বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > IPL 2020: সংসার চলছিল না, তাই স্থাপত্য থেকে আসেন ক্রিকেটে, জানালেন বরুণ চক্রবর্তী

একটা সময় স্থাপত্যকার হিসেবে জীবনে বড় হয়ে উঠতে চলেছিলেন। কিন্তু খুচখাচ ফ্রিলান্সিংয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছিল। তাতে পরিবারের সংস্থান হচ্ছিল না। তারপর বেছে নিয়েছিলেন ক্রিকেটকে। ভাগ্যিস, সেটা করেছিলেন বরুণ চক্রবর্তী। নাহলে এক রত্ন থেকে বঞ্চিত হত ক্রিকেট দুনিয়া।

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট, লাইভ স্কোর দেখুন এখানে)

এবারের আইপিএলের গোড়ার দিকে সুযোগ পাননি। কিন্তু কুলদীপ যাদবের অফ-ফর্মের সুবাদে দলে ঢোকেন। তারপর হয়ে উঠেছেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্র। মোটের উপর ভালো বল করছিলেন। কিন্তু অপরদিক থেকে সেভাবে সাহায্য পাচ্ছিলেন না। আসছিল না উইকেট। দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে সেই আফসোস সুদে আসলে মিটিয়ে নেন বরুণ। চার ওভারে ২০ রানে নেন পাঁচ উইকেট। যা এবারের আইপিএলে সেরা বোলিং পারফরম্যান্স।

অথচ একটা সময় ক্রিকেটে আসার কথা ছিল না তাঁর। যে বোলারকে রহস্য স্পিনার হিসেবে সমঝে চলা হয়, তিনি ২০১৮ সালে স্পিন বোলিং শুরু করেছেন। তামিলনাড়ুতে চতুর্থ ডিভিশনে খেলতেন। ইতিমধ্যে তামিলনাড়ু প্রিমিয়ার লিগে (টিএনপিএল) সুযোগ পান। আর সেখান থেকে বিশ্বের অন্যতম সেরা টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করছেন।

দিল্লির বিরুদ্ধে ম্যাচের সেরা পুরস্কার পাওয়ার পর বরুণ বলেন, ‘আমি মোটামুটি ২০১৮ সাল থেকে স্পিন বোলিং শুরু করি। তখন টিএনপিএলে সুযোগ পাই। তারপর থেকে সাফল্য-ব্যর্থতা এসেছে। গত বছর আমি বেশি সুযোগ পাইনি। আমি চোট পেয়েছিলাম। এবার আমি প্রত্যাবর্তন করতে পেরেছি। সেজন্য আমি ধন্য।’

পরে হর্ষ ভোগলে জানতে চান, কবে স্থাপত্য থেকে ক্রিকেটে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বরুণ। জবাবে কেকেআরের নয়া তারকা বলেন, ‘২০১৫ সাল নাগাদ। তখন আমি টাকা পাচ্ছিলাম না। ফ্রিলান্সিং করছিলাম। নিজের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে পারছিলাম না। তখন আমি ভাবি যে কিছু আলাদা করব। আর সেভাবেই ক্রিকেটে আসি।’

বন্ধ করুন