বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > MI vs KXIP: জোড়া সুপার ওভার, আইপিএলের ইতিহাসে সবথেকে উত্তেজক জয় গেইল-রাহুলদের
হাফ-সেঞ্চুরির পথে লোকেশ রাহুল। ছবি- আইপিএল।
হাফ-সেঞ্চুরির পথে লোকেশ রাহুল। ছবি- আইপিএল।

MI vs KXIP: জোড়া সুপার ওভার, আইপিএলের ইতিহাসে সবথেকে উত্তেজক জয় গেইল-রাহুলদের

  • ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগে দ্বিতীয়বার সুপার ওভারের খেলাও টাই হয়। যদিও প্রথমবার ম্যাচে জোড়া সুপার ওভার দেখা যায়।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে শেষ বলে ম্যাচ জিতে উঠে পর পঞ্জাবের মালকিন প্রীতি জিন্টা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিধিসম্মত সকর্তবার্তা জারি করেছিলেন যে, কিংস ইলেভেনের ম্যাচ দুর্বল হৃদয়ের মানুষদের জন্য নয়। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন, পঞ্জাবের উত্তেজক ম্যাচ ক্রিকেটপ্রেমীদের হার্ট অ্যাটকের কারণ না হয়ে দাঁড়ায়।

প্রীতি জিন্টা যে এক বর্ণও ভুল বলেননি, সেটা বোঝা গেল পরের ম্যাচেই। দুবাইয়ে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে আইপিএলের ইতিহাসে সবথেকে উত্তেজক ম্যাচ জিতলেন কেএল রাহুলরা।

(আইপিএলের লাইভ আপডেট ও লাইভ স্কোর জানতে ক্লিক করুন এখানে।)

নির্ধারিত ২০ ওভারে ম্যাচ টাই হয়। পরে সুপার ওভারও টাই হয়। দ্বিতীয় সুপার ওভারে অবশ্য দাপুটে জয় তুলে নেয় পঞ্জাব।

শুরুর দিকে আমিরশাহির পিচে যে রকম ব্যাটসম্যানদের দাপট চোখে পড়ছিল, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ছবিটা বদলে গিয়েছে। পিচ ক্রমশ স্লো হয়ে যাওয়ায় রান তোলা তুলনায় কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেকারণেই দুবাইয়ে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ৬ উইকেটে ১৭৬ রানকে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং টোটাল বলতেই হয়।

লোকেশ রাহুলের অধিনায়কোচিত হাফ-সেঞ্চুরিতে (৭৭) ভর করে পঞ্জাব মুম্বইয়ের চ্যালেঞ্জিং টোটাল ছুঁয়ে ফেলে। তবে টপকে যাওয়া সম্ভব হয়নি। কিংস ইলেভেনও ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৬ রান তোলে।

ফলাফল নির্ধারণের জন্য ম্যাচ গড়ায় সপুার ওভারে। প্রথমে ব্যাট করে পঞ্জাব বুমরাহর ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৫ রান তোলে। পঞ্জাবের হয়ে বল হাতে নিয়ে মহম্মদ শামি মুম্বইকে আটকে রাখেন ৫ রানে। অর্থাৎ, সুপার ওভারও টাই হয়।

দ্বিতীয় সুপার ওভারে মুম্বই প্রথমে ব্যাট করে জর্ডনের ওভারে ১ উইকেটে ১১ রান তোলে। মায়াঙ্ক আগরওয়াল শেষ বলে দুরন্ত ফিল্ডিংয়ে একটি ছক্কা বাঁচিয়ে দেন। গেইল ও মায়াঙ্ক পঞ্জাবের হয়ে ব্যাট করতে নেমে ৪ বলে ১৫ রান তুলে দলের জয় নিশ্চিত করেন।

বন্ধ করুন