বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > KKR vs RCB: মরুশহরে লজ্জার চোরাবালিতে তলিয়ে গেল KKR, আবারও বিরাটদের সামনে আত্মসমর্পণ

কলকাতা নাইট রাইডার্সের ম্যানেজমেন্টকে বুধবার ধন্যবাদ দিতেই পারেন খেলোয়াড়রা। রিজার্ভ বেঞ্চ এতটাই দুর্বল যে বাজে ফর্ম সত্ত্বেও তাঁরা খেলার সুযোগ পেয়েই পাচ্ছেন। নাহলে কেকেআরের প্রথম একাদশের কতজন আদৌও ব্যাট-বল করতে নামতেন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা ছিল। আর যা হওয়ার ছিল, তাই হল। প্রথম লেগের মতো দ্বিতীয় লেগেও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে অসহায় আত্মসমপর্ণ করল কলকাতা নাইট রাইডার্স। (আইপিএলের যাবতীয় আপডেট, লাইভ স্কোর দেখুন এখানে)

KKR vs RCB আপডেটস: 

  •  ভূরিভূরি লজ্জার ‘নজির’ KKR-র, সত্যিকালের রেকর্ড ব্যাঙ্গালোরের - দেখে নিন সেগুলি
  •  কলকাতা নাইট রাইডার্সের ম্যানেজমেন্টকে বুধবার ধন্যবাদ দিতেই পারেন খেলোয়াড়রা। রিজার্ভ বেঞ্চ এতটাই দুর্বল যে বাজে ফর্ম সত্ত্বেও তাঁরা খেলার সুযোগ পেয়েই পাচ্ছেন। নাহলে কেকেআরের প্রথম একাদশের কতজন আদৌও ব্যাট-বল করতে নামতেন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা ছিল। আর যা হওয়ার ছিল, তাই হল। প্রথম লেগের মতো দ্বিতীয় লেগেও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে অসহায় আত্মসমপর্ণ করল কলকাতা নাইট রাইডার্স।
  • ৩৯ বলে বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে গেল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। জয় এল আট উইকেটে।
  • KKR vs RCB- ২০১৭ সালে নাইটদের হাতে ৪৯ রানে অল আউট হওয়ার বদলা নিচ্ছে আরসিবি? কি বলছেন গম্ভীর
  • ফোন নম্বর নাকি KKR-এর ব্যাটসম্যানদের স্কোর? নাইটদের ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণ কী?
  • এটা কী হল? চূড়ান্ত ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হলেন দেবদূত পাড়িক্কাল। ফার্গুসনের ওভারে ২ উইকেট পড়ল। ৬.৪ ওভারে স্কোর ২ উইকেটে ৪৬ রান।
  • সপ্তম ওভারে প্রথম উইকেট পড়ল। নিলেন সেই লকি ফার্গুসন। তারপরও তাঁকে আনা হল। কারণটা সম্ভবত ইয়ন মর্গ্যান বলতে পারবেন। ব্যাঙ্গালোরের স্কোর ৬.২ ওভারে এক উইকেটে ৪৬ রান। অফস্টাম্পের পঞ্চম স্টাম্পের বলে খোঁটা দিয়ে আউট হলেন।
  • ৬ ওভারে ব্যাঙ্গোলোরের স্কোর বিনা উইকেটে ৪৪।
  • ম্যাচ শুরুর আগে বলেছিলেন, আর কেকেআর জিতবে। তবে তিনি জেতাবেন বলেননি। সেটা দেখেই বোঝা যাচ্ছে। চতুর্থ ওভারে দিলেন ১৩ রান। প্রতিভাবান বোলারের প্রতিভার কথা শোনা যায়। ঝলক দেখা যায় মাঝেমধ্যে।
  • দ্বিতীয় ওভার বল করতে এলেন প্রসিধ কৃষ্ণা। লকি ফার্গুসনকে কখন আনবেন মর্গ্যান?
