পূজারার স্টাম্প ছিটকে দিলেন বোল্ট (ছবি সৌজন্য এপি)
পূজারার স্টাম্প ছিটকে দিলেন বোল্ট (ছবি সৌজন্য এপি)

India vs New Zealand 2nd Test: আবারও ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে ভারত, এগিয়ে ৯৭ রানে

  • অফস্টাম্পের বাইরের চ্যানেলের বলে পরপর আউট হচ্ছেন বিরাট কোহলি। আর ভিতরে ঢুকে আসা বলে পরাস্ত হচ্ছেন চেতেশ্বর পূজারা।

২০১৪ সালের ভরাডুবির স্মৃতি যেন ক্রমশ চেপে বসছে ভারতীয়দের মাথার উপর। দলের অন্যতম দুই সেরা ব্যাটসম্যান কার্যত সেই একই ধাঁচে আউট হচ্ছেন। তার জেরে প্রথম ইনিংসে সাত রানে এগিয়ে থেকেও দ্বিতীয় ইনিংসে সুযোগ লাগাতে পারল না ভারত। দিনের শেষে ৯০ রান ছ'উইকেট হারিয়ে ধুঁকছে টিম ইন্ডিয়া। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মত, ভারতের সমস্যাটা টেকনিকে যত না বেশি তার থেকে অনেক বেশি মানসিক দিকে।

ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস

৩৬ ওভারে ৯০-৬

প্রথম ইনিংস লিড পেলেও সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারল না ভারত। দ্বিতীয় ইনিংসেও ভেঙে পড়ল টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটিং। দিনের শেষে ৯০ রানে ছ'উইকেট হারিয়ে ধুঁকছে ভারত। ক্রিজে রয়েছেন ঋষভ পন্থ (এক রানে অপরাজিত) ও হনুমা বিহারি (পাঁচ রানে অপরাজিত)। তিনটি উইকেট পেয়েছেন ট্রেন্ট বোল্ট। একটি করে উইকেট পেয়েছেন টিম সাউদি, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও নীল ওয়্যাগনার।

৩৩.১ ওভারে ৮৪-৫

ক্রমশ ভারতের মাথায় যেন ২০১৪ সালের ভূত চেপে বসছে। অফস্টাম্পের বাইরের চ্যানেলের বলে পরপর আউট হচ্ছেন বিরাট কোহলি। আর ভিতরে ঢুকে আসা বলে পরাস্ত হচ্ছেন চেতেশ্বর পূজারা। রাউন্ড দ্য উইকেটের কোণ ব্যবহার করে পূজারাকে বোল্ড করলেন ট্রেন্ট বোল্ট। পূজারা স্ট্রেট ডাইভ মারতে গিয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাট-প্যাডের ফাঁক বল ঢুকে স্টাম্পে আছড়ে পড়ল। ৮৮ বলে ২৪ রান করেন তিনি।

১৭.১ ওভারে ৫১-৩

ব্যাটে রানের খরা। আবারও রান করতে পারলেন না বিরাট কোহলি। আপনি যদি মিডিয়াম পেসার হন ও বল ভিতর দিকে নিয়ে আনেন, তাহলে এই কোহলির উইকেট আপনি পেতেই পারেন। প্রথম ইনিংসের মতোই আউট হলেন কোহলি। এবার অবশ্য রিভিউ নেনন কোহলি। ৩০ বলে তাঁর অবদান ১৪ রান। উইকেট নেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম।

৮.১ ওভারে ২৬-২

ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা আউট হওয়ার বিভিন্ন রকম উপায় খুঁজে বের করছেন। প্রথম ইনিংসের ছাপ দেখা গেল পৃথ্বী শয়ের মধ্যে। বরং উইকেট ছুড়ে দিয়ে এলেন তিনি। ২৪ বলে ১৪ রান করেন পৃথ্বী। উইকেট নেন টিম সাউদি।

