বাংলা নিউজ > ময়দান > ভারত বনাম পাকিস্তানের টেস্ট সিরিজ! ECB-র প্রস্তাব ঘিরে বিশ্ব ক্রিকেটে জল্পনা

ভারত বনাম পাকিস্তানের টেস্ট সিরিজ! ECB-র প্রস্তাব ঘিরে বিশ্ব ক্রিকেটে জল্পনা

ভারত বনাম পাকিস্তানের ম্যাচ ঘিরে উন্মাদনা (ছবি-এএফপি)

পাকিস্তানও ভারতের সঙ্গে সিরিজ খেলতে চায়, কিন্তু ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষে পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের জন্য ভারতকে রাজি করানো কঠিন। ইংল্যান্ড আশা করছে যে টিম ইন্ডিয়া ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলতে রাজি হতে পারে।

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে শেষ টেস্ট সিরিজ ১৪ বছর আগে খেলা হয়েছিল। ভারত বনাম পাকিস্তান টেস্ট সিরিজ শেষবার খেলা হয়েছিল ২০০৭/০৮ মরশুমে। যেই সিরিজটি ভারত জিতেছিল। এরপরে পাকিস্তানে ক্রমবর্ধমান সন্ত্রাসবাদের কারণে, ভারত প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। যা আজও অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) তরফ থেকে ইংল্যান্ডের মাটিতে দুই দেশের মধ্যে টেস্ট সিরিজ আয়োজনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

পাকিস্তানও ভারতের সঙ্গে সিরিজ খেলতে চায়, কিন্তু ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষে পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের জন্য ভারতকে রাজি করানো কঠিন। তবে ইংল্যান্ড আশা করছে যে টিম ইন্ডিয়া, যারা পাকিস্তানের সঙ্গে পাকিস্তানে বা নিজের মাটিতে দীর্ঘ দিন কোনও সিরিজ খেলেনি, তারা ইংল্যান্ডে সিরিজ খেলতে রাজি হতে পারে।

আরও পড়ুন… ফিরে এসেছে কোহলির পাওয়ার গেম- মঞ্জরেকর

দ্য টেলিগ্রাফের রিপোর্টে বলা হয়েছে- ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) ডেপুটি চেয়ারম্যান মার্টিন ডার্লো পাকিস্তানে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজ চলাকালীন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করেছেন এবং ভারতের সঙ্গে ইংল্যান্ডে ৩ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনার প্রস্তাব দিয়েছেন। ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারত ও পাকিস্তানের বহু মানুষ বাস করেন এবং ইংল্যান্ড বোর্ড জানে যে ম্যাচটি দেখতে মাঠে অনেক বেশি ভিড় জমতে পারে।

ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড জানে যে ভারত-পাকিস্তানের যে কোনও সিরিজ মানেই বড় অর্থ প্রাপ্তি। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সিরিজ হলে দর্শকসংখ্যা অনেক বেশি হবে, টিকিটের বড় চাহিদা থাকবে। ম্যাচগুলি বিপুল স্পনসরশিপ আয় এবং টেলিভিশন দর্শকদের আকর্ষণ করে। ২০১১ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারত যখন পাকিস্তানের সঙ্গে খেলেছিল, তখন টেলিভিশনে দর্শকের সংখ্যা ছিল ৪৯৫ মিলিয়ন ছিল।

আরও পড়ুন… নেপালের তারকা ক্রিকেটার সন্দীপ লামিচানেকে ধরতে ইন্টারপোলের সাহায্য নিল নেপাল পুলিশ

ভারত এবং পাকিস্তান শুধুমাত্র আইসিসির বড় টুর্নামেন্টে একে অপরের বিরুদ্ধে খেলে। সম্প্রতি, এশিয়া কাপে দু'জনের মধ্যে ২টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা হয়েছিল, যার মধ্যে একটি ভারত এবং একটি পাকিস্তান জিতেছে। আসন্ন বিশ্বকাপে, মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে ভারত ও পাকিস্তানের ম্যাচটি ২৩ অক্টোবর নির্ধারিত রয়েছে। কিন্তু আইসিসি টুর্নামেন্ট ছাড়া, দুজন নিজেদের মধ্যে কোনও সিরিজ খেলে না। 

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে যে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া তাদের অ্যাশেজ সিরিজ থেকে যতটা আয় করেছে তার চেয়ে বেশি অর্থ ভারতের বিরুদ্ধে খেলে তারা আয় করেছে। ইংল্যান্ডে ম্যাচ চলাকালীন সব টিকিট বিক্রি হচ্ছে না, তাই ভারত বনাম পাকিস্তান টেস্ট সিরিজ নিজেদের মাটিতে করার প্রস্তাব দিয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড।

মুম্বই সন্ত্রাসী হামলার (২৬ নভেম্বর ২০০৮) পর থেকে ভারত পাকিস্তানের সঙ্গে কোনও দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলেনি। এমনকি আইপিএলেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের ওপর। দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি লিগের কোনও দলে কোনও পাকিস্তানি খেলোয়াড় নেই, বা তারা বিডও করেনি কারণ এই লিগের সব দলই আইপিএল দলের মালিকানাধীন।

পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের খেলিয়ে কেউ ঝুঁকি নিতে চায় না, কারণ বেশির ভাগ দর্শক ভারতের হবে এবং প্রতিবাদ হলে আয়োজকরা অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। দু দলের মধ্যে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজ খেলা হয়েছিল ২০০৭/০৮ সালে। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে ১৫ বার টেস্ট সিরিজ খেলা হয়েছে, যার মধ্যে চারটি সিরিজ ভারতের নামে রয়েছে। ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচবার টেস্ট সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান।

বন্ধ করুন