বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: এনরিখ নরকিয়া নন, IPL-এর ইতিহাসে দ্রুততম বল করেছেন এই বোলার
জস বাটলারকে আউট করার পর এনরিখ নরকিয়া (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
জস বাটলারকে আউট করার পর এনরিখ নরকিয়া (ছবি সৌজন্য আইপিএল)

IPL 2020: এনরিখ নরকিয়া নন, IPL-এর ইতিহাসে দ্রুততম বল করেছেন এই বোলার

  • এনরিখ নরকিয়ার বলের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৫৬.২২ কিলোমিটার।

এনরিখ নরকিয়া কি সত্যিই আইপিএলের ইতিহাসে দ্রুততম বল করেছেন? নাকি সেই রেকর্ড অন্য কারোর দখলে আছে? তা নিয়ে দু'ভাগে বিভক্ত সোশ্যাল মিডিয়া। 

এমনিতে আইপিএলের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে দ্রুততম বোলারের তালিকায় সবার উপরে নরকিয়ার নাম আছে। যে বলের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৫৬.২২ কিলোমিটার। গত বুধবার রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে সেই বল করেছিলেন নরকিয়া। 

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট, লাইভ স্কোর দেখুন এখানে)

আইপিএলের পরিসংখ্যান তালিকার শীর্ষে নরকিয়ার নাম থাকলেও ২০১২ সাল থেকে সেই তথ্য আছে। তার আগের চারটি আইপিএলে দ্রুততম বলের কোনও পরিসংখ্যান নেই। আর সেখানেই লুকিয়ে আছে আইপিএলের ইতিহাসে দ্রুততম বলের রহস্য।

এএনআইয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১২ সালে দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে শন টেটের একটি বলের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৫৭.৭ কিলোমিটার। ম্যাচের পঞ্চম বলেই সেই নজির গড়েছিলেন প্রাক্তন অজি তারকা। আর সেই বলে স্ট্রাইকে ছিলেন টেটের দেশেরই অ্যারন ফিঞ্চ। ইসপিএন ক্রিকইনফোরও লাইভ ম্যাচের সম্প্রচারেও সেই বলের উল্লেখ আছে। তবে সেখানে বলের গতি ঘণ্টায় ১৫৭.৩ কিলোমিটার বলা হয়েছে। আইপিএল ২০১১-এর সাইটে অবশ্য সেই ম্যাচের কোনও তথ্য মেলেনি। শুধুূ ম্যাচের ছোটো পরিসংখ্যান দেওয়া আছে।

জয়পুরের সোয়াই মান সিং স্টেডিয়ামে সেই ম্যাচে টেটের বোলিংয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিলেন রাজস্থানের তৎকালীন অধিনায়ক শেন ওয়ার্ন। তিনি বলেছিলেন, ‘টেটের প্রথম ওভার অসামান্য ছিল। (ম্যাচের আগে) আমাদের কথা হয়েছিল এবং যতটা সম্ভব জোরে বোলিংয়ের পরামর্শ দিয়েছিলাম।’

অর্থাৎ সেই তথ্য অনুযায়ী নরকিয়ার ঘণ্টায় ১৫৬.২২ কিলোমিটারের বল এই মরশুমের দ্রুততম বল। একইসঙ্গে ২০১২ সাল থেকে দ্রুততম বলের পরিসংখ্যান চালুর পর থেকেও সবথেকে জোর বল করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা। তবে সর্বকালের ইতিহাসে বাজিমাত করেছেন প্রোটিয়াদের প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার বোলার।

বন্ধ করুন