বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: কেন ব্র্যাভোর আগে কেদার যাদব, আমতা আমতা করে উত্তর ফ্লেমিংয়ের
ফ্লেমিং ও যাদব
ফ্লেমিং ও যাদব

IPL 2020: কেন ব্র্যাভোর আগে কেদার যাদব, আমতা আমতা করে উত্তর ফ্লেমিংয়ের

  • যাদব অফস্পিন ভালো খেলে বলে আগে পাঠানো হয়েছিল, দাবি কোচের। 

কলকাতা নাইট রাইডার্সের সঙ্গে ম্যাচে চেন্নাইয়ের ক্রিকেটাররা শেষ দশ ওভারে কি ঠিক করছিলেন, তা ক্রিকেট ভক্তরা শুধু নয় পণ্ডিতদেরও মাথায় ঢোকেনি। কেদার যাদব কেন এখনও হলুদ জার্সিতে খেলে চলেছেন, ম্যাচের পর ম্যাচ ব্যর্থ হওয়ার পরে, সেটাও কেউ জানেনা। ম্যাচের শেষে যখন স্টিফেন ফ্লেমিংকে প্রশ্ন করা হয়, তিনিও খুব স্পষ্ট  কোনও উত্তর দিতে পারেননি। 

কিউয়ি কোচ বলেন অতিরিক্ত ব্যাটার খেলিয়ে লাভ হত না। প্রসঙ্গত ১৬৮ রান তাড়া করতে গিয়ে ১২ ওভার শেষে ৯৯-১ রানে ভালো অবস্থানে ছিল চেন্নাই। ক্রিজে ছিলেন শ্যেন ওয়াটসন ও আম্বাতি রায়াডু। কিন্তু অল্প ব্যবধানে দুটি উইকেট হারানোর পর রানের গতি একেবারেই শুকিয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত দশ রানে হার হয় ধোনি বাহিনীর। 

হার প্রসঙ্গে ফ্লেমিং বলেন যে দলের ভারসাম্য ঠিক আছে, ব্র্যাভোকে সুযোগ দেওয়া যাচ্ছে না ব্যাটিংয়ের। ভারতীয় বোলাররা ভালো করেছেন বলে ফ্লেমিং জানান তাঁদের যা অভিজ্ঞতা আছে, ম্যাচটি জেতা উচিত ছিল। 

সিএসকে কোচ বলেন যে কোনও ব্যাটার সেট হওয়ার পর শেষ অবধি টানতে পারলেন না। যদি আর ৪-৫ ওভার সেট কেউ টিকে যেত তাহলে ফলাফল অন্য হত বলে তিনি মনে করেন। কেকেআরের প্রশংসা করে ফ্লেমিং বলেন যে কলকাতা হাল ছাড়ে নি, চাপ বাড়িয়ে গিয়েছে ও সিএসকে গতি বাড়াতে পারে নি। তিনি যে হতাশ সেটাও স্বীকার করে নেন তিনি। সুনীল নারিনকে যদি কোনও সেট প্লেয়ার খেলতে পারত, তাহলে সুবিধা হত বলে তাঁর মনে হয়। 

বারো বলে মাত্র সাত করে গত রাতের ভিলেন নিশ্চিত ভাবেই কেদার যাদব। পুরো ইনিংসে তাঁকে ছন্নছাড়া লেগেছে। কেন তিনি এলেন ব্র্যাভোর আগে, সেই প্রসঙ্গে ফ্লেমিং বলেন যে সিএসকে-র ব্যাটিংয়ে এত শক্তি আছে। কেদার তো ভারতের হয়ে মিডল অর্ডারে খেলে। ও চেষ্টা করেছিল কিন্তু রান পায়নি। তবে তিনি স্বীকার করে নেন অন্য কোনও সিদ্ধান্ত তাঁরা নিতে পারতেন। কেদার যাদব অফস্পিন ভালো খেলে এটি বিচার করে তাঁকে নামানো হয়েছিল বলে জানান ফ্লেমিং। 

এই আইপিএলের প্রথম ম্যাচেই কর্ণ শর্মা যেমন বোলিং করলেন, তাঁর প্রশংসা করেন কোচ। তিনি বলেন যে অনেক দিন ধরেই সুযোগের অপেক্ষায় ছিল কর্ণ ও খেলতে পেরেই জাত চেনাল। সিএসকেকে তিনিই খেলায় ফিরে এনেছিলেন, বলেন ফ্লেমিং। তাঁর আশা যত ম্যাচ যাবে পিচ আরও স্লো হবে এবং কর্ণ, রবীন্দ্র ও পীযূষ মিলে চিপক স্টেডিয়ামের মতো আমিরশাহিতে স্পিনের জাদু চালাতে পারবেন। ছটি ম্যাচের পর মাত্র দুটি ম্যাচ জিতেছে সিএসকে। 

বন্ধ করুন