  • ব্যাট করতে নামলেন অ্যারন ফিঞ্চ ও দেবদূত পাড়িক্কাল। বল হাতে প্যাট কামিন্স।
  • কেকেআরের হয়ে সর্বোচ্চ স্কোর করলেন ইয়ন মর্গ্যান (৩০)। ১৬ বলে ফার্গুসন করলেন ১৯ রান। ১৯ বলে ১২ রানে অপরাজিত থাকলেন কুলদীপ যাদব।
  • একাধিক রেকর্ড গড়লেন মহম্মদ সিরাজ। প্রথম রান দেওয়ার আগে সবথেকে বেশি ডট বল করলেন। সেটি ১২। সবথেকে কম রান দিয়ে তিন উইকেট নিলেন।
  • আইপিলের ইতিহাসে নিজেদের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোর কেকেআরের। শেষপর্যন্ত ২০ ওভারে আট উইকেট ৮৪ রান। তাও অষ্টম উইকেটে উঠল ২৬ রান।
  • অসামান্য বোলিং সিরাজের। চার ওভারে আট রান দিয়ে তিন উইকেট নিলেন। তাও শেষ ওভারে উঠল ৬ রান।
  • আইপিএলের ইতিহাসে নিজেদের সর্বনিম্ন স্কোর পার করল কেকেআর। এতদিন কেকেআরের সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ৬৭। ২০০৮ সালের ১৬ মে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ওয়াংখেড়েতে ৬৭ রানে অল-আউট হয়েছিল কেকেআর।
  • আইপিএলের ইতিহাসে সর্বনিম্ন স্কোর : ১) রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (বনাম কলকাতা নাইট রাইডার্স) - ৪৯/১০ (৯.৪)। ২) রাজস্থান রয়্যালয় (রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর) : ৫৮/১০ (১৫.১)।
  • টাইম আউটের পরের ওভারেই আউট হলেন ইয়ন মর্গ্যান। ১৫.৩ ওভারে দারুণ সুইপ মেরেছিলেন। কিন্তু পরের বলেই একই জায়গা দিয়ে মারতে গিয়ে আউট হলেন। ৩৪ বলে করলেন ৩০ রান। কেকেআরের স্কোর সাত উইকেটে ৫৭ রান।
  • ১৫ ওভারে কেকেআরের স্কোর ৬ উইকেটে ৫২ রান। নভদীপ সাইনির বলে শর্ট বলে ডিপ স্কোয়ারের ডানদিক দিয়ে চার মেরে লেই লজ্জা থেকে বাঁচালেন মর্গ্যান। দলের অর্ধেক রানই করেছেন তিনি। ২৬ রানে অপরাজিত তিনি।
  • আইপিএলের ইতিহাসে চরমতম লজ্জার হাত থেকে বাঁচল কেকেআর। আইপিএলের ইতিহাসে সর্বনিম্ন স্কোর ছিল ব্যাঙ্গালোরের। ২০১৭ সালের ২৩ এপ্রিল ইডেনে সেই রানের বিরাটদের আউট করেছিল কেকেআর। অনেক খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে আজ সেই রান পার করলেন নাইটরা।
  • ইডেনে বিরাটদের ৪৯ রানে অল-আউট করেছিল কেকেআর। এবার কি সেই লজ্জার প্রতিশোধ নিতে পারবে ব্যাঙ্গালোর?
  • এবার আউট হলেন প্যাট কামিন্স। বুধবার প্রথম থেকেই ছন্দে ছিলেন না। কয়েকবার অল্পের জন্য এলবিডব্লুউয়ের আবেদনে বেঁচে যান। এবার একেবারে ফাঁদ পেতে তাঁকে আউট করলেন যুজবেন্দ্র চহাল। অফস্টাম্পের বাইরে লেগস্পিন করেছিলেন। এক্সট্রা কভারের উপর দিয়ে তুলে দিয়েছিলেন কাম্নিস। কিন্তু ব্যাটের নীচের দিকে বল লাগে। ১২.৩ ওভারে কেকেআরের স্কোর ৬ উইকেটে ৪০ রান।
  • ১২ তম ওভারে মেডেন করলেন ওয়াশিংটন সুন্দর। অর্থাৎ একই ম্যাচে চারটি মেডেন ওভার হল।
  • IPL-এ ইতিহাসে অসামান্য রেকর্ড সিরাজের, দলগতভাবে নজিরের ছড়াছড়ি RCB-র – পড়ে নিন এখানে
  • এবার আউট হলেন দীনেশ কার্তিক। লেগ স্পিনের বিরুদ্ধে এবার আইপিএলে তাঁর দুর্বলতা বারবার ধরা পড়েছে। বুধবারও তার ব্যতিক্রম হল না। চহালের বলে প্যাডে লেগেছিল। একেবারে শেষ মুহূর্তে
