েছে অ্যালিসা হিলি। পরপর তিন বলে তিনটি ছয় মারলেন তিনি। শিখা পান্ডের ওভার থেকে এল ২৩ রান।

৯.২ ওভারে ৮৪-০

বিশ্বকাপ ফাইনালে দুরন্ত অর্ধশতরান অ্যালিস হিলি। রাধা যাদবকে চার মেরে অর্ধশতরান পূরণ করেন তিনি। শেফালি বর্মার মনের অবস্থাটা এখনও স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে।

৬ ওভারে ৪৯-০

পাওয়ার প্লে'তে দুরন্ত ব্যাটিং অস্ট্রেলিয়ার। প্রথম ছ'ওভারেই ৪৯ রান তারা। তাও ষষ্ঠ ওভারে মাত্র দু'রান দেন রাজেশ্বরী গায়কোয়াড়।

৫ ওভারে ৪৭-০

ঝোড়া শুরু অস্ট্রেলিয়া। অজিদের রানের গতি আটকাতে পারছে না ভারত। জীবনদান পাওয়ার পর দুরন্ত খেলছেন অ্যালিসা হিলি।

২ ওভারে ২৩-০

দ্বিতীয় ওভারে ন'রান তুলল অস্ট্রেলিয়া।।

১ ওভারে ১৪-০

প্রথম ওভারে ভালো শুরু করল অস্ট্রেলিয়া। দীপ্তি শর্মার প্রথম ওভারেই তিনটি বাউন্ডারি মারেন অজি ওপেনাররা। যদিও পঞ্চম বলেই অ্যালিসা হিলির ক্যাচ ফেলেন শেফালি ভার্মা। কভারে ক্যাচ মিস করেন তিনি।


হরমনপ্রীত কৌর : আমার মা গ্যালারিতে কোথাও বসে আছেন। এটা চাপের খেলা। আমরাও প্রথমে ব্যাট করতে চাইতাম। রান তাড়ার ক্ষেত্রে আমরা যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী। আমরা ইন্ডোরে কিছুটা অনুশীলন করেছি। আমরা একসঙ্গে থাকছি। কারণ আপনি ম্যাচ না খেললে তা আপনার ফোকাসে প্রভাব ফেলে। আর পাঁচটার মতো এই ম্যাচটিকে নিচ্ছি ও আমাদের সেরাটা উজাড় করে দেব।

টস

টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিল অস্ট্রেলিয়া।

বন্ধ করুন