বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: বাজে ফিল্ডিংয়ের জেরেই কি বিরাটদের বিরুদ্ধে মুখ থুবড়ে পড়ল KKR?
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই অতি সাধারণ ফিল্ডিং করেছেন নাইটরা (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই অতি সাধারণ ফিল্ডিং করেছেন নাইটরা (ছবি সৌজন্য আইপিএল)

IPL 2020: বাজে ফিল্ডিংয়ের জেরেই কি বিরাটদের বিরুদ্ধে মুখ থুবড়ে পড়ল KKR?

  • রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে অতি সাধারণ ফিল্ডিং করেছেন শুভমন গিলরা।

লেগ স্টাম্পের অনেকটা বাইরে বল করেছিলেন প্যাট কামিন্স। সহজ বল ফস্কান দীনেশ কার্তিক। তাতে দৌড়ে অতিরিক্ত এক রান নেন বিরাট কোহলি। ব্যস, সেই শুরু। কামিন্সকে দুটি ছক্কা এবং একটি চার মারেন এবি ডি'ভিলিয়ার্স।

সেই ১৭ তম ওভারে ওঠে ১৯ রান। তার আগে ওভারেই জোড়া ছক্কা লাগিয়ে যে অ্যাক্সিলেটরে চাপ দিয়েছিলেন, কামিন্সের ওভারে তাতে আরও বেশি চাপ দেন। অথচ সেই সময় বিরাট যাতে সহজে রান না নিতে পারেন, সেটাই যে কোনও দলের লক্ষ্য হবে। যিনি স্লো পিচে খেলতে রীকিমতো সমস্যায় পড়ছিলেন। তাঁকে বারবার ধোঁকা দিচ্ছিলেন কমলেশ নাগরকোটি। অথচ কার্তিকের বাজে ফিল্ডিংয়ের জেরে সেই ফায়দা নিতে পারেননি কামিন্স।

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট, লাইভ স্কোর দেখুন এখানে)

তবে সেটা কোনও বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই অতি সাধারণ ফিল্ডিং করেছেন শুভমন গিলরা। বাজে ফিল্ডিংয়ের শুরুটা করেছিলেন নাগরকোটি। ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে অ্যারন ফিঞ্চের ক্যাচ ফস্কান। তখন ১৯ রানে খেলছিলেন অজি তারকা। শেষপর্যন্ত ৪৭ রান করেন তিনি। অথচ শর্ট ফাইন লেগে সেই ক্যাচের জন্য একেবারে নিখুঁত ছক কষেছিলেন আন্দ্রে রাসেল। সেই ফাঁদে পা দিয়েছিলেন ফিঞ্চ। কিন্তু ক্যাচ তো দূর অস্ত, তাতে চার হয়ে যায়। 

পরের ওভারেই এক রানকে চারে পরিণত করেন শুভমন। সোজা হাতে যে বল যাচ্ছিল, তা ধরতে পারেননি। সহজ বল ফস্কান ইয়ন মর্গ্যানও। কার্তিক তো কমপক্ষে দু'বার বল ফস্কেছেন। তারইমধ্যে অবশ্য দু'বার ভালো ফিল্ডিং করেছেন রাসেল এবং টম ব্যান্টন।

(কেকেআরের যাবতীয় আপডেট খবর দেখুন এখানে)

ম্যাচজুড়ে সেই বাজে ফিল্ডিংয়ের কারণে অনেক ক্ষেত্রেই ব্যাটসম্যানদের উপর বাড়তি চাপ তৈরি করা যায়নি। যে ব্যাটসম্যান ছন্দে নেই, তাঁকে বেশিক্ষণ ক্রিজে রাখা যায়নি। শারজা স্লো পিচ ও পরিস্থিতির বিচারে সেগুলির গুরুত্ব আরও বেশি। কয়েকটা ফিল্ডিং ঠিক হলে হয়তো ব্যাঙ্গালোরকে কিছুটা কম রানে বেঁধে রাখা যেত। সেক্ষেত্রে হয়তো ব্যাটসম্যানরা কিছুটা ধীরস্থির থাকতে পারতেন। কিন্তু অতি সাধারণ মানের ফিল্ডিংয়ে সেই সুযোগ তৈরি হয়নি। সঙ্গে যুক্ত হল ডেথ ওভারে সাধারণ বোলিং ও অত্যন্ত বাজে ব্যাটিং। সেই ত্রিফলায় বিদ্ধ হয়ে ব্যাঙ্গালোরের কাছে ৮২ রানে বশ্যতা স্বীকার করল কেকেআর।

বন্ধ করুন