১.৫ ওভারে ৮-১

দ্বিতীয় টেস্টের দু'ইনিংসেই ব্যর্থ মায়াঙ্ক আগরওয়াল। প্রথম ইনিংসের মতোই এবারও ট্রেন্ট বোল্টের বলে এলবিডব্লু হলেন তিনি। এবার অবশ্য রিভিউ নেননি। প্রাথমিকভাবে বল উইকেটে লাগবে না মনে হলেও পরে দেখা যায় অফস্টাম্পের উপরে লাগছে বল। ছ'বলে তিনি রান করেন মায়াঙ্ক।

----------------------------------------------------------------------------

৭৩.১ ওভারে ২৩৫-১০

অবশেষে শেষ হল নিউজিল্যান্ড ইনিংস। শেষ চার উইকেটে ৮২ রান জুড়লেন কিউয়িরা। যা ভারতের জন্য বড় ধাক্কা। শেষ উইকেট পড়ে কাইল জেমিসনের। মহম্মদ শামির বলে প্রথমে ভুল বিবেচনা করেও দুরন্ত ক্যাচ ধরেন ঋষভ পন্থ। শেষপর্যন্ত আউট হলেও ৬৩ বলে ৪৯ রানের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন জেমিসন। জেমিসন-সহ কিউয়ি টেলের সৌজন্যে প্রথম ইনিংসে মাত্র সাত রান পিছিয়ে রইল নিউজিল্যান্ড।

সেরা ছন্দে না থাকলেও ভারতের সফলতম বোলার মহম্মদ শামি। ২৩.১ ওভারে ৮১ রান দিয়ে তিনি চার উইকেট নেন। তিনটি উইকেট নিয়েছেন জসপ্রীত বুমরা। এর মধ্যে কিউয়িদের সবথেকে ভালো ব্যাটসম্যান কেন উইলিয়ামসনের উইকেট। দুটি উইকেট পেয়েছেন রবীন্দ্র জাদেজা। একটি উইকেট নিয়েছেন উমেশ।

৭২ ওভারে ২২৮-৯

অবশেষে ভাঙল জুটি। ওভারের শেষ বলে আউট হলেন নীল ওয়্যাগনার। স্কোয়্যার লেগের দিকে পিছনে দৌড়ে দুর্ধর্ষ ক্যাচ নিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। তাও একহাতে। অসাধারণ। সত্যিই থ্রি-ডি খেলোয়াড় জাড্ডু। বছরের সেরা ক্যাচের তকমাটা হয়তো এখনই পেয়ে গেলেন তিনি। অন্যদিকে, ৪১ বলে ২১ রানের মহামূল্যবান ইনিংস খেলেন ওয়্যাগনার।

দুর্ধর্ষ ক্যাচ জাদেজার (ছবি সৌজন্য টুইটার)
দুর্ধর্ষ ক্যাচ জাদেজার (ছবি সৌজন্য টুইটার)

৭১ ওভারে ২২১-৮

নবম উইকেটে ইতিমধ্যে ৪৪ রান জুড়ে ফেলেছেন কাইল জেমিসন ও নীল ওয়্যাগনার।৫৭ বলে ৪২ রানে অপরাজিত রয়েছেন জেমিসন। অন্যদিকে ৩৬ বলে ১৫ রান করেছেন নিউজিল্যান্ডের বাঁ-হাতি পেসার। মাত্র ২১ রানে পিছিয়ে নিউজিল্যান্ড।

৬০.২ ওভারে ১৭৭-৮

দুর্দান্ত বল। রাউন্ড দ্য উইকেট থেকে বল করছিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। অফস্টাম্পে বল পড়ে টার্ন করে। কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ইনসাইড দ্য লাইন খেলছিলেন। বল অফস্টাম্পের মাথায় লাগে। ভারতের জন্য বড় উইকেট। ক্রমশ জমাট লাগছিল গ্র্যান্ডহোমকে। ৪৪ বলে ২৬ রান করেন তিনি।

২৫.৩ ওভারে ৬৬-১

দিনের শুরুতেই নিউজিল্যান্ডকে ধাক্কা দেন উমেশ যাদব। এদিনের ১৫ তম বলেই টম ব্লান্ডেলকে প্যাভিলিয়নে পাঠান ক্রাইস্টচার্চে ইশান্তের বদলি। ৭৭ বলে ৩০ রান করেন কিউয়ি ওপেনার।

বন্ধ করুন