বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020- কেদার যাদবের স্পার্ক ছিল? তরুণদের দোষ দেওয়ার জন্য ধোনিকে তুলোধোনা করলেন শ্রীকান্ত
আউট হওয়ার পর ধোনি (PTI)
আউট হওয়ার পর ধোনি (PTI)

IPL 2020- কেদার যাদবের স্পার্ক ছিল? তরুণদের দোষ দেওয়ার জন্য ধোনিকে তুলোধোনা করলেন শ্রীকান্ত

  • ধোনি মহান ক্রিকেটার, কিন্তু অবান্তর কথা বলছে, জানান শ্রীকান্ত। 

ফের সাত উইকেটে লজ্জার হার চেন্নাই সুপার কিংসের। এই মুহূর্তে পয়েন্টস টেবিলে সবচেয়ে নিচে সিএসকে। ক্যাপ্টেন কুল কার্যত মেনে নিয়েছেন যে এই বার তাদের যাত্রা শেষ। কিন্তু কেন চেন্নাই ব্যর্থ বয়স্ক খেলোয়াড়দের খেলিয়ে গেল, তরুণদের সুযোগ দিল না, সেই প্রশ্নে ধোনির উত্তরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। 

ধোনি বলেন যে তরুণদের মধ্যে তেমন স্পার্ক দেখা যায়নি, সেই কারণে তাদের বেশি ম্যাচ দেওয়া হয়নি। বাস্তব হল জগদীশনের মতো তরুণকে একটি, ঋতুরাজকে দুটি ম্যাচ দেওয়া হয়। অন্যদিকে ম্যাচের পর ম্যাচ ব্যর্থ হওয়ার পরেও খেলেছেন কেদার যাদব। তাই বাস্তবের সঙ্গে ধোনির কথা মিলছে না। সেই বিষয়টি তুলে ধরেছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার কৃষ্ণমচারি শ্রীকান্ত। নিজের ক্রিকেটীয় জীবনে তিনি ছিলেন বিস্ফোরক। অবলীলায় বোলারদের মাঠের বাইরে পাঠাতেন তিনি। সেই কায়দায় ধোনির কথা অবান্তর বলে বোমা ফাটালেন তিনি 

স্টার স্পোর্টস তামিলকে শ্রীকান্ত বলেন যে ধোনি নিশ্চিত ভাবেই মহান ক্রিকেটার কিন্তু তাঁর কথা মানা যায় না। বারবার ধোনি প্রশেসের কথা বলছেন, কিন্তু দল নির্বাচনের প্রক্রিয়াই তো ভুল, অভিযোগ করেন শ্রীকান্ত। কেন পীযূষ চাওলা এবং কেদার যাদবকে খেলানো হচ্ছে, সেই প্রশ্ন করেন বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার। 

আট ইনিংসে মাত্র ৬২ রান করেছেন কেদার যাদব। বোলিংও করেননি। তাহলে কি করতে তিনি দলে আছেন, সেটাই শ্রীকান্তের প্রশ্ন। অন্যদিকে তরুণ জগদীশন একটি ম্যাচে সুযোগ পেয়ে ২৮ বলে ৩৩ রান করেন। তাঁর উদাহরণ দিয়ে প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান বলেন যে জগদীশনের মধ্যে প্রতিভার দ্যুতি নেই তো কি কেদার যাদবের মধ্যে আছে। পীযূষ চাওলা কি প্রতিভা দেখিয়েছেন, সেই প্রশ্নও করেন তিনি। শ্রীকান্ত বলেন যে ধোনি পুরোপুরি অবান্তর কথা বলছেন, এভাবে চেন্নাই টুর্নামেন্ট থেকে বেরিয়ে যাবে। 

বর্তমানে দশটি ম্যাচ খেলে মাত্র তিনটি ম্যাচ জিতেছে চেন্নাই। প্লে-অফের আশা যে কার্যত শেষ সেটা মেনে নিয়েছেন ধোনি। নিজের ২০০ তম ম্যাচে হারের পর ধোনি বলেন যে তরুণরা এরপর চাপ ছাড়া খেলতে পারবে। তবে রাজস্থান রয়্যালস ম্যাচে ধোনির রণনীতি নিয়েও প্রশ্ন করেন শ্রীকান্ত। তাঁর মতে, এটা বিশ্বাসযোগ্য নয় যে পিচে বল গ্রিপ করছিল না। খেলা কার্যত শেষ হয়ে যাওয়ার পর চাওলাকে বল দেওয়া হল। প্রসঙ্গত ১২৬ তাড়া করতে গিয়ে পাওয়ার প্লে-তে তিনটি উইকেট হারায় রাজস্থান। কিন্তু তারপর বাটলার ও স্মিথের অপরাজিত জুটি মূল্যবান দুই পয়েন্টস তুলে দেয় তাদের। যখন তাঁরা সেট হননি, ধোনির বোলার নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন করেছেন শ্রীকান্ত। 

 

বন্ধ করুন