  • ৬ ওভারে কেকেআরের স্কোর ৪ উইকেটে ১৭ রান।
  • আইপিএলের ইতিহাসে প্রথম বোলার একই ম্যাচে জোড়া মেডেন ওভারের নজির গড়লেন মহম্মদ সিরাজ।
  • প্রথম ২ ওভারে এক রানও দিলেন না মহম্মদ সিরাজ। নিলেন সিরাজ। দুর্ধর্ষ! অস্ট্রেলিয়ার বিমানে ওঠার জন্য শার্দুল ঠাকুরের সঙ্গে তাঁর লড়াই ছিল। এরকম পারফরম্যান্স হলে অস্ট্রেলিয়ার বিমানে তাঁর ওঠা নিশ্চিত।
  • ১৪ বল হতে না হতেই আইপিএলের ইতিহাসে লজ্জাজনক রেকর্ড গড়ে ফেলল কলকাতা নাইট রাইডার্স। সবথেকে কম রানে তিন উইকেট হারানোর নিরিখে চেন্নাই সুপার কিংসকে ছুঁয়ে ফেলল কেকেআর। ২০১৩ সালে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে তিন রানে তিন উইকেট পড়েছিল চেন্নাইয়ের। সাত বছর পর সেই লজ্জার ভাগীদার হল কলকাতা নাইট রাইডার্সও।
  • চার উইকেট পড়ল কেকেআরের। এবার ফিরলেন টম ব্যান্টন। দুর্ধর্ষ বোলিং সিরাজের। টি-টোয়েন্টি ম্যাচে কার্যত টেস্ট বোলিং করছেন। ৩.৩ ওভারে স্কোর চার উইকেটে ১৪ রান।
  • এবার আউট হলেন শুভমন গিল। বড় শট মারতে গিয়ে আউট হলেন। অফস্টাম্পের বাইরে শর্ট বল পুল মারতে গিয়ে আউট হলেন। বাজে শট নির্বাচন! ২.২ ওভারে তিন উইকেটে ৩ রান।
  • প্রথম বলেই আউট হলেন নীতিশ রানা। সিরাজের ভিতর দিকে ঢুকে আসা বলে রানার ব্যাট ও প্যাডের মধ্যে এতটা ফাঁক ছিল, সম্ভবত একটা গোটা মরুভূমি দেখা যাবে। ফলস্বরূপ মাঠে এসে প্যাভিলিয়নে ফিরলেন রানা।
  • দ্বিতীয় ওভারেই প্যাভিলিয়নে ফিরলেন রাহুল ত্রিপাঠী। মহম্মদ সিরাজের বলে থার্ড ম্যানে বল ঠেলে এক রান নিতে গিয়ে খোঁচা দিলেন। ক্যাচ ধরতে কোনও ভুল করলেন না এবি ডি'ভিলিয়ার্স। ১.৩ ওভারে স্কোর এক উইকেটে ৩ রান।
  • প্রথম ওভারে উঠল তিন রান।
  • ওপেনিংয়ে নামলেন শুভমন গিল এবং রাহুল ত্রিপাঠী। বল হাতে ক্রিস মরিস। আপাতত চার নম্বরে দেখাচ্ছে টম ব্যান্টনকে। তিনি প্যাড পরে তৈরি একেবারে।
  • ২০১২ সালের পর এই প্রথম কেকেআরের কোনও ম্যাচে রাসেল ও নারিন দু'জনেই দলে নেই।
  • সুনীল নারিনের প্রসঙ্গে ইয়ন মর্গ্যান বলেন, ‘সুনীল এখনও ১০০ শতাংশে নেই।’
  • ইয়ন মর্গ্যান : আমরা প্রথমে ব্যাট করব। উইকেট ভালো লাগছে। আমরা যে ম্যাচগুলি জিতেছি, সেগুলি অধিকাংশ ম্যাচেই প্রথমে ব্যাট করেছি। টুর্নামেন্টে এখনও পর্যন্ত সেটা আমাদের অনুকূলে গিয়েছে।
  • কলকাতা নাইট রাইডার্সের প্রথম একাদশ : শুভমন গিল, রাহুল ত্রিপাঠী, টম ব্যান্টন, নীতিশ রানা, ইয়ন মর্গ্যান, দীনেশ কার্তিক, প্যাট কামিন্স, লকি ফার্গুসন, বরুণ চক্রবর্তী, প্রসিধ কৃষ্ণ,
  • জোড়া পরিবর্তন কেকেআরের। ব্যান্টন ছাড়াও দলে এলেন প্রসিধ কৃষ্ণ। বাদ পড়লেন শিবম মাভি।
  • দল থেকে বাদ পড়লেন আন্দ্রে রাসেল। প্রত্যাশিতভাবেই তাঁর পরিবর্তে দলে এলেন না সুনীল নারিন। সেক্ষেত্রে ব্যাটিং একেবারেই দুর্বল হয়ে যেত। দলে এসেছেন টম ব্যান্টন। রাসেল চোটের জন্য বাদ পড়েছেন।
  • টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত কলকাতা নাইট রাইডার্সের।

বন্ধ করুন