বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > DC vs KXIP: ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আম্পায়ার, কটাক্ষ সেহওয়াগের
কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের এই একরান বাতিল করেন আম্পায়াররা। ছবি- টুইটার।
কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের এই একরান বাতিল করেন আম্পায়াররা। ছবি- টুইটার।

DC vs KXIP: ম্যান অফ দ্য ম্যাচ আম্পায়ার, কটাক্ষ সেহওয়াগের

  • কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের হারের কারণ হিসেবে আম্পায়ারের ভুলকেই দায়ি করলেন বীরু।

শুভব্রত মুখার্জি

ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম বর্ণময় চরিত্র বীরেন্দ্র সেহওয়াগ। যতদিন ক্রিকেট খেলেছেন, ব্যাট হাতে প্রতিপক্ষ বোলারদের শাসন করেছেন। অবসর নেওয়ার পরেও সোশ্যাল মিডিয়ায় ইঙ্গিতবাহী মন্তব্যে সমর্থকদের যেমন মনোরঞ্জন করেছেন বীরু, ঠিক তেমনই হালকা চালে গভীর সমস্যাকে বুঝতেও সাহায্য করেছে।

এবার আইপিএলের ম্যাচ নিয়ে তেমনই এক ব্যঙ্গাত্মক টুইট করেন সেহওয়াগ। কার্যত সমালোচনার সুরে বীরু বুঝিয়ে দেন, দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে পঞ্জাবের হারের জন্য দায়ি অম্পায়ারদের একটি ভুল সিদ্ধান্ত।

করোনা মহামারির জন্য নির্ধারিত সময় থেকে পিছিয়ে যাওয়া আইপিএল শুরু হয়েছে আমিরশাহিতে। দ্বিতীয় ম্যাচেই ক্রিকেটপ্রেমীরা সাক্ষী থেকেছেন এক রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের। দিল্লি বনাম পঞ্জাব ম্যাচ টাই হওয়ায় নিস্পত্তির জন্য সুপার ওভারে গড়ায়। সুপার ওভারে ম্যাচ পকেটে পোরে দিল্লি।

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট ও লাইভ স্কোর জানতে ক্লিক করুন এখানে।)

পঞ্জাবের হয়ে ব্যাট হাতে লড়াকু ৮৯ রানের ইনিংস খেললেও দলকে কাঙ্খিত জয় এনে দিতে পারেননি মায়াঙ্ক আগরওয়াল। যদিও সেহওয়াগের মতে ম্যাচটা জিতে গিয়েছিল পঞ্জাব। তবে আম্পায়ারের ভুলের মাশুল দিতে হয় তাদের।

ম্যাচের একটি ছবি তুলে ধরে বীরেন্দ্র সেহবাগ টুইট করে বুঝিয়ে দেন, কীভাবে আম্পায়ারদের ভুলের খেসারত দিয়ে ম্যাচ নির্ধারিত ২০ ওভারে জেতা হয়নি পঞ্জাবের। ম্যাচে আম্পায়ারিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন অনিল চৌধুরী এবং নীতিন মেনন‌। টিভি আম্পায়ারের দায়িত্ব সামলান প্রাক্তন অজি তারকা পল রাইফেল।

ক্রিস জর্ডন এবং মায়াঙ্কের পার্টনারশিপ যখন চলছিল, তখন মায়াঙ্ক ও জর্ডনের একটি দু'রানকে ওয়ান শর্ট ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। জর্ডন ক্রিজে যথাযথ ব্যাট ঠেকাননি বলে দাবি করেই এক রান কেটে নেওয়া হয়। যদিও টেলিভিশন রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা গিয়েছে যে, জর্ডনের ব্যাট ক্রিজ অতিক্রম করেছিল। অর্থাৎ, রানটি তিনি নিয়মমাফিক সম্পূর্ন করেছিলেন।

একা সেহওয়াগেরই নন, এই একটি রান যদি পঞ্জাবের ইনিংসে যোগ হতো, তবে ম্যাচ টাই হতো না বলে বিশ্বাস বিশেষজ্ঞদের। না দেওয়া রানটি পঞ্জাবের স্কোরের সঙ্গে যোগ হলে ম্যাচ আগেই জিতে যেতেন মায়াঙ্করা।

ফিল্ড আম্পায়ারদের এই ভুল টিভি আম্পায়ারেরও চোখ এড়িয়ে যায়। যার ফল ভুগতে হয় কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে। এই নিয়েই কটাক্ষ করে বীরেন্দ্র সেহওয়াগ টুইটে দাবি করেন যে, ওই রানটি যে আম্পায়ার বাতিল করেছিলেন, তিনিই ম্যান অফ দ্য ম্যাচ পুরস্কার পাওয়ার যোগ্য ব্যক্তি।

সেহওয়াগ লেখেন, 'ম্যান অফ দ্য ম্যাচ বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে আমি একমত হতে পারলাম না। যে আম্পায়ার এই শর্ট রান ঘোষণা করেন, তাঁর ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হওয়া উচিত ছিল। এটা শর্ট রান ছিল না। শেষমেশ এটাই তফাৎ গড়ে দেয়।'

পরে আকাশ চোপড়া এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তোলেন যে, পঞ্জাব যদি শেষ পর্যন্ত ২ পয়েন্টের জন্য প্লে-অফে জায়গা কের নিতে না পারে, তখন কী হবে?

বন্ধ করুন