বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: ইতিহাসে দ্বিতীয়বার একইদিনে ৩ সুপার-ওভার, প্রথমবার কবে, কোথায় হয়েছিল, জানেন?
রবিবার আইপিএলের দুটি ম্যাচেই নির্ধারিত ৪০ ওভারে ফয়সালা হয়নি (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
রবিবার আইপিএলের দুটি ম্যাচেই নির্ধারিত ৪০ ওভারে ফয়সালা হয়নি (ছবি সৌজন্য আইপিএল)

IPL 2020: ইতিহাসে দ্বিতীয়বার একইদিনে ৩ সুপার-ওভার, প্রথমবার কবে, কোথায় হয়েছিল, জানেন?

  • টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে একইদিনে একই টুর্নামেন্টের দুটি ম্যাচ টাই কবে হয়েছিল, জানেন?

বিশ্বজুড়ে টি-টোয়েন্টিতে একইদিনে জোড়া সুপার ওভারের নজির কার্যত হাতেগোনা। আর একইদিনে তিনটি সুপার ওভার তো আরও দুর্লভ। রবিবার (১৮ অক্টোবর) পর্যন্ত সেই সংখ্যাটা মাত্র দুই। মুম্বই ইন্ডিয়ান্স বনাম কিংস ইলেভন পঞ্জাবের আগে টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে মাত্র একবারই একইদিনে তিনটি সুপার ওভার হয়েছে।

২০০৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের (স্ট্যান্ডার্ড ব্যাঙ্ক প্রো২০ সিরিজ) দুটি সেমিফাইনালই সুপার ওভারে গড়িয়েছিল। তাও সেটি ছিল তৃতীয় লেগের সেমিফাইনাল। প্রথম দুই লেগে চারটি দলই একটি করে ম্যাচ জিতেছিল। ১৮ ফেব্রুয়ারি ওয়ারির্স বনাম ইগলসের ম্যাচ সুপার ওভারে গিয়েছিল। তাতে সহজেই জিতেছিল ইগলস। সেদিনই কেপ কোবরাস এবং ডলফিনের ম্যাচও নির্ধারিত ৪০ ওভারে শেষ হয়নি। সুপার ওভারে ম্যাচ জিতেছিল গ্রেম স্মিথ, হার্শেল গিবসদের কেপ কোবরাস।

সেদিনই আবার নিউজিল্যান্ডের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে ক্যান্টারবারি উইজার্ড এবং নর্দান নাইটসদের ম্যাচের ফয়সালা হয়েছিল সুপার ওভারে। উইজার্ডের হয়ে সুপার ওভার করেছিলেন শেন বন্ড। যিনি আবার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বোলিং কোচ। মাত্র ছ'রান দিয়েছিলেন তিনি। নাইটদের হয়ে সেই রান রক্ষা করার দায়িত্ব পেয়েছিলেন ট্রেন্ট বোল্ট। যিনি আবার রবিবার মুম্বইয়ের হয়ে দ্বিতীয় সুপার ওভারে বল করেন। তবে সেবারও সফল হননি বোল্ট। দু'বলেই প্রয়োজনীয় রান তুলে নিয়েছিল উইজার্ড।

রবিবার আইপিএলে একইদিনে তিনটি সুপার ওভারের নজির তৈরি হয়। দিনের প্রথম ম্যাচে ৪০ ওভার শেষে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের স্কোর দাঁড়ায় ১৬৩। তারপর কিউয়ি পেসার লকি ফার্গুসনের দাপটে অনায়াসে ম্যাচ জিতে যায় কেকেআর। পরে সন্ধ্যার ম্যাচে নির্দিষ্ট ৪০ ওভারেও ম্যাচ জিততে পারেননি মুম্বই ইন্ডিয়ান্স বা কিংস ইলেভন পঞ্জাব। ফলে স্বভাবতই সুপার ওভার হয়। কিন্তু প্রথম সুপার ওভারেও ফয়সালা হয়নি। দু'দলের স্কোর সমান হয়। পরে দ্বিতীয় সুপার ওভারে ম্যাচ জিতে যায় পঞ্জাব।

তবে আগেও আইপিএলে সুপার ওভার অমীসাংসিত থাকার নজির আছে। ২০১৪ সালে আবুধাবিতে সুপার ওভারে রাজস্থান রয়্যালস ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের স্কোর সমান ছিল। তবে বেশি বাউন্ডারির জন্য রাজস্থানকে জয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। নয়া নিয়মে অবশ্য দ্বিতীয়বারও সুপার ওভারের সুযোগ আছে।

একনজরে দেখে নিন টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে একইদিনে একই টুর্নামেন্টের দুটি ম্যাচ টাই হওয়ার পরিসংখ্যান :

১)  ২০০৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি স্ট্যান্ডার্ড ব্যাঙ্ক প্রো২০ সিরিজে। ওয়ারির্স বনাম ইগলস এবং কেপ কোবরাস বনাম ডলফিন।

২) ২০১১ সালের ২৭ অগস্ট ফ্রেন্ডস লাইফ টি-টোয়েন্টি সিরিজে। দুটি সেমিফাইনাল সুপার ওভারে গিয়েছিল। ল্যাঙ্কাশায়ার বনাম লেস্টারশায়ার এবং হ্যাম্পশায়ার বনাম সমারসেট। ফাইনালে গিয়েছিল লেস্টারশায়ার এবং সমারসেট।

৩) ২০১৮ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি এসএলসি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে। কলম্বো ক্রিকেট অ্যাকাডেমি বনাম শ্রীলঙ্কা আর্মি স্পোর্টস ক্লাব এবং গল ক্রিকেট ক্লাব বনাম তামিল ইউনিয়ন ক্রিকেট অ্যান্ড অ্যাথলেটিক ক্লাব।

৪) ২০১৯ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর সিএসএ প্রভিনসিয়াল টি-টোয়েন্টি কাপে। কোয়াজুলু-নাটাল বনাম ফ্রি স্টেটের ম্যাচে সুপার ওভারে জিতেছিল কোয়াজুলু-নাটাল। সেদিনই ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স বনাম পুমালাঙ্গার ম্যাচ সুপার ওভারে গিয়েছিল। তাতে জিতেছিল ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স।

৫) ২০২০ সালের ১৮ অক্টোবর। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং মুম্বই ইন্ডিয়ান্স বনাম কিংস ইলেভন পঞ্জাব।

বন্ধ করুন