বাংলা নিউজ > ময়দান > IND vs NZ 3rd ODI-এর আগেই পন্তের আরোগ্য কামনায় মহাকাল মন্দিরে পুজো দিলেন সূর্যরা

IND vs NZ 3rd ODI-এর আগেই পন্তের আরোগ্য কামনায় মহাকাল মন্দিরে পুজো দিলেন সূর্যরা

 পন্তের জন্য মহাকাল মন্দিরে পুজো দিলেন সূর্যকুমার, কুলদীপরা।

আগামী কয়েক দিনের মধ্যে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেতে পারেন পন্ত। হাসপাতাল সূত্রে তেমনই খবর। বাড়িতেই শুশ্রূষার প্রক্রিয়া চলবে তাঁর। বাড়িতে থাকলেও কড়া পর্যবেক্ষণের মধ্যে থাকবেন তারকা উইকেটকিপার-ব্যাটার।

ইন্দোরে তৃতীয় তথা শেষ ওডিআইয়ের আগে, টিম ইন্ডিয়ার খেলোয়াড়রা ঋষভ পন্তের দ্রুত আরোগ্য কামনার জন্য মন্দিরে পুজো দিতে ছুটে যান। রবিবার মহাকালেশ্বর জ্যোতির্লিঙ্গ মন্দিরে গিয়েছিলেন সূর্যকুমার যাদব, কুলদীপ যাদব এবং ওয়াশিংটন সুন্দর। প্রার্থনা করে মন্দির থেকে বের হওয়ার সময়ে সাংবাদিকদের সূর্যকুমার বলেন যে, পন্ত স্কোয়াডের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য এবং তাঁর দ্রুত দলে ফেরাটা গুরুত্বপূর্ণ।

স্কাই সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা ঋষভ পন্তের দ্রুত আরোগ্য কামনার জন্য প্রার্থনা করেছি। ওর প্রত্যাবর্তন আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা ইতিমধ্যেই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ জিতেছি। ওদের বিরুদ্ধে ফাইনাল ম্যাচের জন্য অপেক্ষা করছি।’

আগামী কয়েক দিনের মধ্যে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেতে পারেন পন্ত। হাসপাতাল সূত্রে তেমনই খবর। বাড়িতেই শুশ্রূষার প্রক্রিয়া চলবে তাঁর। বাড়িতে থাকলেও কড়া পর্যবেক্ষণের মধ্যে থাকবেন তারকা উইকেটকিপার-ব্যাটার। হাসপাতালের সূত্রের খবর, পন্তের মেডিক্যাল কোল্যাটেরাল লিগামেন্টে (এমসিএল) বড়সড় অস্ত্রোপচার হয়েছে। এ ছাড়া অ্যান্টেরিয়র ক্রুশিয়েট লিগামেন্টে (এসিএল) সামান্য অস্ত্রোপচার হয়েছে। ডাক্তারদের অনুমান, বাকি যে লিগামেন্টগুলিতে চোট লেগেছে, সেগুলি ধীরে ধীরে ঠিক হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: পেসাররা মাত্র ৩০ বল করে- বুমরাহদের এত চোটের পিছনে আসল কারণ ফাঁস করলেন কপিল

বিসিসিআই এর এক কর্তা বলেন, ‘ঋষভের সবকটি লিগামেন্টে আঘাত লেগেছে। ক্রুশিয়েট লিগামেন্টে চোট গুরুতর ছিল। তাই অস্ত্রোপচার জরুরি হয়ে পড়েছিল। এখন ওর ওপর নজর রাখা হবে। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে আবার মূল্যায়ন করবেন চিকিৎসকরা। আশা করি, আর কোনও অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হবে না।’

আরও পড়ুন: আইপ্যাড, পাসপোর্ট, সব ভুলে যায়- ভুলাক্কার রোহিতের গল্প ৫ বছর আগেই করেছিলেন কোহলি

সেই কর্তা আরও বলেন, ‘লিগামেন্টের চোট সাধারণত চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে সেরে যায়। তবে পন্তের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা একটু অন্য রকম। পুরোপুরি সেরে ওঠার পর শুরু হবে শক্তি বাড়ানোর পরীক্ষা। সেই সময়টা অনেকটাই কঠিন। সেটা ও বুঝতে পারবে। আগামী দুই মাস পর একটি মূল্যায়ন করা হবে। এখনই ঋষভ খেলায় ফিরতে পারবে কিনা তা দেখা হবে। ওকে কাউন্সিলিং সেশনের মধ্যে দিয়েও যেতে হবে। তবে মনে করা হচ্ছে, তাঁর খেলা শুরু করতে করতে চার থেকে ছয় মাস লেগে যেতে পারে।’

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালের ৩০ ডিসেম্বর গাড়ি দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন পন্ত। মাথায়, পিঠে, পায়ে এবং শরীরের একাধিক জায়গায় চোট পান তিনি। এমন কী লিগামেন্ট ছিড়ে গিয়েছিল তাঁর। লিগামেন্ট সারিয়ে তোলার চিকিৎসার দায়িত্ব নেয় বিসিসিআই। তাই দেরাদুন থেকে মুম্বইয়ে নিয়ে আসা হয় তাঁকে। আপাতত বিসিসিআইয়ের বিশেষ চিকিৎসক দলের নজরে রয়েছেন পন্ত।

বন্ধ করুন